গসিপবিনোদন

খাবার জুটলে থাকতনা বাসভাড়া, করতেন ৩৫ টাকার চাকরি! আজ শতকোটির ছবির পরিচালক রোহিত শেট্টি

বলিউডে কমার্শিয়াল সিনেমা বানানোর ক্ষেত্রে একেবারে সিদ্ধহস্ত পরিচালক রোহিত শেট্টি (Rohit shetty)। তার পরিচালিত সূর্যবংশী মুক্তির পর থেকেই বক্স অফিস কাঁপাচ্ছে। এছাড়া সামনেই রয়েছে সিংঘম ফ্র্যাঞ্চাইজির তৃতীয় ছবি ‘সিংহম-৩’। তাঁর ছবি মানেই কোটি কোটি টাকা আয়। তবে এই পরিচালকেরই প্রথম জীবনের কথা শুনলে চোখে জল এসে যাবে। সম্প্রতি নিজের প্রথম জীবনের সংগ্রামের কথাই এক সাক্ষাৎকারে জানিয়েছেন রোহিত।

রোহিত অ্যাকশন কোরিওগ্রাফার এম বি শেট্টির ছেলে। রোহিত গোলমাল ফ্র্যাঞ্চাইজি এবং তার কপ ইউনিভার্স অফ ফিল্ম এর কর্ণধার। তিনি বোল বচ্চন (2012), চেন্নাই এক্সপ্রেস (2013) এবং দিলওয়ালে (2015) সহ অন্যান্য সুপারহিট সব সিনেমা পরিচালনা করেছিলেন।

সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে রোহিত জানান, “এই যাত্রাটা খুব একটা সহজ ছিলনা। সকলে ভাবেন আমি যেহেতু ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির সাথে ছোট বেলা থেকেই যুক্ত তাই আমার পক্ষে এই কাজ খুব সহজ ছিল। আমি প্রথম চাকরিতে ঢুকি মাত্র ৩৫ টাকা বেতনে। অনেক সময় এমন হয়েছে আমায় খাবার এবং বাসভাড়ার মধ্যে একটা বেছে নিতে হয়েছে। অনেক দূর দূর পর্যন্ত পয়সার অভাবে হেঁটেই চলাফেরা করেছি। ”

তিনি আরও বলেন, “আমরা সান্তা ক্রুজে থাকতাম এবং তারপরে আমরা দহিসরে, আমার দাদির বাড়িতে চলে আসি। আর্থিকভাবে তখন অনেক সংকট ছিল, আমাদের থাকার জন্য ঘর ছিল না। আমার দাদি থাকতেন দহিসরে। , অনেক দূরে। তারপর হাঁটতে শুরু করলাম। মালাড থেকে আন্ধেরি পর্যন্ত অনেকবার হেঁটে যেতাম। রোদে আমার দেড় থেকে দুই ঘণ্টা লেগে যেত। আমি অনেক অলিগলি চিনি তাই এখন যখন ড্রাইভারকে বলি। ‘এই পথ ধর, ওটা নয়’, সে রিয়ারভিউ আয়নায় আমার দিকে তাকায় আর ভাবে ‘ আমি কী করে জানলাম, আগে কি চোর ছিলাম?’।”

প্রসঙ্গত, সম্প্রতি, রোহিত শেঠির সূর্যবংশী, একটি কপ-ড্রামা, প্রেক্ষাগৃহে হিট করেছে। ছবিটিতে অক্ষয় কুমারকে মুম্বাইয়ের সন্ত্রাসবিরোধী স্কোয়াডের প্রধান ডিসিপি বীর সূর্যবংশী চরিত্রে দেখানো হয়েছে যিনি শহরে একটি মারাত্মক সন্ত্রাসী হামলা থামিয়েছেন।এছাড়া ক্যাটরিনা নায়িকার চরিত্রে ছিলেন। ক্যামিওতে দেখা গিয়েছে অজয় দেবগণ ও রণবীর সিংকে।

Related Articles

Back to top button