ছবিবিনোদন

‘শ্রীময়ী’র বৌমা অঙ্কিতাকে মনে আছে? অভিনয় ছেড়ে এখন কোথায় অভিনেত্রী, রইল খুঁটিনাটি

স্টার জলসার ‘শ্রীময়ী’ (Sreemoyee) ধারাবাহিকের টিআরপি ছিল আকাশছোঁয়া। ইন্দ্রাণী হালদার, সপ্তর্ষি মৌলিক অভিনীত এই ধারাবাহিকটি ছিল দর্শকদের বিশেষ পছন্দের। এই ‘শ্রীময়ী’তেই নায়িকা অর্থাৎ ইন্দ্রাণী হালদারের ছেলের বৌ অঙ্কিতার চরিত্রটি দর্শকদের বেশ পছন্দের ছিল। ইতিবাচক এবং নেতিবাচক, দুই ধরণের শেডসই ছিল এই অঙ্কিতা চরিত্রটির মধ্যে।

প্রথমদিকে অঙ্কিতার চরিত্রটি স্বার্থপর হিসেবে দেখানো হলেও, পরে অবশ্য সকল মনোমালিন্য ভুলে শাশুড়ির প্রয়োজনে তাঁর পাশে দাঁড়িয়েছিলেন। এমনকি এই কারণে নিজের স্বামী জাম্বোর বিরুদ্ধেও গিয়েছিলেন তিনি। ‘শ্রীময়ী’র বড় ছেলের বৌয়ের চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের মনে বিশেষ স্থান করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী দেবলীনা মুখার্জি (Debolina Mukherjee)।

Debolina Mukherjee

দেবলীনার অবশ্য আরও একটি পরিচয় রয়েছে। তিনি বাংলা টেলিভিশনের নামী লেখিকা লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের বৌমা। ‘শ্রীময়ী’র আগেও বেশ কিছু ধারাবাহিকে অভিনয় করেছিলেন তিনি। পার্শ্বচরিত্রেই দেখা গিয়েছিল তাঁকে। তবুও দর্শকদের বেশ পছন্দ ছিল দেবলীনা অভিনীত চরিত্রগুলি।

‘শ্রীময়ী’র আগে দেবলীনাকে ‘জিওন কাঠি’, ‘ফাগুন বৌ’য়েও দেখা গিয়েছিল। তবে ‘শ্রীময়ী’র পর থেকে আর কোনও ধারাবাহিকে দেখা যায়নি তাঁকে। এরপর থেকেই দর্শকদের মনে প্রশ্ন জেগেছিল, তাহলে কি অভিনয় জগত থেকে সন্ন্যাস নিয়ে নিলেন দেবলীনা?

Debolina Mukherjee

উত্তরটা হল হ্যাঁ। তবে পাকাপাকিভাবে অভিনয় দুনিয়াকে বিদায় জানাননি লীনা গঙ্গোপাধ্যায়ের বৌমা। বরং সাময়িক একটু বিরতি নিয়েছেন তিনি। এই মুহূর্তে দেবলীনা প্রোডাকশন হাউসের কাজ নিয়ে বেশ ব্যস্ত রয়েছেন। সেই কারণে বেশিরভাগ সময়টাই তাঁকে মুম্বইয়ে গিয়ে থাকতে হচ্ছে। আর সেই জন্যই তাঁর পক্ষে প্রোডাকশন হাউসের কাজ সামলে আর বাংলা ধারাবাহিকে কাজ করা সম্ভব হচ্ছে না।

Debolina Mukherjee

এক সাক্ষাৎকারে দেবলীনা নিজেই জানিয়েছিলেন, তাঁর পক্ষে অভিনয় এবং প্রোডাকশন হাউসের কাজ, এই দুই একসঙ্গে সামলানো বেশ কঠিন হয়ে গিয়েছে। তাই সেই কারণে আপাতত তিনি প্রোডাকশন হাউসের কাজেই মনোনিবেশ করেছেন। যদিও দেবলীনা জানিয়েছেন, ভবিষ্যতে যদি সময়, সুযোগ পান তাহলে নিশ্চয়ই আবার অভিনয় দুনিয়ায় ফিরতে চাইবেন তিনি। আপাতত দর্শকদের তাঁদের প্রিয় অভিনেত্রীর কামব্যাকের জন্য খানিকটা সময় অপেক্ষা করতে হবে।

Related Articles

Back to top button