বিনোদনসিনেমা

‘বাংলাদেশে ১৯০০ টাকায় মেয়ে বিক্রি হয়?’ নেটিজেনদের কু মন্তব্যের জবাবে ঝামা ঘষে দিলেন স্বস্তিকা

সোশ্যাল মিডিয়ায় ছবি দিয়ে ট্রোলড হওয়া সেলিব্রেটিদের কাছে একপ্রকার জলভাতে পরিণত হয়েছে। পান থেকে চুন খসলেই হয় সকলের খুঁত ধরতে যেন ওঁত পেতে থাকেন নেটিজেনদের একাংশ। অনেক সেলিব্রেটি আছেন যারা এসব ট্রোলিংয়ে পাত্তা না জাস্ট ইগনোর করেন। আবার অনেকে আছেন যারা সমস্ত ট্রোলিংয়ের সপাট জবাব দেন।

টলিউডের এমনই একজন জনপ্রিয় অভিনেত্রী হলেন স্বস্তিকা মুখার্জী (Swastika Mukherjee)। বরাবরই স্পষ্টবাদী এই অভিনেত্রী, সে রিল লাইফ হোক কিংবা রিয়েল লাইফ বরাবরই সত্যি কথাটাই মুখের উপর স্পষ্ট ভাষায় বলেন স্বস্তিকা। উল্লেখ্য বরাবরই সারমেয়দের জন্য আলাদা টান অনুভব করেন স্বস্তিকা। তাই নিজের জন্মদিনে পথকুকুরদের জন্য শীতের জামা এবং চিকিৎসার ব্যবস্থা করতে বিশেষ উদ্যোগ নিয়েছেন অভিনেত্রী।

Swastika Mukherjee

 

নিজের পরা কিছু পোশাক এবং অ্যাকসেসারিস নিলামে তুলছেন নায়িকা। সেই মূল্য সরাসরি তুলে দেওয়া হবে এমন কিছু এনজিও-তে যারা সারাবছর রাস্তার কুকরদের জন্য কাজ করে। স্বস্তিকার এই উদ্যোগে শামিল হয়েছেন তার মেয়ে অন্বেষাও (Anwesha)। অন্বেষা নিজের বেশ কিছু বেল্ট নিলামের জন্য দিয়েছেন।


এই প্রয়াসকে অনেকে যেমন সাধুবাদ জানিয়েছেন তেমনই ধেয়ে এসেছে একাধিক কুমন্তব্য। শালীনতার মাত্রা ছাড়িয়ে এক নেটিজেন অন্বেষার ছবির কমেন্ট বক্সে লিখেছেন বাজে ইঙ্গিত করে লিখেছেন ‘১৯০০ টাকায় তো মেয়ে-সহ পেয়ে যাবো দিদি’। মেয়ের উদ্দেশ্যে নেটিজেনের এমন কুমন্তব্য দেখে চুপ থাকতে পারেননি স্বস্তিকা।

সঙ্গে সঙ্গে ওই কটূক্তির জবাবে স্বস্তিকা লিখেছেন, ‘বাংলাদেশে ১৯০০ টাকায় মেয়ে বিক্রি হয়? তোমরা কেনো? বিক্রিও করো?  সেটা আবার সোশ্যাল মিডিয়াতে বলে নাম কিনছো! কী দারুণ ব্যাপার’। আবার কেউ লিখেছেন নিউ মার্কেটে এই বেল্ট ১৫০ টাকায় পাওয়া যায়। কিন্তু স্বস্তিকার আক্ষেপ তাঁর ভাবনার কদর করছে না কেউ। চ্যারিটি মানে বিজনেস নয় এটা কাওকে বোঝাতে পারছেন না তিনি।

Related Articles

Back to top button