খবরবিনোদন

‘স্বামীকে বলুন গরীবের টাকা মেরে ফুর্তি না করতে’, কুরুচিকর মন্তব্যের শিকার রান্না ঘরের সুদীপা

সোশ্যাল মিডিয়াতে ইদানিং সেলেব্রিটিদের ট্রোলিং যেন বেড়েই চলেছে। বিশেষত টলিপাড়ার অভিনেতা অভিনেত্রীদের নিয়ে ট্রোলের যেন শেষ নেই। এবার এই ট্রোলিংয়ের হাত থেকে ছাড়া পেলেন না জি বাংলার রান্নাঘর অনুষ্ঠানের সঞ্চালিকা সুদীপা চ্যাটার্জী (Sudipa Chatterjee)। অভিনেত্রীর স্বামী অগ্নিদেব চট্টোপাধ‍্যায়কে (agnidev chatterjee) টেনে কুরুচিকর মন্তব্য করলেন এক নেটিজেন। অবশ্য এর উত্তরে যোগ্য জবাব দিয়েছেন অভিনেত্রী।

আসলে সম্প্রতি অভিনেত্রী তার ফেসবুকে একটি পোস্ট করেছিলেন। যেখানে মেদিনীপুরের গয়না বড়ি বানাতে জানা শিল্পীর খোঁজ করছিলেন সুদীপা। অভিনেত্রীর সেই পোস্ট ভাইরাল হয়ে পরে আর অনেক অনুগামীরাই তাকে সাহায্য করার ইচ্ছা প্রকাশ করেন। অনেকে এও বলেন যে তারা যোগাযোগের তথ্য পাঠিয়েছেন অভিনেত্রীর ইনবক্সে। কিন্তু এই পোস্টেই এক নেটিজেন রীতিমত কুরুচিকর মন্তব্য করেছেন।

Sudipa Chatterjee trolled

সাহায্যে চেয়ে করা সুদীপার পোস্টে ওই নেটিজেন লিখেছেন, ‘আপনার স্বামীকে বলুন গরিব লোকের টাকা মেরে যেন ফুর্তি না করে। লজ্জা লাগা দরকার ওনার।’ এখানেই শেষ নয় সাথে তিনি আরো লেখেন, ‘গরিব লোকের ভাত মেরে যদি আপনি খুশি হন তাহলে আপনারা মানুষের পর্যায়ে পড়েন না। আপনাদের কোনোদিনও ভালো হবে না। এটা আমার অভিশাপ’। এমনকি ওই নেটিজেনদের মতে তার কাছে সমস্ত কল রেকর্ড আছে, তিনি যদি মিথ্যে বলে থাকেন তাহলে শাস্তি মেনে নেবেন।

Sudipa Chatterjee trolled

তবে সব শেষে নেটিজেন ক্ষমা চেয়েছেন এভাবে পোস্টে কমেন্ট করার জন্য। তবে তিনি জানান যে তিনি নিরুপায় কারণ সুদীপার স্বামী অগ্নিদেব নাকি তাকে ব্লক করে রেখেছেন ফেসবুকে। তাই এই কাজ করতে হয়েছে তাকে। অভিনেত্রীর প্রতি এহেন আচরণে অনেকে অনুরাগীরাই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন। তবে অনেকের কাছ থেকেই যথাযথ সাহায্যও পেয়েছেন অভিনেত্রী।

প্রসঙ্গত, অভিনেত্রী যে নতুন উদ্যোগটি নিয়েছেন সেটি হল সুদিপা চ্যাটার্জী নামেই ব্র্যান্ড তৈরী করেছেন অভিনেত্রী। যেখানে শাড়ি, গয়না থেকে শুরু করে নান ধরণের খাবার যেমন ঘি আচার পাওয়া যাবে। তবে এখুনি সমস্ত কিছু রেডি নয়। আপাতত শাড়ি দিয়েই শুরু হয়েছে কাজ। অনুষ্কা শর্মার বিয়ের শাড়ির একটি ভিডিও অভিনেত্রী শেয়ার করেছেন নিজের সোশ্যাল মিডিয়ার পর্দায়। যার খুবই ভালো রেসপন্স এসেছে।

Related Articles

Back to top button