বিনোদনসিরিয়াল

অভিনেত্রী নয় স্বপ্ন ছিল চ্যাটার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট হওয়ার! রইল খলনায়িকা রিনির অজানা কাহিনী  

বাংলা টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় একজন অভিনেত্রী হলেন মিশমি দাস (Mishmee Das)। বর্তমানে অভিনেত্রীকে দেখা যাচ্ছে ‘আমাদের এই পথ যদি না শেষ হয়’ (Amader Ei poth jodi na sesh hoi) ধারাবাহিকে রিনির চরিত্রে। এই মুহূর্তে বাংলা টেলিভিশন জগতের জনপ্রিয় খলনায়িকাদের মধ্যে অত্যন্ত জনপ্রিয় মিশমি।

এখনকার দিনে বেশিরভাগ অভিনেতা অভিনেত্রীদের মধ্যে খলনায়িকা চরিত্রে অভিনয় করার প্রবণতায় বেশি দেখা যাচ্ছে। কারণ একটাই, আসলে এই ধরনের ধূসর চরিত্রে অভিনয় করার ক্ষেত্রে সুযোগটা অনেক বেশি থাকে। আর একজন খলনায়ক বা নায়িকার ক্ষেত্রে দর্শকদের থেকে পাওয়া গালাগালি টাই হলো আসলে তাদের অভিনয়ের প্রাপ্তি।

ওই রাগ কিংবা গালাগালির মধ্যেই আসলে লুকিয়ে থাকে দর্শকদের ভালোবাসা। ইতিপূর্বে এক সাক্ষাৎকারে এমনটাই জানিয়েছিলেন অভিনেত্রী মিশমি দাসও। যদিও শুনতে অবাক লাগবে এখন তার অভিনয় জগতে ব্যাপক নাম ডাক হলেও একটা সময় ছিল যখন তিনি নিজেই অভিনেত্রী হতে চাননি।  বরং তার স্বপ্ন ছিল চার্টার্ড অ্যাকাউন্ট্যান্ট হওয়ার।

তবে হঠাৎ করে গেল জীবনের চাকা। যার ফলে আজ তিনি টেলিভিশন জগতের একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী। জানা যায় কলেজে পড়ার সময় ম্যাগাজিনের মডেলিং শুরু করেছিলেন মিশমি। সেই থেকেই ২০১৪ সালে জি বাংলার ‘রাজযোটক’ সিরিয়ালের হাত ধরে অভিনয়ে প্রথম ডেবিউ করেন মিশুমি। সেইসময় এই সিরিয়ালে টেলি অভিনেত্রী অনামিকা চক্রবর্তীর পাশাপাশি দর্শকমহলে বেশ প্রশংসিত হয়েছিল মিশমির অভিনয়।

পরবর্তীতে ‘ফাগুন বউ’, ‘জিয়নকাঠি’, ‘গাছকৌটো’, ‘জীবন জ্যোতি’, ‘প্রেমের ফাঁদে’, ‘সীমানা পেরিয়ে’-র  মতো একাধিক জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয় করে মন জয় করে নিয়েছেন দর্শকদের। তবে শুধু সিরিয়ালই নয় তিনি অভিনয় করেছেন সিনেমাতেও। জনপ্রিয় বাংলা সিনেমা ‘বুড়ো সাধু’-তে ঋত্বিক চক্রবর্তীর প্রেমিকার চরিত্রে অভিনয় করেছিলেন মিশমি।এছাড়াও অভিনয় করে ফেলেছেন বেশ কিছু জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজেও।তবে শুধু বাংলাতে নয় বাংলার গণ্ডি পেরিয়ে মিশমি ইতিমধ্যে অভিনয় করেছেন হিন্দি সিরিয়ালেও।

Related Articles

Back to top button