ছবিবিনোদনসিনেমা

‘আমার আর বড় হওয়া হল না, খুকিই রয়ে গেলাম’! স্কুলের বাচ্চাদের নিয়েই জন্মদিন উদযাপন ঋতাভরীর

বাংলা ইন্ডাস্ট্রির অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন  ঋতাভরী চক্রবর্তী (Ritabhari Chakraborty)। বলতে গেলে রূপে লক্ষ্মী গুণে সরস্বতী টলিউডের সর্বগুণসম্পন্না অভিনেত্রী তিনি। আজ জন্মদিন (Birthday) অভিনেত্রীর। কিন্তু তিরিশ বছর বয়সে এসেও মন থেকে এখনও তিনি সেই খুকিই রয়ে গিয়েছেন। অভিনেত্রীর নিজের কথায় ‘বয়স যতই বাড়ুক, বুড়ি হওয়ার দিকে যতই এগোই, মনে আমি সেই খুকিই রয়ে গেলাম। আমার বোধহয় আর বড় হওয়া হল না’!

তখন ঋতাভরীর বয়স মাত্র ৪ বছর। ওই অল্প বয়সেই  চোখের সামনে বাবা মায়ের বিচ্ছেদ হতে দেখেছিলেন অভিনেত্রী। তবে কোনোদিনই দুই মেয়ে ঋতাভরী এবং চিত্রাঙ্গদার জীবনে কোনোকিছুর অভাব হতে দেননি তাদের মা শতরূপা সান্যাল। ছোটবেলায় নিজে হাতে কাপড় কিনে বাড়িতে বয়সেই মেয়েদের জন্য জামা তৈরী করে দিতেন শতরূপা। আজকের দিনে নিজের হাতে তৈরী করে দিতেন পোলাও আর মাংস। কিন্তু এখন মেয়ে বড় হয়েছেন তাই নিজের মতন মজা করেন।

ঋতাভরী চক্রবর্তী,Ritabhari Chakraborty,জন্মদিন উদযাপন,Birthday Celebration,Tollywood Actress,টলিউড অভিনেত্রী

তবে ছোটবেলার মতো এখনও দারুন মজা করেই নিজের জন্মদিন উদযাপন (Birthday Celebration) করেন ঋতাভরী। অভিনেত্রীর মা জানিয়েছেন উপহার পেতে ভীষণ  ভালবাসেন ঋতাভরী। তাই কাছের মানুষদের কাছ থেকে তিনি নিজেই নাকি চেয়ে নেন জন্মদিনের উপহার।সেই অনুযায়ীই উপহার দেয় সবাই। অভিনেত্রীর মায়ের কথায় ‘ছোটবেলায় আরও বেশি বায়না করত!’

ঋতাভরী চক্রবর্তী,Ritabhari Chakraborty,জন্মদিন উদযাপন,Birthday Celebration,Tollywood Actress,টলিউড অভিনেত্রী


তবে অভিনেত্রী জানিয়েছেন মায়ের জন্যই তিনি আজও জন্মদিন উদযাপন করতে ভালোবাসেন। এতদিনে একথা কমবেশি সবাই জানেন অভিনয়ের পাশাপাশি সবজি সেবাও করে থাকেন ঋতাভরী। বিশেষ ক্ষমতা সম্পন্ন শিশুদের জন্য তাঁর ‘দ্য আইডিয়াল স্কুল ফর ডেফ অ্যান্ড ডাম’ নামের একটি স্কুল রয়েছে। সেই স্কুলের  বাচ্চাদের পড়াশোনা থেকে দেখাশোনা সমস্ত কিছুর দায়িত্ব একহাতে সামলান অভিনেত্রী।

ঋতাভরী চক্রবর্তী,Ritabhari Chakraborty,জন্মদিন উদযাপন,Birthday Celebration,Tollywood Actress,টলিউড অভিনেত্রী


আজ সকালের শুরুটা নিজের স্কুলের এই বাচ্চাদের সাথেই কেক কেটে উদযাপন করেছেন ঋতাভরী।সেই ছবি এদিন সোশ্যাল মিডিয়ার পাতায় নিজেই ভাগ করে নিয়েছিলেন অভিনেত্রী। এদিন ঋতাভরীকে তাঁর স্কুলের বাচ্চারা আইসক্রিমের কাঠি,আর দেশলাইয়ের কাঠি দিয়ে দিয়ে সুন্দর সুন্দর নৌকা,আর চাঁদমালা বানিয়ে উপহার দিয়েছেন।ছোটবেলার মতোই আজও জন্মদিনে আমন্ত্রিতদের জন্য উপহারের ব্যবস্থা করেছেন ঋতাভরী নিজেও। অভিনেত্রীর জন্য বিশেষ সারপ্রাইজের ব্যবস্থা করেছেন তাঁর মনের মানুষ সপ্তর্ষিও। জন্মদিনে মা,দিদি ছাড়াও হাজির থাকছেন ঋতাভরীর খুব কাছের মানুষরাও।

Related Articles

Back to top button