বিনোদনসিনেমাসিরিয়াল

‘খড়কুটো কতদিন চলবে আমি জানি না’, বড় পর্দার দৌড় শুরু হতেই কেন এমন বললেন তৃণা! শুরু জল্পনা

‘অভিনয় জগতে সাফল্যের সিঁড়িতে আরও কয়েক ধাপ এগিয়ে গেলেন বাংলা টেলিভিশনের জনপ্রিয় অভিনেত্রী তৃণা সাহা (Trina Daha)। এমনিতে বর্তমানে ছোটপর্দার জনপ্রিয় সিরিয়াল খড়কুটোর (Khorkuto) গুনগুন চরিত্রে অভিনয়ের সুবাদে দর্শকমহলে দারুন ফ্যান ফলোয়িং রয়েছে অভিনেত্রীর। সদ্য এই সিরিয়ালের অর্থাৎ পর্দার ড্যাডি অভিষেক চট্টোপাধ্যায়ের (Abhishek Chatterjee) অকাল মৃত্যুতে অসম্ভব ভেঙে পড়েছিলেন অভিনেত্রী।

তবে শোকের আবহেই অভিনেত্রীর পেশাদার জীবনে একের পর এক ঘটে চলেছে নিত্যনতুন ঘটনা। সেদিক দিয়ে দেখতে গেলে নিজের অভিনয় জীবনে একের পর এক মাইলস্টোন তৈরি করে চলেছেন অভিনেত্রী। ইতিমধ্যেই টলিপাড়ার দুই খ্যাতনামা পরিচালক অরিন্দম শীল (Arindam Sheel) এবং সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের (Srijit Mukherjee) সাথে সিনেমা করার প্রস্তাব পেয়েছেন অভিনেত্রী।

তাই এখন ইন্ডাস্ট্রির প্রথম সারির দুই পরিচালকের ছবি পর্দার ‘গুনগুন’ অর্থাৎ তৃণার ঝুলিতে। জানা যাচ্ছে খুব তাড়াতাড়ি অরিন্দম শীলের ‘ইস্কাবনের বিবি’র কাজ শুরু করবেন নায়িকা এছাড়াও হাতে রয়েছে জাতীয় পুরস্কার প্রাপ্ত পরিচালক সৃজিত মুখোপাধ্যায়ের ‘লহ গৌরাঙ্গের নাম রে’ সিনেমার কাজ। এরই মাঝে হোলির দিন মুক্তি প্রাপ্ত নিজের ডেবিউ মিউজিক ভিডিয়োর সাফল্যও চুটিয়ে এনজয় করছেন অভিনেত্রী। এরই মধ্যে এই  গান পার করেছে ১০ লক্ষ ভিউয়ারস সংখ্যা।

তাই সব মিলিয়ে তৃণা এখন ইন্ডাস্ট্রির ব্যাস্ততম অভিনেত্রী। তাই এই তুমুল ব্যস্ততার মধ্যেই অভিনেত্রী কীভাবে সামলাচ্ছেন খড়কুটোর মতো জনপ্রিয় মেগা সিরিয়ালের কাজ। এপ্রসঙ্গে সংবাদমাধ্যমে অভিনেত্রী বলেছেন ‘আমি কিছু ছাড়ছি না, আমি সব জায়গায় থাকতে চাইব, সবটা অ্যাডজাস্ট করব। খড়কুটো কতদিন চলবে তা আমি জানি না, খড়কুটোর চলাটা নির্ভর করছে চ্যানেল আর নির্মাতাদের হাতে- তবে আমি সব জায়গাতে আছি। এইটুকুই বলব ফ্যানেরা যতদিন চাইবে আমাকে খড়কুটোতে দেখতে পাবে আর প্রযোজক-পরিচালকরা সুযোগ দিলে আমি সিনেমাও করব, ওয়েবেও থাকব, মিউজিক ভিডিয়োতেও থাকব। আমি শুধু ভালো কাজ করতে চাই, ৩০ দিন কাজ করতে চাই।’

অভিনেত্রীর এই মন্তব্য উস্কে দিয়েছে নতুন জল্পনা। প্রসঙ্গত এখন সিরিয়াল মানেই টিআরপি। তাই সিরিয়াল চালাতে গেলে টিআরপি ই শেষ কথা। আর এক সময়কার চ্যানেলের টপ সিরিয়াল খড়কুটো টিআরপি তে ধাক্কা খেয়ে জায়গা পেয়েছে দুপুরের স্লটে। এছাড়া নতুন সিরিয়াল কে জায়গা দিতে বন্ধ হচ্ছে একাধিক সিরিয়াল। তাহলে কি এবার তৃণাও খড়কুটো শেষ হবার ইঙ্গিত দিলেন! উত্তর টা যদিও সময়ই দেবে। তবে এদিন সিরিয়ালের টিআরপি প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেছেন ‘আমি যখন কাজ শুরু করেছিলাম তখন টিআরপি নিয়ে খুব চাপ নিতাম। কিন্তু আজ খড়কুটোর টিআরপি যাই হোক না কেন গুনগুনকে দর্শক ভালোবাসে- আর সেটাই আমার পাওনা। টিআরপি আমার জন্য ম্যাটার করে না। সময়ের সঙ্গে এটা আমি শিখেছি।

 

Related Articles

Back to top button