সুশান্তের বোনের বিরুদ্ধে রিয়ার অভিযোগকে গুরুত্ব দিলো সর্বোচ্চ আদালত


বলিউডের (Bollyeood) নামজাদা অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর পর কেটে গিয়েছে বেশ কয়েকটা মাস। তদন্ত প্রক্রিয়ায় একের পর এক নাম জড়িয়েছিল খ্যাতনামা বলিসেলেবদের। সিবিআই (CBI), এনসিবি-র (NCB) মত জাতীয় গোয়েন্দা সংস্থার নাম জড়ানোয় ক্রমশ জটিল হয়েছে মৃত্যুরহস্য।

সুশান্তের পরিবারের তরফে একের পর অভিযোগের তীর ছোঁড়া হয় অভিনেতার প্রাক্তন প্রেমিকা রিয়া চক্রবর্তীর (Rhea Chakraborty) উদ্দেশ্যে। সেইসব অভিযোগ ধোপে না টিকলেও চূড়ান্ত সম্মানহানি হয় অভিনেত্রীর। বর্তমানে পাল্টা মারের পথে হেঁটেছেন রিয়া। সুশান্তের দুই বোন প্রিয়াঙ্কা সিং (Priyanka Singh) ও মিতু সিংয়ের (Mitu Singh) বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেছেন অভিনেত্রী।

সূত্রের খবর, দেশের সর্বোচ্চ আদালতে (Supreme Court) মিতু সিংয়ের বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ খারিজ হয়ে গেলেও প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগ স্বীকৃত হয়েছে কোর্টে। জানা যাচ্ছে, রিয়ার অভিযোগ অনুসারে সুশান্তকে দিনের পর দিন ভুয়ো প্রেসক্রিপশনের ওষুধ খাইয়েছেন প্রিয়াঙ্কা! এহেন অভিযোগে স্বাভাবিকভাবেই চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

ইতিপূর্বে সুপ্রিম কোর্ট ঘোষণা করেছিল যে সুশান্ত কেসের সকল দায়ভার বর্তাবে সিবিআইয়ের উপর। স্বাভাবিকভাবেই প্রিয়াঙ্কার বিরুদ্ধে আনা অভিযোগও তদন্ত করবে সিবিআই। রিয়া ঘনিষ্ঠদের মতে, ভাই-বোনের হোয়াটস অ্যাপ (Whatsapp) চ্যাটের উপর ভিত্তি করে প্রিয়াঙ্কার উপর অভিযোগের আঙ্গুল তোলেন রিয়া।

২০২০ সালের ১৪ই জুন আত্মহত্যা করেন সুশান্ত। তার থেকে ঠিক ছয়দিন আগে ভাইবোনের চ্যাটে স্পষ্ট অজানা তথ্য। জানা যাচ্ছে, প্রিয়াঙ্কা সুশান্তকে এমন তিনটি ওষুধ খেতে বলেন যেগুলি মানসিক অবসাদ সম্পর্কিত। স্বাভাবিকভাবেই সুশান্তের পরিবার যে অভিনেতার মানসিক সমস্যার সম্পর্কে অবগত ছিল, সে বিষয়টি সামনে এনেছেন রিয়া।

প্রাক্তন প্রেমিককে মাদক সরবরাহের অভিযোগে ইতিমধ্যেই ২৮ দিনের জেল খেটেছেন রিয়া। স্বভাবতই সুশান্তের পরিবারকে নাকানিচোবানি খাওয়ানোর ক্ষেত্রে কোনো কসুরই যে ছাড়বেন না রিয়া, তা স্পষ্ট করেছেন রিয়ার ঘনিষ্ঠরাই। যদিও এহেন নয়া অভিযোগের বিষয়ে সংবাদমাধ্যমের সামনেও মুখ খোলেননি সুশান্তের পরিবারের কেউই।


Like it? Share with your friends!

620
620 points