খবরবিনোদন

শাহরুখের সঙ্গে ছবি তুলতে ব্যস্ত গোটা টলিউড! মেডিকেলে অনশনরত পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ালেন শ্রীলেখা মিত্র

বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অত্যন্ত চর্চিত একজন অভিনেত্রী (Tollywood actress) হলেন শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। তাঁকে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে এবং নেটদুনিয়ায় চর্চা লেগেই থাকে।আর হবে নাই বা কেন, তিনি সত্যিই যে ব্যতিক্রমী। অন্তত সমাজের চোখে তো তেমনটাই। কারণ বেশিরভাগ সময়েই তিনি স্রোত বিপরীত কাজকর্ম করে থাকেন। সম্প্রতি ফের একবার এমনই এক কাজ করলেন এই টলি অভিনেত্রী।

দু’দিন আগে প্রায় সম্পূর্ণ টলিউড ব্যস্ত ছিল কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠান নিয়ে। কিন্তু শ্রীলেখা সেখানে উপস্থিত ছিলেন না। থাকবেনই বা কীভাবে। অভিনেত্রী তখন মেডিকেল কলেজে। অনশনরত ডাক্তারি পড়ুয়াদের পাশে দাঁড়ালেন তিনি।

Sreelekha Mitra

২৮তম কলকাতা আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে চাঁদের হাট বসেছিল। শাহরুখ খান, অমিতাভ বচ্চন, রানী মুখার্জিদের চোখের সামনে থেকে দেখার সুযোগ ছাড়তে নারাজ প্রত্যেকে। তাঁদের ছবি ছবি তোলার সুযোগ মিস করা যাবে না কিছুতেই। কিন্তু শ্রীলেখার নাম সেই লিস্টে নেই। মেডিকেল কলেজে গিয়ে সোশ্যাল মিডিয়া লাইভে এসে অনশনরত ছাত্রছাত্রীদের হয়ে মুখ খোলেন অভিনেত্রী।

ছাত্র সংসদের নির্বাচনের দাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য অনশনে বসেছে মেডিকেল কলেজের বহু ছাত্রছাত্রী। তাঁদেরই পাশে গিয়ে দাঁড়ান টলি সুন্দরী। লাইভে এসে একজন ছাত্রের বার্তা পড়েন তিনি। লাইভেই সংশ্লিষ্ট ছাত্র জানান, প্রথমে ২২ ডিসেম্বর নির্বাচন হওয়ার কথা ছিল। তবে শাসক দলের ইউনিয়ন জিততে পারবে না বুঝে সেই নির্বাচন বাতিল করে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ করেন তিনি।

Sreelekha Mitra Medical college, Sreelekha Mitra medical students

KIFF নিয়ে কটাক্ষের সুরে শ্রীলেখা বলেন, ‘চলচ্চিত্র উৎসবে অমিতাভ-শাহরুখরা আসুক। আর আগামী দিনে ডাক্তার, শিক্ষকরা অনশন করুক। আমরা চুপ করে থাকব। এই ভাবেই পিঠ বাঁচিয়ে শাহরুখের সঙ্গে সেলফি তুলে শেয়ার করতে থাকব’।

প্রসঙ্গত, মেডিকেল কলেজের ছাত্রছাত্রীরা অনশনের বসেছেন ইতিমধ্যেই ২০০ ঘণ্টা হয়ে গিয়েছে। এর মধ্যে একজন ছাত্র অসুস্থ হয়ে পড়েন। তাঁকে সিসিইউতে অ্যাডমিট করা হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। একজন অনশনরত ছাত্রের মায়ের সঙ্গেও কথা বলেন শ্রীলেখা। মেডিকেল কলেজের ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়ানোর আবেদন জানিয়েছেন অভিনেত্রী।

Related Articles

Back to top button