গসিপবিনোদনসিনেমা

শুধুই নয় লক্ষ্মী লাভ, বিজ্ঞাপনের অভিনয়েও রয়েছে বিশাল ঝুঁকি! এবিষয়ে একমত টলি তারকারা

দিনে দিনে বিজ্ঞাপন জগতে বলিউড স্টারদের (Bollywood Star’s) পাশাপাশি ব্র্যান্ডের মুখ হিসেবে চাহিদা বাড়ছে টলিউডের (Tollywood) জনপ্রিয় তারকাদেরও। বিজ্ঞাপনে (Advertisement) তাদের মুখ দেখিয়েই বরং বলা ভালো তাঁদের স্টারডমকে কাজে লাগিয়েই বাজারে নিয়ে আসা হয় বিজ্ঞাপন। এতে সেলিব্রেটিদের প্রতি থাকা আমজনতার বিশ্বাস থেকেই ওই নির্দিষ্ট ব্রান্ডের প্রতি আস্থা বেড়ে যায় সাধারণ মানুষের। এতেই ওজন বেড়ে যায় বিজ্ঞাপনের, তবে বিজ্ঞাপন জগতের সঙ্গে তারকাদের সম্পর্ক একটু জটিল। নানান নামীদামী ব্র্যান্ডের বিজ্ঞাপন করার সাথে সাথে পরিচিত মুখ হয়ে ওঠেন তাঁরা। তবে এই ধরনের বিজ্ঞাপনে নিজেদের মুখ দেখানোর ফলে তারকাদের যেমন লক্ষ্মী লাভ হয় তেমনি এর সাথে জড়িয়ে থাকে বেশ কিছু দায়িত্ব এবং ঝুঁকিও।

ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে প্রায়ই শিরোনামে আসেন তারকারা। তাই যদি কখনও তারকাদের ব্যক্তিগত জীবনে কোনো বিষয় নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয় তাহলে তার প্রভাব এসে পড়ে ব্র্যান্ডের ওপর। তাই ব্রান্ডের মুখ হয়ে বিজ্ঞাপন করার বিষয়ে তারকাদের মধ্যেও মতভেদ দেখা যায়। একাংশের মতে তারকারা তাঁদের জনপ্রিয়তাকে কাজে লাগিয়ে ব্র্যান্ডের হয়ে প্রচার করেন টাকার জন্য। আবার অন্য এক দল মনে করেন চোখ বুজে শুধুই টাকার জন্য যে কোনও ব্র্যান্ড বেছে নেওয়া তারকাদের উচিত নয়। কারণ যে প্রোডাক্টের সমর্থনে তাঁরা কথা বলছেন আদৌ সেটা আদৌ নির্ভরযোগ্য কিনা সেটা ভেবে দেখা উচিত। এবিষয়ে কী মনে করেন টলি তারকারা ? আসুন দেখে নেওয়া যাক এক ঝলকে।

১) প্রসেনজিৎ চক্রবর্তী (Prasenjit Chatterjee)

Prosenjit Chatterjee প্রসেনজিৎ চ্যাটার্জী

নানান ঝামেলার কারণে এখন নিজেকে বিজ্ঞাপন জগৎ থেকে দূরেই রেখেছেন বাংলার মহাতারকা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়। তাঁর মতে কোনও ব্র্যান্ডের হয়ে প্রচার করলে কিছুটা দায়িত্ব আসে ঠিকই। কিন্তু যে জিনিসটার হয়ে বিজ্ঞাপন করা হচ্ছে সেটা ভালো না খারাপ তা আগে থেকে কারও পক্ষে বোঝা সম্ভব হয় না। এপ্রসঙ্গে অভিনেতার প্রশ্ন ‘কোনও ব্যাঙ্কের হয়ে যদি আমি প্রচার করি আর পরে দেখা যায় সেই ব্যাঙ্ক জালিয়াতি করেছে তাহলে সেটা জানা কি আমার পক্ষে সম্ভব?’

৩) অর্পিতা চক্রবর্তী (Arpita Chatterjee)

Arpita Chatterjee অর্পিতা চ্যাটার্জী

নানান ব্রান্ডের অন্যতম পরিচিত মুখ হলেন প্রসেনজিৎ ঘরণী অর্পিতা চট্টোপাধ্যায় । ব্রান্ডের হয়ে বিজ্ঞাপন করার আগে তিনি সবসময় ব্র্যান্ডের সুনামের দিকটা ভেবে দেখেন বলে জানিয়েছেন।এক্ষেত্রে তিনি মনে করেন কোনো বিষয়ে তারকাদের ওপর দোষ চাপানোর আগে সেই কোম্পানির উচিত নিজেদের প্রোডাক্টের গুণগত মান যাচাই করা।

৩) দেব (Dev)

দেব Dev

প্রায় একই দাবি বাংলার সুপারস্টার দেবের গলাতেও। দেব জানান প্রোডাক্ট তৈরির পর যে কোনও তারকাকে ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসাডর করা হয় মার্কেটিং বিভাগ থেকে। সেখানে সেলিব্রেটিদের কোনও হাত থাকে না। তাই যে জিনিসটা বিক্রির কথা বলা হচ্ছে সেটা ভালো না খারাপ সেটা বোঝা তারকাদের পক্ষে সম্ভব নয় বলে সাফ জানিয়েছেন দেব।

Related Articles

Back to top button