বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

শত্রুতা করলেও উর্মির চেষ্টায় প্রাণ বাঁচল রিনির! বৌকে কষ্টে দেখে বুকে টেনে নিল সাত্যকি

সিরিয়াল মানেই দর্শকদের অত্যন্ত পছন্দের একটি বিষয়। দর্শকমহলে বিপুল জনপ্রিয় এমনই একটি সিরিয়াল হল জি বাংলার ‘এই পথ যদি না শেষ হয়’ (Ei Poth Jodi Na Sesh Hoi)। মূলত গল্পের নতুনত্বের জন্যই মাত্র অল্প কয়েক দিনের মধ্যেই দর্শকদের মধ্যে পাকাপাকিভাবে জায়গা করে নিয়েছে এই সিরিয়াল। আর সেই কারণেই টিআরপির দৌড়েও প্রতিনিয়ত এগিয়ে চলেছে ঊর্মি আর সাত্যকি বাবুর লাভ স্টোরি।

একেবারে বাঙালি মধ্যবিত্ত পরিবারের প্রেক্ষাপটে তৈরি এই সিরিয়ালে ঊর্মির চরিত্রে অভিনয় করছেন অভিনেত্রী অন্বেষা হাজরা (Anwesha Hazra) এবং সাত্যকির চরিত্রে অভিনয় করছেন ঋত্বিক মুখার্জী (Writwik Mukherjee)। তবে নায়ক নায়িকা ছাড়াও সিরিয়ালে দর্শকদের পছন্দের একাধিক চরিত্র রয়েছেন। তাদের মধ্যে অন্যতম হলেন রিনি চরিত্রের অভিনেত্রী মিশমি দাস (Mishmee Das)।


উল্লেখ্য সিরিয়ালের প্লট অনুযায়ী টুবাইদা অর্থাৎ উর্মির সাত্যকি বাবুকে ভালোবাসে রিনি। আর সেই কারণেই উর্মির সাথে বরাবরই রেষারেষি লেগেই থাকে রিনির। আর এই কারণেই উর্মিকে সে আড়ালে ‘পেত্নী’ বলে ডাকে। সম্প্রতি সিরিয়ালে এসেছে নতুন ট্যুইস্ট। সহজ সরল উর্মিলা রাগের মাথায় না বুঝেই রিনিকে সকলের সামনে অপমান করেছে, সেইসাথে সাত্যকির বাড়ির লোকজনও যা খুশি বলে বাড়ি থেকে দুর দুর করে তাড়িয়ে দিয়েছেন।


মা মরা রিনি পৃথিবীতে বড়ো একা। তার বাবা আর সৎ মায়ের কাছে ছোটো বেলা থেকে ভালোবাসা না পেয়ে বড়ো হয়েছে সে। তাই উর্মির সাথে এত হিংসা তার। তাই রিনি যাদের এতদিন আপন ভেবেছিল তারা দুরে ঠেলে দেওয়ায় সে মনের দুঃখে ফিনাইল খেয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করে সে। কিন্তু ঠিক সময়ে সেখানে উর্মি পৌঁছে যায়।

 

এরপরেই সবাই মিলে তাকে তড়িঘড়ি হাসপাতালে ভর্তি করে। উর্মির চেষ্টা প্রাণে বেঁচে যায় রিনি। অন্যদিকে রিনি হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার থেকে কেঁদে চলেছে উর্মি, ঠাকুরকে ডাকছে, পাশাপাশি সারারাত জেগে অপেক্ষা করছে রিনির জ্ঞান ফেরার। উর্মি কে এই অবস্থায় দেখে তার ওপর আর রাগ করে থাকতে পারে না সাত্যকিও। হাসপাতালের মধ্যেই নিজের অবুঝ বৌটাকে বুকে টেনে নেয় সাত্যকি। চ্যানেল কর্তৃপক্ষের শেয়ার করা এই ভিডিও ভাইরাল সোশ্যাল মিডিয়ায়।

 

Related Articles

Back to top button