আমাদের রূপের আসল রহস্য প্লাস্টিক সার্জারি! অকপট প্রিয়াঙ্কা চোপড়া,অনুষ্কা শর্মা সহ এই অভিনেত্রীরা


বলিউডে (Bollywood) এমন অনেক অভিনেত্রী রয়েছেন যারা নিজেদের সৌন্দর্যের পিছনে কোটি কোটি টাকা খরচ করেছেন। এমনকি বিদেশে পর্যন্ত গিয়েছেন তারা। নিজেদের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতে কেউ কেউ প্লাস্টিক সার্জারি (Plastic surgery) পর্যন্ত করিয়েছেন। কসমেটিক সার্জারি, লিপ জব, নোজ এক্সটেনশন এর মতো এমন নানান সার্জারি করিয়ে থাকেন অভিনেত্রীরা। প্রিয়াঙ্কা চোপড়া, অনুষ্কা শর্মা থেকে শুরু করে আয়েশা টাকিয়া সকলেই এই সার্জারি করিয়েছেন। চিনে নিন এই অভিনেত্রীদের যারা নিজেদের সৌন্দর্য বর্ধনের জন্য অনেক কাঠখড় পুড়িয়েছেন।

অনুষ্কা শর্মা (Anushka Sharma) :

অনুষ্কা শর্মা ‘রব নে বানাদি জোডি’ দিয়ে বলিউডে আত্মপ্রকাশ করেন। কিছুদিনের মধ্যেই অভিনেত্রী শিরোনামে উঠে আসেন তার ঠোঁটের কারণে। প্রথম অভিনেত্রীর ঠোঁট সার্জারির বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে ‘কফি উইদ করন ‘ এ অভিনেত্রী অতিথি হয়ে আসার পর থেকেই। এই শো’তেই তার ঠোঁটের পরিবর্তন লক্ষ্য করা যায়। এরপর থেকেই সেই সমস্ত ক্লিপিংস, ভিডিও ভাইরাল হয়ে যেতে শুরু হয়। যদিও সেই সময় চুপই ছিলেন অভিনেত্রী৷ ২০১৬ সালের একটি সাক্ষাৎকারে লিপজব অর্থাৎ ঠোঁট সার্জারির প্রসঙ্গে অভিনেত্রী বলেন ‘বম্বে ভেলভেট’ ছবির জন্যই এই পদক্ষেপ তাকে নিতে হয়েছিল। তবে সেকথা কাউকেই লুকোতে চাননি অভিনেত্রী। বরং স্পষ্ট বক্তব্য রেখে বলেছিলেন, , “আমি মানুষ, আমি নিখুঁত নই।”

প্রিয়াঙ্কা চোপড়া (Priyanka Chopra) :

বলিউড থেকে হলিউডে নিজের আলাদা পরিচয় তৈরি প্রিয়াঙ্কা চোপড়াও প্লাস্টিক সার্জারি করেছেন। তার নাকের অস্ত্রোপচার করা হয়েছে। আপনি ছবিতে এই পার্থক্যটি স্পষ্ট দেখতে পাবেন। একই সঙ্গে প্রিয়াঙ্কা তার ‘আনফিনিশড’ বইতে অকপটেই এই কথা লিখেছেন যে,” আমার নাকের সমস্যা ছিল। আমি অস্ত্রোপচারের জন্য ডাক্তারের কাছে গিয়েছিলাম, যেখানে চিকিৎসক দুর্ঘটনাক্রমে আমার নাকের ব্রিজটি ভেঙে দিলেন। যখন ব্যান্ডেজগুলি সরিয়ে ফেলার পালা এসেছিল, পরিস্থিতি দেখে আমি এবং মা দুজনেই ভেঙে পড়েছিলাম। আমার আসল নাকটা গেছে। আমার চেহারা একেবারে অন্যরকম লাগছিল। আমি নিজের মধ্যে ছিলাম না, আমি ভেঙে যাচ্ছিলাম। যখনই আমি নিজেকে আয়নায় দেখতাম, মনে হয়েছিল কোনও অচেনা ব্যক্তি আমাকে দেখছে। আমি এ থেকে বেরিয়ে আসতে পারিনি। আমি প্লাস্টিক চোপড়া নামে পরিচিতি পেয়েছি। ট্রোলিং দেখে আমি স্থির করেছিলাম এর উপর নীরবতা রাখব। নাক সংশোধন করার জন্য আমি বেশ কয়েকটি সার্জারি করেছি এবং পরে নিজেকে নিজের কাছে আরও গ্রহণযোগ্য করে তুলেছি।”

শ্রুতি হাসান (Shruti Hasan) :

শ্রুতি হাসানএর ঠোঁটের অস্ত্রোপচারের জন্য ট্রোল শুরু হয়েছিল। এবং তিনি এ নিয়ে খোলামেলা কথা বলেছেন। তিনি বলেছিলেন যে তিনি তার দেহের সাথে যা কিছু করেন তা তাঁর ব্যক্তিগত কাজ এবং তিনি ট্রোলগুলিতে দায়বদ্ধ নন। শ্রুতি বলেছিলেন, ‘যে কোনও ব্যক্তি, সে বিখ্যাত কিনা সে কারও বিচার করতে পারে না। আমি এই বলে খুশি যে এটি আমার জীবন, আমার মুখ এবং হ্যাঁ আমি প্লাস্টিক সার্জারি করেছি যা গ্রহণ করতে আমি লজ্জা পাচ্ছি না। আমি কি এটি প্রচার করছি? না আমি কি এর বিরোধী? না এটি আমার জীবনযাত্রার উপায় ”

আয়েশা টাকিয়া (Ayesha Takiya) :

চলচ্চিত্র জগতে আয়েশা টাকিয়া তার সুন্দর মুখ দিয়ে অনেকের মনেই ঝড় তুলেছেন। তবে ঠোঁটের অস্ত্রোপচারের পরে এমনটি হয় না। ভক্তরা তাকে তীব্রভাবে ট্রল করতে শুরু করে।

পরে আয়েশা তাকে যথাযথ জবাব দিয়েছিল এবং বলেছিল যে আমার সম্পর্কে যখন কথা বলা শুরু হয়েছিল, তখন আমি আপনাকে একটি সোশ্যাল মিডিয়া পোস্টের মাধ্যমে বলেছিলাম যে লোকেরা কীভাবে নিজেকে গ্রহণ করা উচিত, এবং যারা সর্বদা আপনাকে হতাশ করে তাদের জিনিসগুলিতে মনোযোগ দেওয়া উচিত নয় তারা ধ্বংসযজ্ঞে লিপ্ত। আপনি কোনও ভুল করেন নি যখন নিজেকে বাঁচাবেন না। আমার তাতে আপত্তি নেই এবং আমি এ থেকে সরে এসেছি।