পিৎজা ডেলিভারিতে সামান্য ভুলের কারণে কোটি টাকার খেসারত দিতে হবে পারে কোম্পানিকে!


আজকাল ছোট থেকে বড় অনেকেরই পছন্দের খাবারের তালিকায় রয়েছে পিৎজা (Pizza)। ভেজ, ননভেজ নানান ধরণের পিৎজা পাওয়া যায় বাজারে। নামীদামী ব্রান্ডের পিৎজা আবার অনলাইনে অর্ডার করলে বাড়িতে বসেই ডেলিভারি (Home Delivery) পাওয়া যায়। আর এই কারণেই বর্তমানে চটজলদি পেট ভরাতে পিৎজা এক এবং অদ্বিতীয়।

আগেই বলেছি পিৎজা ভেজে ও ননভেজ (Veg & Non Veg Pizza) দুই ধরণেরই পাওয়া যায়। কারণ আমাদের দেশে অনেকেই এমন রয়েছেন যারা সম্পূর্ণরূপে নিরামিষভোজী, তারা মোটেও মাংস মুখে ঠেকাননা। আবার অনেকের মতেই মাংস ছাড়া আবার পিৎজা হয় নাকি! তাই দুই ধরণের পিৎজাই বানানো হয় পিৎজাপ্রেমীদের জন্য। এর জন্য আলাদা রান্নাঘর থেকে শুরু করে রান্নার সামগ্রী ও প্যাকেজিং করা হয়।

এতো গেল বলা কথা, কিন্তু মানুষ মাত্রই ভুল হয়। হতেই পারে আপনি হয়তো ভেজ পিৎজা অর্ডার করেছেন সেখানে আপনাকে ননভেজ পিৎজা দেওয়া হয়েছে ভুল করে। তখন স্বাভাবিকভাবেই রেগে গিয়ে দুচারটে কথা শুনিয়ে দেবেন দোকানের মালিককে বা ডেলিভারি বয়কে  পিৎজা পৌঁছে দিয়েছে। কিন্তু এবার ঘটেছে এক অবাক কান্ড।

ভুল পিৎজা ডেলিভারি করার জন্য পিৎজা কোম্পানির বিরুদ্ধে আদালতে মামলা করেছেন মহিলা। ঘটনাটি ঘটেছে উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদে (Gaziabad, Uttarpradesh)। সেখানে দীপালি নামের এক মহিলা ভেজ মাশরুম পিৎজা অর্ডার করেছিলেন, অথচ তাকে ভুলবশত ননভেজ মাংসের পিৎজা পাঠিয়েছে কোম্পানি। সারাজীবন নিরামিষ খেয়ে আসা মহিলা এই ঘটনায় ভিশন ক্ষুদ্ধ। কোম্পানির বিরুদ্ধে দিল্লি আদালতে ক্ষতিপূরণ চেয়ে মামলা করেছেন ওই মহিলা।

২০১৯ সালের ২১শে মার্চ দীপালি পিৎজা অর্ডার করেছিলেন। প্যাকেট খুলে কামড় বসতেই বুঝতে পারেন মাশরুমের বদলে মাংসের পিৎজা ডেলিভারি পেয়েছেন দীপালি। পিৎজায় মাংস আছে বুঝতে পেরেই কোম্পানিতে অভিযোগ করেই ওই মহিলা। এই ঘটনার ৫ দিনপর ২৬শে মার্চ কোপানির তরফ থেকে যোগাযোগ করা হয় দীপালির সাথে। নিজেদের ভুলের জন্য ক্ষমা চেয়ে বিনামূল্যে দীপালির গোটা পরিবারকে পিৎজা খাওয়ানোর অফার দে। কিন্তু এই ব্যাপারটিকে কোম্পানি হালকাভাবে নিলেও দীপালি কিন্তু মোটেও হালকাভাবে নেননি।

এর পরেই আদালতে মামলা করেন দীপালি। তাঁর মতে সারাজীবন ধরে নিরামিষ খেয়ে শুধুমাত্র কোম্পানির ভুলে তাকে মাংস খেতে হয়েছে যার জন্য তাকে আজীবন প্রায়শ্চিত্ত করতে হবে। এতে তার ধর্মীয় ভাবাবেগ, পারিবারিক পরম্পরা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে যা অপূরণীয় ক্ষতি। এছাড়াও প্রায়শ্চিত্ত করতে লক্ষ লক্ষ টাকা খরচ করতে হবে তাকে তাই পিৎজা কোপানির থেকে ১ কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দাবি করে মামলা করেছেন দীপালি।

যেমনটা জানা যাচ্ছে এই মামলায় এপর্যন্ত কোনো রায় ঘোষণা হয়নি। তবে ক্রেতা সুরক্ষা কমিশনের তরফ থেকে কোম্পানির তরফ থেকে এই ঘটনার জন্য লিখিত উত্তর চাওয়া হয়েছে। এই মামলার পরবর্তী ডেট আগামী ১৭ই মার্চ। সেদিনেই হয়তো জানা যাবে একটি ভুলের খেসারত কোটি টাকা ক্ষতিপূরণ দিতে হচ্ছে কিনা ওই পিৎজা কোম্পানিকে।


Like it? Share with your friends!

651
651 points