খবর

কলেজ খুলতেই শ্রেণীকক্ষে উদ্ধার হল কঙ্কাল! ঘটনার জেরে আতঙ্কে কাটা বারাণসীবাসী

করোনা প্রাদুর্ভাবের জেরে প্রায় এক বছরের উপর বন্ধ ছিল স্কুল, কলেজ, অফিস সবই। টানা লকডাউনে বিভিন্ন স্কুলে তৈরি হয়েছিল কোয়ারেন্টাইন সেন্টার। কোথাও তৈরি হয়েছিল পরিযায়ী শ্রমিকদের জন্য আশ্রয়কেন্দ্র। গত কয়েকদিনে পরিস্থিতি সামান্য স্বাভাবিক হতেই কোনো কোনো স্কুল কলেজ করোনা বিধি নিষেধ মেনেই ধীরে ধীরে খুলতে শুরু করেছে৷

উত্তরপ্রদেশের বারাণসীর কান্ট এলাকার একটি কলেজ খুলতেই বুধবার এক ভয়ানক ঘটনার সাক্ষী রইল স্থানীয় জনগণ। ক্লাসরুম পরিস্কার করতে গিয়ে পড়ে থাকতে দেখা গেল একটি কঙ্কাল। বুধবার এই ঘটনার জেরেই নিমেষে চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে গোটা এলাকা জুড়েই। ছাত্র ছাত্রীরাই প্রথম এই কঙ্কাল দেখতে পায়৷

খবর পাওয়া মাত্রই ঘটনাস্থলে পুলিশ এবং একটি ফরেন্সিক দল পৌঁছোয়৷ ইতিমধ্যেই ফরেন্সিক দল কঙ্কাল থেকে নমুনা সংগ্রহ করে প্রাথমিক তদপ্নতে নেমেছে বলে জানা যাচ্ছে। এখনও নিহতের সম্পর্কে কোনোও তথ্য পাওয়া যায়নি।

সূত্রের খবর, গত বছর করোনভাইরাস প্রাদুর্ভাবের সময় স্থানীয় প্রশাসন এই আন্তঃ কলেজটিকে একটি আশ্রয়স্থলে পরিণত করেছিল এবং দরিদ্র, গৃহহীন এবং বিশেষভাবে অক্ষম ব্যক্তিদের আশ্রয় দেওয়ার জন্য ব্যবহৃত হয়েছিল।

এদিকে কলেজের অধ্যক্ষ ডাঃ একে সিং সংবাদ মাধ্যমকে জানান যে, কলেজ ক্যাম্পাসের পিছনে প্রচুর বন ঝোপঝাড় রয়েছে এবং সেখানে একটি খেলার মাঠ তৈরি করার প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে। এই কারণে দুই দিন পরিষ্কার করার জন্য কলেজ খোলা হয়েছিল। সে সময়ই কলেজের পিছনের দিকের ওই ক্লাসরুম থেকে কঙ্কালটি উদ্ধার হয় ।করোনার সময়ে কলেজটি স্থানীয় গৃহহীনদের আস্তানা হয়েছিল । তাঁদের মধ্যে অনেকেই ছিলেন মানসিকভাবে অসুস্থ । অনেক সময়ই নিজেদের মধ্যে ইট, পাথর ছুড়ে মারামারি করতেন তাঁরা । সম্ভবত সে সময়ই কেউ মারা যান

Related Articles

Back to top button