বিনোদন

মহামারীর জেরে ধুঁকছে টলিউড ! পারিশ্রমিক কমাতে রাজি প্রসেনজিৎ,দেব,নুসরত মিমি? জানুন কী বললেন তারা

করোনা মহামারীর জেরে কার্যত তছনছ হয়ে গেছে গোটা বিশ্বই। আর তার ছাপ স্পষ্ট দেশের অর্থনীতি থেকে সমাজের বিভিন্ন স্তরেই। সেই রেশ এসে পড়েছে সিনে পাড়াতেও। গত কয়েক মাস ধরে বন্ধ ছিল সিনেমা হল। আর এর জেরে রিলিজ হয়নি ছবি। প্রযোজকদের টাকাও আটকে তাই কার্যত আর্থিক সংকটে ধুঁকছে টলি-পাড়া। ওটিটি প্ল্যাটফর্ম গুলো যাও বা অনলাইন ছবির মাধ্যমে কিছু টাকা ঘরে তুলতে পেরেছে, কিন্তু টলিউডের ভাঁড়ার একেবারেই শুন্য।তাই ইন্ডাস্ট্রি বাঁচাতে অভিনেতাদের পারিশ্রমিক কমানো ছাড়া উপায় দেখছেন না ছবির নির্মাতারা৷ কারণ একটি ছবি তৈরির আবশ্যিক খরচ বাদ দিয়ে অধিকাংশ অর্থই ব্যয় হয় অভিনেতা অভিনেত্রীদের পিছনে৷ বলিউডে শাহিদ কপূর, বরুণ ধওয়নেরা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন যে, তাঁরা পারিশ্রমিক কমাতে রাজি। জেনে নিন কী বলছে টলি-সেলেবরা।

প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়

বুম্বা দার মতে, কাজ বন্ধ রাখা উচিৎ নয় সেক্ষেত্রে যদি নিজের পারিশ্রমিকের সঙ্গে খানিক আপোষ করতে হয় ইন্ডাস্ট্রির স্বার্থে তাতেও রাজি অভিনেতা। তিনি জানান,” পারিশ্রমিক নিয়ে টলিউডের সাথে বলিউডের তুলনা চলেনা, এখানেও বড় তারকাদের পারিশ্রমিক বেশি। তাই পরিস্থিতি সামাল দিতে সেই টাকার খানিকটা অংশ কমিয়ে, তা যদি অন্য কোনও খাতে খরচ করা হয়, তাতে আপত্তির কিছু দেখছি না। এটা সাময়িক পরিস্থিতি। আগামী দিনের কথা মাথায় রেখেই প্রযোজকদের বাজেট ঠিক করা উচিৎ।”

দেব

প্রসেনজিৎ-এর সঙ্গে সহমত অভিনেতা দেব-ও। তার বক্তব্য, “পরিস্থিতি ঠিক না হওয়া পর্যন্ত কম পারিশ্রমিকে কাজ করতে আপত্তি নেই। কাজ বন্ধ থাকার সময়ে আমার অফিসের কর্মীদের টাকা কমাতে বাধ্য হয়েছিলাম। এখন আমাকে কেউ পারিশ্রমিক কমাতে বললে রাজি হতে হবে।”

আবির চট্টোপাধ্যায়

মহামারীকালে নতুন কোনো ছবি না বেরোলেও, জি বাংলার ‘সারেগামাপা’ রিয়ালিটি শো-এ সঞ্চালক হিসেবে কাজ শুরু করেছেন অভিনেতা আবির। যদিও পারিশ্রমিক কমানোর ব্যাপারে তিনি ভেবে দেখবেন বলেই জানিয়েছেন। তিনি জানান, “আমরা সকলে মিলেই তো একটা ইন্ডাস্ট্রি, তাই বিপদের দিনে একে অপরের পাশে দাঁড়ানোটাই আসল।”

নুসরত জাহান

নুসরত ইতিমধ্যেই কম পারিশ্রমিকে কাজ করেছেন বলেই জানিয়েছেন। সম্প্রতি তিনি দু’টি ছবির শুটিং করেছেন। সেখানে আগের তুলনায় পারিশ্রমিক অনেকটাই কম নিয়েছেন নায়িকা।

মিমি চক্রবর্তী

মিমি সাফ জানান, তার কম পারিশ্রমিকে কাজ করতে আপত্তি নেই কিন্তু তার দাবি প্রযোজকদের মাথায় রাখতে হবে, “তারকাদেরও টাকার প্রয়োজন আছে। তাঁদেরও সংসার চালাতে হয়। তাই সব দিক ভেবেই সিদ্ধান্ত নেওয়া উচিত”

Related Articles

Back to top button