বাড়ির ছাদে বা উঠোনে মুক্তো চাষ করে প্রতি মাসে কামাতে পারেন তিন লাখ টাকা! জানুন বিস্তারিত


সারাদেশব্যপী করোনা প্রবাহ বয়ে যাওয়ার পর সাধারণ মানুষের অর্থনৈতিক অবস্থা কার্যত বেহাল। কাজ গেছে বহু মানুষের, পাশাপাশি মূল্যবৃদ্ধি তো লেগেই আছে। না আছে চাকরি, না আছে নতুন কোনো কর্মসংস্থান। এমতাবস্থায় কোনো ব্যবসা করতেও লাগবে মোটা টাকার পুঁজি। কিন্তু আজ আপনাদের এমন একটি ব্যবসার হৃদিশ দেব যেখানে অল্প পুঁজিতেই প্রায় তিনগুণ লাভ করা সম্ভব।

আপনাকে যে ব্যবসার কথা বলছি তা শুনলে আপনি খানিক অবাকই হবেন, কিন্তু তবুও যদি ধৈর্য্য ধরে পুরোটা পড়েন তবে হয়ত এভাবেই ছিঁড়তে পারে আপনার ভাগ্যের শিকে। আজ আপনাদের সঙ্গে ভাগ করে নেব মুক্ত ব্যবসার খুটিনাটি। শুনে হয়ত ভাবছেন এত দামি জিনিস চাষ করতে গেলে প্রচুর অর্থের দরকার। কিন্তু তা একেবারেই নয় মুক্ত অনেক দামি হলেও এই ব্যবসা খুব স্বল্প পুঁজিতেই শুরু করা যায়।

সমুদ্র নয় বাড়ির পুকুরেই মাছের সঙ্গে ঝিনুক অর্থাৎ যা থেকে মুক্তো পাওয়া যায়, তা চাষ করতে পারেন আপনি। বাংলাদেশের এক চাষি সম্প্রতি এই ঘটনাকে বাস্তব করে দেখিয়েছেন। টিস্যু প্রতিস্থাপন পদ্ধতি ও নিউক্লিয়ার্স বা গোলাকার ধরনের মুক্তা চাষ করছেন।জানা যায়, চাষ করা একেকটি মুক্তা ৩৫০-৪০০ টাকা বিক্রি করেন ওই চাষি। একটি ঝিনুক থেকে প্রায় ৩-৪ টি মুক্তো মেলে। ওই চাষি ভাই জানিয়েছেন, আমি ২০১৯ সালের প্রথমদিকে মাত্র ৭০০ ঝিনুক দিয়ে মুক্তা চাষ শুরু করি। এতে ৩৫ হাজার টাকা খরচ হয়। বছর শেষে ১ লাখ ৮০ হাজার টাকা বিক্রি করি। চলতি বছর পুকুরে ৬ হাজার ঝিনুকে মুক্তা চাষ চলছে। এবার ৩ লাখ টাকার মুক্তা বিক্রি হবে বলে আশা করছি।’ এই কাজে মন দিচ্ছে অনেক বেকার যুবক ।


Like it? Share with your friends!

667
667 points