গসিপবিনোদনসিনেমাসিরিয়াল

লুকিয়ে সিগারেট খাওয়া থেকে এক্কাদোক্কা খেলা সবকিছুর সাক্ষী মা! অকপট টেলি অভিনেত্রী মৈত্রেয়ী

বাংলা টেলিভিশন জগতের অন্যতম প্রতিভাবান অভিনেত্রী হলেন মৈত্রেয়ী মিত্র (Maitryee Mitra)। নিজের অভিনয় দক্ষতার জেরে একসময় সিরিয়ালের পাশাপাশি চুটিয়ে কাজ করেছেন সিনেমাতেও। ছোটো বেলা থেকেই পড়াশোনায় তুখোড় এই অভিনেত্রী নিজে এক সন্তানের মা হলেও, আজও মা অন্ত প্রাণ তিনি। আদতে উত্তর কলকাতার বাসিন্দা এই অভিনেত্রী ছোটো থেকেই বেড়ে উঠেছেন যৌথ পরিবারে।

এপ্রসঙ্গে একবার এক সাক্ষাৎকারে এপ্রসঙ্গে অভিনেত্রী জানিয়েছিলেন তার বাড়ির বেশীরভাগ সদস্যরাই তুলনামূলকভাবে একটু সেকেলে চিন্তা ভাবনার অধিকারী।এমনকি অভিনেত্রী নিজেও সেই একই ধাঁচের। কিন্তু যখনই তিনি জীবনে কোনো সিদ্ধান্ত নিয়েছেন বরাবরই পাশে পেয়েছেন নিজের বাবা মাকে।

তাই যৌথ পরিবারের মধ্যে থেকে কারও কোনোরকম সাপোর্ট না পেলেও বরাবরই মা বাবাকে পাশে পেয়েছেন তিনি। তাদের জন্যই অভিনেত্রী হতে পেরেছেন বলে দাবী করেছিলেন মৈত্রেয়ী। অভিনেত্রীর কথায় তার মা ছিলেন তার এক্কাদোক্কা খেলার সঙ্গী। এমনকি পুরনো সেই সাক্ষাৎকারের একটি অংশে তিনি এও জানান একবার তাকে তার মা নিজে সিগারেটের প্যাকেট কিনে এনে দিয়ে বলেছিলেন সিগারেট খাওয়া প্রাকটিস করতে।

কারণ তার মনে হয়েছিল কখনও কোনো চরিত্রে অভিনয়ের প্রয়োজনে তার মেয়েকে সিগারেট খেতে হতে পারে। তাই তিনি আগে থেকেই মৈত্রেয়ীকে সিগারেট খাওয়া শিখে নিতে বলেছিলেন। অথচ মাত্র এই মাকে লুকিয়েই নাকি ছোটো বেলায় একবার দরজা বন্ধ করে সিগারেট খেতে গিয়ে নাকের জলে চোখের জলে করে ফেলেছিলেন অভিনেত্রী। তবে শুধু সিগারেট খাওয়া নয় মাকে লুকিয়ে নাকি জীবনে অনেক কাজ করেছেন মৈত্রেয়ী, আর তাতে তাকে ফুল সাপোর্ট দিতেন তার বাবা।

তবে ওই সাক্ষাৎকার থেকে জানা যায় একসময় তার কারণে তার মা ভিতর ভিতর অনেক কষ্ট পেয়েছিলেন সেই নিয়ে আফসোস করেন অভিনেত্রী। বর্তমানে বর্তমানে মৈত্রেয়ী ‘গ্রামের রানী বীণাপানি’ ধারাবাহিকে বীণাপাণির পিসি শ্বাশুড়ির চরিত্রে এবং ‘উমা’ সিরিয়ালে শ্বাশুড়ির চরিত্রে অভিনয় করছেন । সম্প্রতি তিনি তার একমাত্র ছেলে ঋতভাষকে (Ritovash) নিয়ে হাজির হয়েছিলেন রচনা বন্দোপাধ্যায়ের (Rachna Banerjee) দিদি নম্বর ওয়ানের (Didi no one) মঞ্চে।

Related Articles

Back to top button