বিনোদনভিডিও

চিকিৎসকের ইগোর জন্য অকালেই ঝরে গেল মেয়ের প্রাণ! নাম নিয়েই বিস্ফোরক দাবি ঐন্দ্রিলার মায়ের

অকালেই চলে গিয়েছেন টলিউডের নামী অভিনেত্রী (Tollywood actress) ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)। তাঁকে হারিয়ে এখনও সামলে উঠতে পারেনি তাঁর পরিবারের সদস্য ও প্রিয়জনেরা। ঐন্দ্রিলার মা, বাবা, দিদি- এখনও পুরনো স্মৃতির মধ্যেই খুঁজছেন তাঁকে। সবার মনে একটাই আক্ষেপ, আরও কিছু করা যেত মেয়েটার জন্য। এসবের মাঝেই অভিনেত্রীর মৃত্যু নিয়ে এক চাঞ্চল্যকর তথ্য সবার সামনে আনলেন তাঁর মা (Aindrila Sharma mother) শিখা শর্মা।

শনিবার ঐন্দ্রিলার স্মরণে আয়োজিত একটি অনুষ্ঠানে গিয়েছিলেন শিখাদেবী (Shikha Sharma)। সেখানকার ভিডিও সকাল থেকেই সোশ্যাল মিডিয়ায় দেখা যাচ্ছে। তবে সম্প্রতি টলি ফোকাস নামের একটি ইউটিউব চ্যানেল থেকে অভিনেত্রীর মায়ের একটি ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে, একজন চিকিৎসকের দিকে অভিযোগের তীর ছুঁড়েছেন তিনি।

Aindrila Sharma mother, Shikha Sharma

সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে কথা বলার সময় শিখাদেবী জানান, ঐন্দ্রিলার চিকিৎসা করছিলেন যে চিকিৎসকেরা তাঁরা প্রত্যেকেই খুব ভালো ছিলেন। বিশেষ করে তাঁর অপারেশন করেছিলেন যিনি সেই চিকিৎসকেরও নাম নিয়ে প্রশংসা করেন তিনি। তবে মেডিক্যাল টিমের মধ্যে একজন চিকিৎসকের নাকি ‘ইগো প্রবলেম’ ছিল। আর তাতেই বাঁধে বিপত্তি। ‘ইগো’ থাকা সেই চিকিৎসকের নাম নিয়েই ক্ষোভ উগড়ে দেন তিনি।

‘জিয়ন কাঠি’ অভিনেত্রীর মা সরাসরি বলেন, সংশ্লিষ্ট চিকিৎসক দায়িত্ব নিয়ে তাঁর মেয়েকে ডিপ কোমায় পাঠিয়ে দেন। শিখাদেবী এও  বলেন, ব্রেন স্ট্রোক হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার পর ঐন্দ্রিলার মাথার অপারেশন হয়েছিল। সেটি সফলও হয়। এমনকি দু’দিন পর জ্ঞানও ফিরেছিল অভিনেত্রীর। এরপর তাঁর এমআরআই করানো হয়। আর তখন থেকেই শারীরিক অবস্থার অবনতি হতে শুরু করে।

Aindrila Sharma with Mother Sikha Sharma

শিখাদেবী জানিয়েছেন, এমআরআই করতে বেশ অনেকটাই সময় লেগেছিল। তবে পরীক্ষার রিপোর্ট ভালো এসেছিল। কিন্তু এমআরআইয়ের পর থেকে ঐন্দ্রিলার শারীরিক অবস্থার যে অবনতি হতে শুরু করেছিল, তা আর ঠিক হয়নি।

যদিও ‘জীবন জ্যোতি’ অভিনেত্রীর মা যে শুধুমাত্র ক্ষোভ উগড়েছেন তাই নয়, বেশ কয়েকজন চিকিৎসক, হাসপাতালের নার্সিং কেয়ারের প্রশংসাও করেছেন। কিন্তু আক্ষেপ একটাই, এত চেষ্টা করার পরেও শেষরক্ষা হয়নি। সব চেষ্টা বিফলে পাঠিয়ে চিরবিদায় নিয়েছেন ঐন্দ্রিলা।

Related Articles

Back to top button