গসিপবিনোদন

বিয়ের ৪ মাসেই যমজ সন্তান, কিভাবে সম্ভব? মা হয়ে আইনি জটে দক্ষিণী অভিনেত্রী নয়নতারা, শুরু তদন্ত

বিয়ে হয়েছে সবে ৪ মাস হয়েছে। এর মধ্যেই সাউথের ‘লেডি সুপারস্টার’ নয়নতারা (Nayanthara) এবং তাঁর স্বামী বিঘ্নেশ শিবানের (Vignesh Shivan) ঘরে জন্ম নিয়েছে দুই যমজ পুত্র। কোজাগরী লক্ষ্মী পুজোর দিন অনুরাগীদের সঙ্গে সেই খবর ভাগ করে নিয়েছিলেন তাঁরা। তবে সেই খুশি বেশিক্ষণ স্থায়ী হল না। তারকা জুটির সন্তানদের জন্ম নিয়ে এবার তদন্তের আদেশ দিলেন তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী (Tamil Nadu Health Minister)।

গত রবিবার যমজ সন্তানের জন্মের সুখবর দিয়েছেন নয়নতারা এবং বিঘ্নেশ। তবে তারকা জুটির বিয়ে যেহেতু মাত্র ৪ মাস আগে হয়েছে, তাই অনুমান সারোগেসির মাধ্যমেই জন্ম হয়েছে তাঁদের সন্তানদের। এই বিষয়ে তাঁরা এখনও অফিশিয়ালি কিছু না জানালেন, জল্পনা কল্পনা কিন্তু শুরু হয়ে গিয়েছে।

Nayanthara and Vignesh Shivan baby

আর এরপর থেকেই উঠতে শুরু করেছে নানান প্রশ্ন। দেশের সারোগেসি সংক্রান্ত আইন নয়নতারা এবং বিঘ্নেশ মেনেছেন কিনা উঠেছে সেই প্রশ্নও। সোমবার বিকেলে তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রী এমএ সুব্রহ্মনিয়ম একটি সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, সারোগেসি সংক্রান্ত আইন নিজেই বিতর্কের একটি বিষয়। তিনি জানান, ২১ বছর ঊর্ধ্বে এবং ৩৬ বছরের নিম্নের যে কোনও ব্যক্তিতার পরিবারের পরামর্শ নিয়ে সারোগেসির পথ বেছে নিতে পারেন।

সেই সঙ্গে সেই রাজ্যের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এও জানান যে, নয়নতারা এবং বিঘ্নেশের যমজ সন্তানের জন্ম নিয়ে যে বিতর্কের সৃষ্টি হয়েছে সেই বিষয়ে তদন্ত করা হবে। পাশাপাশি এও বলেন তিনি ডিরেক্টর অফ মেডিক্যাল সার্ভিসেসকে এই বিষয়ে তদন্তের আদেশ দেবেন। একটি নামী সংবাদমাধ্যমকে এই বিষয়ে সুব্রহ্মনিয়ম বলেন, ‘একটি তদন্ত করা হবে এবং আমি মেডিক্যাল সার্ভিসেস ডিরেক্টরেটকে এই বিষয়ে তদন্ত করার আদেশ দেব’।

Nayanthara and Vignesh Shivan

জানিয়ে রাখা প্রয়োজন, ভারতে ব্যবসায়িক উপায়ে সারোগেসি নিষিদ্ধ। পাশাপাশি যিনি সারোগেট তাঁর অন্তত একবার বিয়ে এবং নিজের সন্তান থাকাও বাধ্যতামূলক। চলতি বছরের ২৫ জানুয়ারিতে আসা সারোগেসি বিলে ব্যবসায়িক উপায়ে সারোগেসি বন্ধ করার সমস্ত রকমের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

এদেশে শুধুমাত্র দম্পতির কোনও ‘আত্মীয়া’ সারোগেট হতে পারেন। এক্ষেত্রেও তাঁকে এই কাজের জন্য কোনও প্রকার টাকা দেওয়া যাবে না। শুধুমাত্র চিকিৎসার খরচ এবং তাঁর ইনস্যুরেন্সের টাকা দেওয়া যাবে। তামিলনাড়ুর স্বাস্থ্যমন্ত্রকের তরফ থেকে তদন্ত করে এটাই দেখা হবে, নয়নতারা এবং বিঘ্নেশ এই নিয়ম মেনেছিলেন কিনা।

Related Articles

Back to top button