অনুমতি ছাড়াই ডেটিং অ্যাপের বিজ্ঞাপনে টিএমসি এমপি নুসরতের ছবি।অভিযোগ সাইবার ক্রাইম কলকাতায়।


নুসরত জাহান অনেকেই হয়তো বাংলা সিনেমার পর্দা থেকেই চেনেন এই অভিনেত্রীকে। সাথে বসিরহাটের তৃণমূল কংগ্রেসের সংসদ পদে আছেন।নুসরতের অনুমতি ছাড়াই ফেসবুকে একই ডেটিং অ্যাপের বিজ্ঞাপনে তার ছবি  ব্যবহার করা হয়েছে। এর বিরুদ্ধে সংসদ নুসরত কলকাতা পুলিশের সাইবার ক্রাইম বিভাগে অভিযোগ করেছেন।

বিজ্ঞাপনে দেখা যাচ্ছে লাল পোশাকে অভিনেত্রী নুসরতকে ,সাথে রয়েছে অন্য আরেকটি মেয়ের ছবি। যা ভিডিও চ্যাট অ্যাপ সংস্থাটি সুম্পূর্ন বিনা অনুমতিতে ব্যবহার করেছে। কিন্তু একটি ভিডিও চ্যাট সংস্থা কিভাবে বিনাঅনুমতিতে কোনো ব্যক্তির ছবি ব্যবহার করতে পারে! তা নিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতে রীতিমত হৈচৈ পড়ে গেছে।

দীর্ঘ লকডাউনে ঘরে বসে বন্ধু বানানোর একটি ভিডিও চ্যাট অ্যাপ ফ্যান্সি ইউয়ের (Video Chat app FancyU) ফেইসবুক বিজ্ঞাপনে জ্বলজ্বল করছে নুসরত জাহানের ছবি। কিন্তু এর জন্য কোনোরকম অনুমতি নেয়নি এই ভিডিও চ্যাটের অ্যাপ সংস্থাটি। ফেইসবুক এই বিজ্ঞাপনটি সহজেই ভাইরাল হয়। তখন বিষয়টি নজরে আসে নায়িকা তথা সংসদ নুসরতের। টুইটারে এই বিষয়টি নিয়ে তিনি প্রতিবাদ করেন। এরপর কলকাতা পুলিশ ও কলকাতা পুলিশের কমিশনারকে ট্যাগ করে টুইটও করেন।

টুইটে নুসরত লেখেন ” এটা কোনোমতেই মেনে নেওয়া যায়না। অনুমতি ছাড়াই কিভাবে এই ছবির ব্যবহার হচ্ছে! আমি কলকাতা পুলিশের সাইবার সেল বিভাগকে অনুরোধ করছে বিষয়টি খতিয়ে দেখার  জন্য। এই বিষয়টি নিয়ে আইনি ব্যবস্থা নিতে আমি প্রস্তুত।” কলকাতা পুলিশ নুসরতের এই টুইটের উত্তরে জানিয়েছে যে এই বিষয়ে অভিযোগ নথিভুক্ত করে হয়েছে। বিষয়টি খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

নুসরত জাহান তার অভিযোগে বলেছেন “প্রাথমিক তদন্ত আমি জানতে পেরেছি এটা একটা ডেটিং অ্যাপ। গুগল প্লে স্টোরে এই অ্যাপ টি রয়েছে। কিন্তু অ্যাপের বিজ্ঞাপনটি ভুয়া ও এটি বিদ্বেষ ছড়াতে ব্যবহৃত হচ্ছে। এটা আমার কাছে মোটেই গ্রহণযোগ্য নয়। আমি অনুরোধ করব আমার এই ইমেইল টি অফিসিয়াল কমপ্লেন হিসাবে গণ্য করা হোক। ”

 


Like it? Share with your friends!

683
683 points