খবরবিনোদনসিনেমা

‘নির্ভয়া’তে দুর্দান্ত অভিনয়, বাংলার মুখ উজ্জ্বল করে সেরা অভিনেত্রী হিসাবে সম্মানিত শ্রীলেখা

টলিউডের জনপ্রিয় ও স্পষ্ট বাদী অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্র (Sreelekha Mitra)। নানা বিতর্ক থেকে শুরু করে অভিনেত্রীর কথার কারণে বহুবার সোশ্যাল মিডিয়া থেকে সংবাদপত্রে ব্যাপকভাবে পরিচিত হতে দেখা গিয়েছে তাকে। তবে সম্প্রতি বাংলার মুখ উজ্জ্বল করলেন অভিনেত্রী। নিজের দুর্দান্ত অভিনয় ছেড়ে তেলেঙ্গানা বাংলা চলচ্চিত্র উৎসবে (Telangana Bengali Film Festival) সেরা সহ অভিনেত্রী হিসেবে সম্মানিত হলেন শ্রীলেখা। জনিতৃ নিজেই এই খুশির খবর জানিয়েছেন অনুগামীদের সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে।

নির্ভয় ছবিটির গল্প মূলত এক নাবালিকার গণধর্ষণ নিয়ে। যার জেরে কিশোরী বয়সে গর্ভবতী হয়ে পড়ে সেই মেয়েটি। ছবিতে অভিনয়ের জন্যই সেরা সহ-অভিনেত্রীর পুরস্কারে সম্মানিত হয়েছেন শ্রীলেখা। ছবিতে একজন সমাজ সেবিকা ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি। তার চরিত্রের নাম ছিল নন্দিতা। আর অন্তঃসত্ত্বা কিশোরীর চরিত্রে ছিল একসময়ের পটল কুমার সিরিয়ালের অভিনেত্রী হিয়া দে।

Sreelekha Mitra

সমাজসেবী নন্দিতা অর্থাৎ শ্রীলেখা ছবিতে পিয়ালীর পাশে দাঁড়িয়েছিল। সন্তানের জন্ম না দেওয়ার অধিকার আইনি লড়াইয়ে নির্ভয়ার পাশে দাঁড়িয়েছিলেন নন্দিতা। তবে নিজের অভিনয়ের দক্ষতা আবারও প্রমাণ করেছেন অভিনেত্রী। সেই কারণেই সেরা সহ-অভিনেত্রীর ভূমিকায় অভিনয় করেছিলেন তিনি।এবার সেই ছবির স্ক্রিনিংয়ের জন্য তেলেঙ্গানা হায়দরাবাদে উপস্থিত হয়ছেন। অবশ্য একা নয়, সাথে ছিলেন বিরসা দাশগুপ্ত, অংশুমান প্রত্যুষ, বিদিপ্তা চক্রবর্তী ও গৌরব চক্রবর্তী ইত্যাদি অভিনেতার। সকলে মিলে উড়ে গিয়েছে ফিল্ম ফেস্টিভালে।

হায়দ্রাবাদ পৌঁছেই একটু ছবি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছেন তিনি। ছবিতে বাকিদের সাথে দেখা মিলেছে অভিনেত্রীর। সাথে অভিনেত্রী লিখেছিলেন, ‘ জয় সর্বদায় আত্মবিশ্বাস বাড়িয়ে তোলে ‘। এরপর অভিনেত্রী পুরস্কার ও সার্টিফিকেটের ছবিও সাড়ে করেছেন সোশ্যাল মিডিয়াতেও। যা বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে কয়েক ঘণ্টার মধ্যেই।

প্রথমে অভিনেত্রীকে সবুজ রঙের গোলাপি পাড়ের একটি শাড়ি পরে দেখা গিয়েছে, সাথে খোলা চুলে দুর্দান্ত লুক। পুরস্কার পেয়ে আপ্লুত অভিনেত্রী লিখেছেন, ‘জেতা সব সময়েই মনবল বাড়িতে তোলে। অনেক ধন্যবাদ তেলেঙ্গানা চলচ্চিত্র উৎসবকে। পরিচালক ধন্যবাদ টিম নির্ভয়া, পরিচালক অংশুমান প্রত্যুষ ও সুমনা কাঞ্জিলালকেও।

Related Articles

Back to top button