বিনোদন

“ঠিক এই কারণে বলিউডকে নর্দমা বলি!” রাজ কুন্দ্রার পর্ন কাণ্ডে মুখ খুললেন কঙ্গনা

বলিউডের (Bollywood) তরতাজা অভিনেতা সুশান্ত সিং রাজপুতের (Sushant Singh Rajput) মৃত্যুর ওর থেকেই নানাবিধ চাঞ্চল্যকর ঘটনার সামনে আসার ফলে বিশাল ধাক্কা খায় বলিমহল। সম্প্রতি বলি-অভিনেত্রী শিল্পা শেট্টির (Shilpa Setty) স্বামী রাজ কুন্দ্রা (Raj Kundra) গ্রেফতারির পর থেকে আবারও শোরগোল নেট-দুনিয়ায়! পর্নোগ্রাফির (Pornography) অভিযোগে ধনকুবেরের গ্রেফতারির ঘটনায় এইবার মুখ খুললেন বলি-ক্যুইন (Queen) কঙ্গনা রানাওয়াত (Kangana Ranaut)।

সূত্রের খবর, সোমবার রাতে রাজের গ্রেফতারি এবং মঙ্গলবার পুলিশি হেফাজতের ঘটনা চাউর হতেই নিজ মন্তব্য নিয়ে হাজির কঙ্গনা। ঠোঁটকাটা ভঙ্গিতেই বলিউডকে সরাসরি ‘নোংরা নর্দমা’ বলেন নায়িকা। মঙ্গলবার রাতেই কঙ্গনা জানান, “ঠিক এই কারণেই আমি বলিউড ইন্ডাস্ট্রিকে নর্দমা বলি। চকচক করলেই যে তা সোনা হয় না, আরও একবার প্রমাণিত সেটা। আমি প্রতিজ্ঞাবদ্ধ যে, আগামী প্রোডাকশন ‘টিকু ওয়েডস শেরু’-তে (Tiku Weds Sheru) বলিউডের সব নোংরামি ফাঁস করব। ক্রিয়েটিভ ইন্ডাস্ট্রিতে বিবেকবোধ ও নীতিবোধের ভীষণ প্রয়োজন।”\

যদিও নীতি পুলিশের ভূমিকায় এর আগেও দেখা গেছে ‘মণিকর্নিকা’ (Manikarnika) কঙ্গনাকে। আমির খান ও কিরণ রাওয়ের বিবাহবিচ্ছেদের পর ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে (Instagram Story) তাঁর মহামূল্যবান বক্তব্য পেশ করেন কঙ্গনা। সরাসরি মিস্টার পারফেকশনিস্টকে না চটিয়েই ঘুরপথে মন্তব্য করেন অভিনেত্রী। কনট্রোভার্সি ক্যুইন (Controversy Queen) সম্প্রদায়ের বাইরে বিবাহের বিষয়ে নিজ মতামত প্রকাশ করেন।

Kangna Ranaut

সামাজিক মাধ্যমে (Social Media) কঙ্গনা লেখেন, “আমির খান স্যারের দ্বিতীয় ডিভোর্সের পর একটা কথাই বার বার মনে হয় যে, কোনও মুসলমানকে বিয়ে করতে গেলে কেন ধর্ম পরিবর্তন করাটা আবশ্যিক! ধর্ম পরিবর্তন না করে কি একসঙ্গে থাকা যায় না! একসময়ে পঞ্জাবের প্রতিটি পরিবারে এক ছেলেকে হিন্দু এবং এক ছেলেকে শিখ হিসেবে বড় করা হত। একই পরিবারে কোনও ঝামেলা ছাড়াই যদি হিন্দু, জৈন, বৌদ্ধ, শিখ ধর্মাবলম্বীরা বাস করতে পারেন, তাহলে মুসলিমের ক্ষেত্রে তা হয় না কেন?”

Related Articles

Back to top button