গসিপবিনোদনসিনেমা

দক্ষিণী ছবির ঝড়ে বলিউডের ব্যবসা উজাড়! এই কারণেই ফ্লপ হচ্ছে একেরপর এক বলিউড ছবি

কোভিড মহামারীর আগে যদি একটু ফিরে যাওয়া যায়, তাহলে দেখা যাবে, বলিউডের (Bollywood) খান ত্রয়ী, অর্থাৎ শাহরুখ খান, সলমন খান এবং আমির খান আছে মানেই বক্স অফিসে শুরুটা ভালো করবে সেই ছবি। কিন্তু সাম্প্রতিক সময়ে দেখা যাচ্ছে, একাধিক বলি সুপারস্টারের ছবির দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিচ্ছেন দর্শকরা।

বলিউডের একাধিক সুপারস্টারের ছবির জায়গায় দর্শকরা বেছে নিচ্ছেন দক্ষিণের ছবিগুলি (South Indian Films)। সম্প্রতি বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে অক্ষয় কুমার অভিনীত ‘সম্রাট পৃথ্বীরাজ’। এর আগে রণবীর সিংয়ের দু’টি ছবি ‘৮৩’ এবং ‘জয়েশভাই জোরদার’এরও একই অবস্থা হয়েছিল। একদিকে বলিপাড়ার দুই সুপারস্টারের ছবি এই দশা, অপরদিকে কয়েকশো কোটি টাকার ব্যবসা করেছে সাউথের ‘পুষ্পা’, ‘কেজিএফ চ্যাপ্টার ২’। হঠাৎ কী এমন হল যে বলিউডের দিক থেকে মুখ ফিরিয়ে নিয়ে দক্ষিণ-মুখী হয়ে উঠছেন দর্শকরা?

Jayeshbhai Jordaar

সম্প্রতি এর কারণ জানার জন্য একটি গবেষণা করা হয়েছিল। সেই গবেষণার রিপোর্টে উঠে এসেছে একাধিক উত্তর। মনে করা হচ্ছে, এখন আর সুপারস্টারের জাদু নয়, বরং ভালো কাহিনী এবং সুন্দর অভিনয়ের মর্যাদা দিচ্ছেন দর্শকরা। আর সেই কারণেই দক্ষিণের একাধিক ছবিকে বেছে নিচ্ছেন তাঁরা। তবে বলিউডের সব ছবি যে বক্স অফিসে মুখ থুবড়ে পড়েছে তা নয়। সুপারস্টার ছাড়া একাধিক ছবি বক্স অফিসে দারুণ সফল হয়েছে।

চলতি বছর বক্স অফিসে সফল হওয়া বলিউড ছবির তালিকায় প্রথমেই নাম আসবে ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’এর। কোনও সুপারস্টার না থাকলেও, শুধুমাত্র ভালো কাহিনী এবং অভিনয়ের জেরে সফল হয়েছে এই ছবিটি। এছাড়াও এই তালিকায়  নাম রয়েছে আলিয়া ভাটের ‘গাঙ্গুবাঈ কাঠিয়াওয়াড়ি’ ছবিটির। সম্প্রতি বক্স অফিসে ২৫০ কোটির কাছাকাছি ব্যবসা করেছে কার্তিক আরিয়ানের ‘ভুল ভুলাইয়া ২’ ছবিটি। তাই ভালো কাহিনী এবং অভিনয়  থাকলেও দর্শকরা  যে বলিউডের ছবিকে বয়কট করছে এমনটা কিন্তু নয়।

Bhool Bhulaiya 2

তবে বক্স অফিসে বলিউডের ছবিগুলি সফল না হওয়ায় সবচেয়ে সমস্যায় পড়েছে মাল্টিপ্লেক্সগুলি। কারণ হিন্দি ছবিগুলির আয়ের একটা অনেকটা  বড় অংশ মাল্টিপ্লেক্সগুলির পকেটে যায়। দক্ষিণী ছবির ক্ষেত্রে অত বেশি আয় করতে পারে না তারা।

প্রত্যেকটি ইন্ডাস্ট্রি গত বছর কত আয় করেছে সেই হিসাব যদি বের করা হয়, তাহলে দেখা যাবে, তেলেগু ইন্ডাস্ট্রি আয় করেছে ১১.৩ বিলিয়ন, অপরদিকে বলিউড ঘরে তুলতে পেরেছে মাত্র ৬.৭ বিলিয়ন টাকা। হিন্দি ইন্ডাস্ট্রি চাইবে এই বছর পরিসংখ্যানে কিছুটা বদল আসুক। এবার দেখার, বছরের প্রথম অংশে পাওয়া ধাক্কা কাটিয়ে দ্বিতীয় অংশে বলিউড ঘুরে দাঁড়াতে পারে কিনা।

Related Articles

Back to top button