রেসিপি

রবিবারের পাতে আনুন রবিঠাকুরের পছন্দের খাবার, রইল ঠাকুরবাড়ির ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই রেসিপি

বাঙালি মানেই ছোট থেকে বড় হওয়ার মাঝে ওতপ্রোতভাবে জড়িয়ে পরা বিশ্বকবি রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের সাথে। আর ভোজন রসিক বাঙালিদের মত রবিঠাকুরও ছিলেন বেশ ভোজন রসিক এক মানুষ। দেশি হোক বা বিদেশ নান ধরণের স্বাদের খাবার খেতে দারুন পছন্দ ছিল তার। আর আজ আপনাদের জন্য রবিবারের দুপুরে রবিঠাকুরের বাড়ি অর্থাৎ ঠাকুরবাড়ির প্রিয় ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই রেসিপি (Thakurbarir Hilsa Firingi Fry Recipe) নিয়ে এসেছি।

আসলে ঠাকুরবাড়িতে বরাবরই পুরোনো আমলের সংস্কৃতির প্রভাব ছিল। তবে নতুনত্ব রান্না কিন্তু কম হত না সেখানেও। ঠাকুরবাড়ির হেঁশেলে বিদেশী খাবার ফিশ ফ্রাই দেখে পূর্ণিমা ঠাকুর নিজের হাতে তৈরী করেছিলেন ইলিশ মাছ দিয়ে ফিশ ফ্রাই। সেই রান্নায় ঠাকুরবাড়ির ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই নাম পরিচিত। আজ সেই রেসিপি তুলে ধরব আপনাদের কাছে। তাই ঝটপট রেসিপি দেখে তৈরী করে ফেলুন ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই (Thakurbarir Hilsa Firingi Fry)।

ঠাকুরবাড়ির ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই তৈরির জন্য প্রয়োজনীয় উপকরণঃ

  • ইলিশ মাছ
  • পেঁয়াজ, আদা রসুন বাটা, কাঁচালঙ্কা বাটা
  • গোলমরিচ গুঁড়ো,
  • বিস্কুটের গুঁড়ো (Breadcrumbs)
  • ভিনিগার, ময়দা
  • রান্নার জন্য পরিমাণ মত নুন ও সাদাতেল

ঠাকুরবাড়ির ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই তৈরির পদ্ধতিঃ

  • প্রথমে ইলিশ মাছ ভালো করে ধুয়ে সেটাকে ভালো করে আদা রসুন বাটা, পেঁয়াজ বাটা, নুন গোলমরিচ গুঁড়ো, ভিনিগার আর নুন দিয়ে মাখিয়ে ম্যারিনেট হবার জন্য ৪০-৫০ মিনিট ফ্রিজে রেখে দিতে হবে।

  • এরপর  ম্যারিনেট হওয়া মাছ রান্নার আগে স্বাভাবিক তাপমাত্রায় এনে নিতে হবে।
  • এবার কড়ায় সাদা তেল দিয়ে গরম হতে হিতে হবে। আর একটা পাত্রে সামান্য নুন দিয়ে ময়দা গুলে নিতে হবে।

  • ম্যারিনেট হওয়া ইলিশ মাছগুলোকে একে একে  প্রথমে ময়দার মিশ্রণ ও পরে বিস্কুটের গুঁড়োয় ডুবিয়ে তারপর গরম তেলে ছেড়ে মুচমুচে করে ভেজে নিতে হবে।

  • ব্যাস তৈরী হয়ে গেল ঠাকুরবাড়ির ইলিশ ফিরিঙ্গি ফ্রাই, এবার শুধু গরম গরম ভাতের সাথে খাবার অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button