গসিপছবিবিনোদনসিরিয়াল

‘রানী রাসমণি’র পর পর্দা থেকে উধাও রাজচন্দ্র! বাংলা সিরিয়াল কেন ছাড়লেন? রইল অভিনেতার খোঁজ

বাংলা ধারাবাহিকের ইতিহাসের অন্যতম জনপ্রিয় ধারাবাহিক হল ‘করুণাময়ী রানী রাসমণি’ (Karunamoyee Rani Rashmoni)। এই ধারাবাহিক শেষ হয়ে যাওয়ার পরেও কিন্তু দর্শকদের মনে রয়ে  গিয়েছেন কলাকুশলীরা। এখনও যেমন দর্শকরা মাঝেমধ্যেই পর্দার রাজচন্দ্রের কথা মনে করেন। কারণ সেই ধারাবাহিক থেকে বিদায় নেওয়ার পর রাজচন্দ্র ওরফে গাজী আবদুন নুরকে (Gazi Abdun Noor) আর কোনও ধারাবাহিকে দেখতেই পারেননি দর্শকরা।

‘করুণাময়ী রানী রাসমণি’ শেষ হয়েছে বেশ অনেকদিন হয়ে গিয়েছে। মাঝে এতগুলো দিন পেরিয়ে গেলেও কিন্তু গাজী আবদুন নুরকে আর পর্দায় দেখা যায়নি। এখন কোথায় আছেন অভিনেতা? কী কাজ করছেন তিনি? আজকের প্রতিবেদনে সেই খবরই দেওয়া হল।

Gazi Abdun Noor

গাজী আবদুন নুর আসলে ওপার বাংলা অর্থাৎ বাংলাদেশ থেকে এদেশে এসেছিলেন। পড়াশোনা করেছিলেন রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয় থেকে। এরপর অভিনয় দুনিয়ায় পা রাখেন। রাজচন্দ্রের ভূমিকায় অভিনয় করে আদায় করে নেন দর্শকদের প্রশংসা। তবে ২০১৯ সালে অভিনেতাকে ভারত ছেড়ে আবার বাংলাদেশে ফিরে যেতে হয়।

বাংলাদেশে ফিরে গিয়েই একের পর এক কাজের সুযোগ পেতে থাকেন গাজী। এখন ঢালিউডের অন্যতম নামী শিল্পীদের মধ্যে একজন তিনি। বাংলাদেশে ফিরে বড়পর্দাতেও কাজ করে ফেলেছেন তিনি। এর মধ্যেই ৫টি পূর্ণ দৈর্ঘ্যের সিনেমায় কাজ করেচ ফেলেছেন তিনি। শীঘ্রই তাঁর আরও ২টি সিনেমা মুক্তি পেতে চলেছে বলে একটি নামী সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন গাজী।

Gazi Abdun Noor

পর্দার রাজচন্দ্র বলেন, ‘আমি দেশে ফিরে আসার পরে কাজ শুরু হয়ে গেল। আর তারপরই করোনা হল, দেড় বছর আমি সেভাবে কাজ করতে পারিনি। তবে এখন আবার বাংলাদেশের সিনেমার অবস্থা বেশ ভালো হয়েছে’। আর ঠিক সেই কারণেই নিজেকে একেবারে কাজের মধ্যে ডুবিয়ে দিয়েছেন তিনি। এমনকি তাঁর ছবিগুলিও বক্স অফিসে ভালোই ব্যবসা করছে। গাজী এও জানিয়েছেন, বাংলা চ্যানেলগুলির থেকেও তিনি এখনও ডাক পাচ্ছেন। কিংবা পারিবারিক কারণে পর্দার রাজচন্দ্র ভারতে আসতে পারছেন না।

Gazi Abdun Noor

তবে কলকাতা অভিনেতার ভালোবাসার জায়গা। এখানেই পড়াশোনা করেছেন, থিয়েটার করেছেন, ধারাবাহিকেও কাজ করেছেন। ভবিষ্যতেও তাঁকে এখানেই আসতেই হবে। কারণ এখনও বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রেজাল্ট তোলা হয়নি গাজীর। তাই কিছুদিনের জন্য তিনি কলকাতায় ঘুরতে আসবেন। সেই সঙ্গে এও জানিয়েছেন যে, এখানে এসে ভালো কোনও কাজের সুযোগ পেলে তিনি আনন্দের সঙ্গে করবেন।

Related Articles

Back to top button