বিনোদনসিনেমা

বিবেক অগ্নিহোত্রীকে পছন্দ নয়! তসলিমার অভিযোগ কাশ্মীর ফাইলস হিন্দুদের মধ্যে মুসলিম বিদ্বেষ তৈরি করছে

মুক্তির আগে থেকেই ‘দ্য কাশ্মীর ফাইলস’ ( Kashmir Miles) ছবি নিয়ে হইহই পড়ে গিয়েছিল নেটপাড়ায়। ১১ মার্চ মুক্তি পেয়েছে পরিচিলক বিবেক রঞ্জন অগ্নিহোত্রীর (Vivek Ranjan Agnihotri) বহু প্রতীক্ষিত সিনেমা দ্য কাশ্মীর ফাইলস (The Kashmir Files)। মুক্তির পর থেকেই ছবিটি নিয়ে চর্চার অন্ত নেই। ইতিমধ্যেই বলিউডকে বক্স অফিসের একাধিক রেকর্ড তৈরী করে ফেলেছে। অনেকেই ছবি নিয়ে নিজের মন্তব্য প্রকাশ করেছেন।

এই ছবিতে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে কাশ্মীরের পন্ডিতদের নির্মম করুণ কাহিনি। এই ছবির মূল বিষয়বস্তু হল কাশ্মীরে হিন্দু পন্ডিতদের উপর হওয়া অকথ্য অত্যাচার। ইতিমধ্যেই সিনেমাটি প্রায় ১৬৭ কোটি টাকার ব্যবসা করে ফেলেছিল। ছবিতে অভিনয় করছেন মিঠুন চক্রবর্তী, অনুপম খের, পল্লবী যোশী, দর্শন কুমার, ভাষা সুম্বালি, চিন্ময় মন্ডলেকর, পুনীত ইসার, মৃণাল কুলকার্নি, অতুল শ্রীবাস্তব এবং পৃথ্বীরাজ সারনায়েক। ইতিমধ্যেই বক্স অফিসে ১০০ কোটির মাইল ফলক ছুঁয়ে ফেলেছে বিবেক অগ্নিহোত্রীর এই ছবি। স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিও এই ছবির ভূয়সী প্রশংসা করেছেন।

কিন্তু এই ছবি দেখে একেবারে উলটো সুর গাইলেন বাংলাদেশের বিতর্কিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন। ছবি দেখে প্রশংসার বদলে তিনি যে ভীষণ ভাবে আশঙ্কিত তাই জানালেন তিনি। তসলিমার ভয়, এই ছবি হিন্দুদের মধ্যে চরম মুসলিম বিদ্বেষ তৈরি করবে৷ এমনকি পরিচালক বিবেক অগ্নিহোত্রীকেও যে তার বিশেষ পছন্দ নয়, সেকথাও জানিয়েছেন তিনি।

বিবেকের আর কোনোও ছবিই দেখেননি তসলিমা। তার মতে, যেভাবে ছবিতে মুসলিম বিদ্বেষ উগড়ে দেওয়া হয়েছে তাতে হলে কোনোও মুসলিম দর্শককে হিন্দুরা পিটিয়ে মেরেও ফেলতে পারে বলে মত তার। তসলিমার বক্তব‍্য, ‘এই ছবি হিন্দুদের উত্তেজিত করবে, ক্রোধান্বিত করবে, প্রচণ্ড মুসলিম-বিদ্বেষ তৈরি করবে। কাশ্মীরের হিন্দুদের ওপর কাশ্মীরি মুসলমানদের ভয়াবহ অত্যাচারের গ্রাফিক চিত্র দেখানো হয়েছে ছবিটিতে। একবার নয়, বার বার, বার বার। ইহুদিদের বিরুদ্ধে নাৎসি বাহিনীর নৃশংসতার কথা সকলেই জানে। কিন্তু কাশ্মীরি পন্ডিত বা কাশ্মীরি হিন্দুদের বিরুদ্ধে কাশ্মীরি মুসলমানদের অত্যাচারের কাহিনী দুনিয়ার বেশি লোক জানে না। ছবি দেখতে দেখতে দর্শকদের আর্তস্বর শুনেছি।’ তিনি আরও জানান, মুসলিমদের হিন্দুদের উপর অত্যাচার দেখেছি, তাই বলে সব মুসলিম একরকম নয়। কিন্তু এই ছবি হিন্দুদের মধ্যেও সন্ত্রাসবাদের বীজ বুনতে পারে বলেই তার আশঙ্কা।

Related Articles

Back to top button