খবরগসিপবিনোদনসিনেমাসিরিয়াল

অবিবাহিত হলেও বিজয়ার সিঁদুর খেলায় সিঁথিতে সিঁদুর, নেটপাড়ায় কটাক্ষের মুখে টলি নায়িকারা

ভূলোক থেকে বিদায় নিয়েছেন দশভুজা দূর্গা মা। আর মা দুর্গার চলে যাবার দিন অৰ্থাৎ বিজয়া দশমীতে সিঁদুর খেলার (sidur khela) রীতি রয়েছে বাঙালিদের। বিবাহিত ও অবিবাহিত মহিলারা এই সিঁদুর খেলায় অংশ গ্রহণ করে মেতে ওঠে সিঁদুর নিয়ে। বিবাহিতরা একেঅপরের সিঁথিতে ও গালে সিঁদুর মাখিয়ে দেন, তবে অবিবাহিতদের সিঁথিতে সিঁদুর দেওয়া হয়না। আর পাঁচটা সাধারণ বাঙালির মত এবছর সিঁদুর খেলায় সামিল হয়েছিলেন একাধিক টলি অভিনেত্রীরাও (tollywood actress)।

রাজডাঙ্গা নবউদয় সংঘ এরপক্ষ থেকেএকাধিক টলিউড অভিনেত্রীদের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছিল। সেখানে হাজির হয়েছিলেন রাইমা সেন, সোহিনী সরকার ও তনুশ্রী চক্রবর্তীর মত অভিনেত্রীরা। সকলে মিলে সিঁদুর খেলায় মেতে উঠেছিলেন। কিন্তু মুশকিল হল সেখানেই! হিন্দু রীতি অনুযায়ী বিবাহিত মহিলারাই মাকে বরণ করতে পারে ও সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে সিঁদুর খেলতে পারে। অথচ অবিবাহিত হলেও সোহিনী, রাইমা ও তনুশ্রীর সিদ্ধিতে সিঁদুর দেখা গিয়েছে।

সাধারণত সেলেব্রিটিদের দেখার জন্য এমনিতেই মুকিয়ে থাকেন সাধারণ জনতা। পাড়ার পুজোয় সেলেব্রিটিদের দেখলে মন খুশি হয়ে যায়। আর সেলেব্রিটিদের সাথে সিঁদুর খেলতে পারলে সেই মুহূর্ত ক্যামেরাবন্দি করে স্মরণীয় করে রাখতে চায় সকলেই। তেমনি সেলেব্রিটিদের সিঁদুর খেলার ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হতেই ভাইরাল হয়ে পড়েছে। তবে ছবি ভাইরাল হতেই শুরু হয়েছে কটাক্ষ থেকে নীতিবোধ নিয়ে প্রশ্ন!

বিবাহিত না হয়েও কেন সিঁথিতে সিঁদুর দিয়ে হয়েছে সিঁদুর খেলা! এই নিয়েই তৈরী হয়েছে বিতর্কের। সোশ্যাল মিডিয়াতে ভাইরাল হইয়া ছবির কমেন্ট বক্সেই চলছে তুমুল কটাক্ষ। একাধিক নেটিজেনরা নিজেদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন কমেন্ট বক্সে। কারোর মতে, সিঁদুর খেলাটা ছেলে খেলা নয়! তো কেউ বলেছেন নিয়মের দিকেও একটু নজর দিন। আবার কারোর মতে এতদিন জানতাম বিবাহিতরা সিঁথিতে সিঁদুর পরে, কিন্তু এখন দেখছি সেটাও ফ্যাশন হয়ে দাঁড়িয়েছে।

প্রসঙ্গত, সোশ্যাল মিডিয়াতে ট্রোলিং নতুন কিছু নয়। বিশেষত সেলেব্রিটিদের ক্ষেত্রে এটা একটু বেশিই হয়ে থাকে। তবে পুজোর নিয়ম না মেনে সিঁদুর খেলে নীতিপুলিশের কাছে রীতিমত প্রশ্নের মুখে পড়েছেন টলি অভিনেত্রীরা। যদিও কটাক্ষের কোনো জবাব দেননি কেউই। তবে সমালোচনা তাতে বিন্দুমাত্র কমার নাম নেই!

Related Articles

Back to top button