খবরবিনোদন

মুখে কুলুপ কেন, ধর্ষকরা কী কঙ্গনার ভাই? হাথরস কান্ড নিয়ে অভিনেত্রীকে কটাক্ষ সঞ্জয় রাউতের

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর থেকে রোজই কোনো না কোনো বিষয়ে সরব হয়ে খবরের শিরোনামে লাগাতার উঠে এসেছে কঙ্গনা রানাউতের নাম। গত কয়েক মাস ধরে এই নিয়েই উত্তাল গোটা দেশ। সেই ঘা শুকোতে না শুকোতেই প্রকাশ্যেহাথরস গণধর্ষণ কান্ড। ধর্ষকদের আইনি পথে শাস্তির দাবি উঠেছে সর্বত্র। যোগী সরকারের ভূমিকা নিয়ে ইতিমধ্যেই উঠেছে বড় প্রশ্ন। এই আবহেই বলি-ক্যুইন কঙ্গনার দিকেও উঠেছে আঙুল।

হাথরাস কান্ড নিয়ে চুপ কেন কঙ্গনা? এখন কেন উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারকে তুলোধনা করছেন না অভিনেত্রী? এমনই সব প্রশ্ন নিয়ে কঙ্গনাকে প্রশ্নবাণে বিদ্ধ করতে এবার মাঠে নামলেন শিবসেনার মুখপাত্র সঞ্জয় রাউত। এর আগে সুশান্তের মৃত্যু এবং পরবর্তীতে মুম্বই ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রি নিয়ে সোচ্চার হন কঙ্গনা৷ এমনকী, তিনি মহারাষ্ট্রকেও পাক অধিকৃত কাশ্মীরের সঙ্গে তুলনা করেন৷ তার মতে মহারাষ্ট্রে সুরক্ষা ব্যবস্থা ভেঙে পড়েছে এবং সেখানে কোনও স্বাধীনতা নেই কারও৷ তারপর থেকেই উদ্ভব ঠাকরের সরকারের সাথে কঙ্গনার সম্পর্ক ক্রমেই তিক্ত হতে থাকে।

এবার সেই পুরোনো রাগ থেকেই কঙ্গনাকে সুযোগ বুঝে এক হাত নিলেন সঞ্জয় রাউত। তাঁর বক্তব্য, “এখন চুপ কেন কঙ্গনা, উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকারের বিরুদ্ধে কেন কোনোও বিরূপ মন্তব্য করছেন না তিনি? তবে কি হাথরাস কান্ডের ধর্ষকরা অভিনেত্রীর ভাই?” প্রসঙ্গত, হাথরাস কান্ড নিয়ে আগেই মুখ খুলেছিলেন কঙ্গনা। তবে তিনি জানান, যোগী সরকারের প্রতি তার পূর্ণ বিশ্বাস রয়েছে। সেই আস্থা থেকেই যোগী সরকারের কাছে অভিযুক্তদের এনকাউন্টার করে হত্যার-ও দাবি জানান অভিনেত্রী।

তবে পরিবারের অনুমতি ছাড়া যে নির্যাতিতার দেহ পুড়িয়ে দেয় উত্তরপ্রদেশ পুলিশ, সেই নিয়ে কোনও বক্তব্য রাখেননি কঙ্গনা৷ যে কোনও অন্যায়ের বিরুদ্ধে নিজের সুর চড়ান অভিনেত্রী, তাহলে এই অপরাধের পর কেন তিনি চুপ, সেই প্রশ্নই করেছেন সঞ্জয় রাউত৷

 

Related Articles

Back to top button