বিনোদনসিনেমা

পবিত্র ‘দৈব কোলা’র শুটিংয়ের জন্য ছেড়েছেন আমিষ! ‘কান্তারা’ অজানা কাহিনী জানালেন পর্দার শিবা 

কথায় আছে ‘কারো পৌষ মাস, তো কারো সর্বনাশ’! ইদানিংএমনই অবস্থায় এসে দাঁড়িয়েছে বলিউড (Bollywood) আর সাউথের ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির (South Indian Film Industry)। এখন বলিউডের যে সিনেমাযই রিলিজ করছে তা মুখ থুবড়ে পড়ছে বক্স অফিসে। অন্যদিকে সাউথের যে সিনেমাযই মুক্তি পাচ্ছে তা রীতিমতো বক্স অফিস কাঁপিয়ে ব্যবসা করছে চুটিয়ে।

যার সাম্প্রতিকতম উদাহরণ হল অভিনেতা পরিচালক ঋষভ শেট্টি (Rishav Shetty)-র সাড়া জাগানো সিনেমা কান্তারা (Kantara)। গত মাসে ৩০ সেপ্টেম্বর প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাওয়ার পর থেকে এখনও পর্যন্ত বক্স অফিস  কাঁপিয়ে যাচ্ছে এই সিনেমা। মাত্র ১৮ কোটি টাকা বাজেটের এই সিনেমা মুক্তির পর থেকে এই পর্যন্ত প্রায় ৩২৪ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছে।

Kantara Highest Rated South Flim in IMDb beats KGF 2

যা এই সিনেমাটিকে ২০২২ সালের সবচেয়ে আয় করা সিনেমা (কেজিএফ চ্যাপ্টার ২,RRR,ব্রহ্মাস্ত্র)-গুলির মধ্যে সপ্তম স্থানে এনে দিয়েছে। প্রসঙ্গত ইতিমধ্যেই সিনেমাটি যারা দেখে ফেলেছেন তারা  সকলেই জানেন এই সিনেমার একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে পবিত্র দৈব কোলা বা বুটা কোলার মতো নাচের দৃশ্য (Daiva Kola Dance)। যা শুটিং করতে গিয়ে বেশ বেগ পেতে হয়েছিল খোদ অভিনেতা পরিচালক ঋষভ শেট্টি কে।

আসলে সিনেমার মতোই বাস্তব জীবনেও কর্ণাটকের একাংশে এই নাচকে অত্যন্ত পবিত্র মনে করা হয়। তাই এতবড় সেলিব্রেটি হয়েও মনের মধ্যে থাকা নিষ্ঠা থেকেই পর্দায় নাচের দৃশ্য একেবারে নিঁখুতভাবে ফুটিয়ে তোলার জন্য শুটিং করার ২০ থেকে ৩০ দিন আগে থেকেই আমিষ খাবার খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছিলেন ঋষভ।

Take a look at the Kantara’s impressive box office collection

শুধু তাই নয় এই দৃশ্য শুটিং করতে গিয়ে বেশ কষ্টও করতে হয়েছিল পর্দার শিবাকে। জানা যায়  সিনেমায় দৈব কোলা নাচের জন্য ঋষভ যে পোশাক পরেছিলেন তার ওজনই ছিল প্রায় ৫০ থেকে ৬০ কিলোগ্রাম ছিল। শুটিংয়ের সময় শুধুমাত্র ডাবের জল ছাড়া কিচ্ছু খেতে পারতেন তিনি। একেক সময় অভিনেতার মনে হত তার শরীর ছেড়ে দিচ্ছে কিন্তু অসম্ভব মনের জোর দিয়েই সেসময়  শুটিং চালিয়ে গিয়েছেন ঋষভ।

শুধু তাই নয় সিনেমায় একটি দৃশ্য ছিল যেখানে দেখা গিয়েছিল পর্দার শিবার গায়ে জ্বলন্ত মশাল দিয়ে আঘাত করা হয়েছিল। অভিনেতা সম্প্রতি জানিয়েছেন ওই দৃশ্যটিতে সত্যিই তাঁকে জ্বলন্ত মশাল দিয়ে আঘাত করা হয়েছিল। যার ফলে তাঁর পিঠে পোড়ার দাগ হয়ে রয়েছে।

Related Articles

Back to top button