ভাইরালভিডিও

প্রেমের অপরাধে পাকিস্তানে কলেজ পড়ুয়াদের বরখাস্ত করল কলেজ, প্রপোজের ভিডিও ভাইরাল নেটপাড়ায়

কথায় আছে প্রেম বড় মধুর! তবে প্রেম যে কখনো তিক্ত অভিজ্ঞতাও আনতে পারে তার উদাহরণও নিতান্ত কম নেই। অনেকেই একান্তে মনের মানুষকে নিজের প্রেমের কথা জানান। আবার কেউ কেউ জনসমক্ষে নিজের প্রেমপ্রস্তাব রাখেন। ইদানিং প্রকাশ্যে ফিল্মি কায়দায় প্রপোজ করতে অনেকেই পছন্দ করেন। তবে তার যে ক্ষতিকর পরিণতি হতে পারে সেটা বোধহয় জানা ছিল না এই কাপলের। পাকিস্তানে কলেজে প্রকাশ্যে প্রেমের প্রস্তাব (Love Proposal) দেবার একটি ভিডিও ভাইরাল (Viral Video)হয়ে পড়েছে। আর ভিডিওটি ভাইরাল হতেই বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বের করে দেওয়া হয়েছে ওই দুই পড়ুয়াদের।

তাহলেই বুঝুন! প্রেম না হয় মধুর, দুজনে দুজনকে ভালোবাসে তাই বিয়ের প্রস্তাব দিয়েছে। বিয়ের প্রস্তাবে রাজিও হয়েছে দুজনেই। উক্ত প্রেমিক প্রেমিকা জুটি পাকিস্তানের লাহোর বিশ্ববিদ্যালয়ের (University of Lahore) শিক্ষার্থী। প্রেমের প্রস্তাবে রাজি দুজনেই এতো খুশি কথা, কিন্তু বাঁধ সাধল বিশ্ববিদ্যালয়।

বিয়ের প্রস্তাবে রাজি হবার পর দুজনে একেঅপরকে জড়িয়ে ধরেছেন। আর এই গোটা ঘটনার ভিডিও সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে ভাইরাল হয়ে পড়েছে সোশ্যাল মিডিয়াতে। ভিডিওটি ভাইরাল হয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের নজরে আসে। এরপরেই ওই পড়ুয়াদের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে বহিস্কার করে দেওয়া হয়েছে।

যেমনটা জানা যাচ্ছে ভিডিওটি বিশ্ববিদ্যালয়ের নজরে অসার পর গত শুক্রবার ওই দুই পড়ুয়াদের বিতাড়িত করা হয়েছে। কার কারণ হিসাবে বলা হয়েছে এটি প্রতিষ্ঠানের নিয়ম বিরুদ্ধ, তাই এইরূপ সিদ্ধান্ত। যদিও প্রেম কিন্তু কোনো অপরাধ নয়। আর ভিডিওতে হাঁটু গেঁড়ে ফুল দিয়ে প্রপোজ আমাদের দেশে অনেকেই করে থাকেন। তাঁর জন্য যে এহেন পরিণতি হতে পারে হয়তো ভাবতেও পারেনি ওই প্রেমিকযুগল।

ফুল দিয়ে প্রপোজ করা থেকে শুরু করে একেঅপরকে জড়িয়ে ধরার গোটা ঘটনাটি ক্যামেরাবন্ধী করা হয়েছে। আর সেই ভিডিওটি ইতিমধ্যেই সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার হওয়ার ফলে ব্যাপকভাবে ভাইরাল হয়ে পড়েছে। কিন্তু এরপর কলেজ থেকে বের করে দেওয়া হলে ওই প্রেমিকযুগল জানিয়েছে, ‘প্রেম করে আমরা কোনো অন্যায় করিনি। এর জন্য আমরা কোনোভাবেই অনুতপ্ত নই’।

Related Articles

Back to top button