গসিপছবিবিনোদন

কোনও সুন্দরী নায়িকা নয়, ব্যবসায়ী কন্যাদের জীবনসঙ্গী হিসাবে বেছেছেন এই ৬ নামী সাউথ সুপারস্টার

বিনোদন ইন্ডাস্ট্রির মানুষদের জীবন নিয়ে সাধারণ মানুষদের আগ্রহ সবসময় তুঙ্গে থাকে। আর যদি তাঁদের ব্যক্তিগত জীবন নিয়ে কোনও কথা হয়, তাহলে তো কোনও কথাই নেই। তারকাদের বিয়ে থেকে শুরু করে সন্তান- অনুরাগীদের সব বিষয়েই প্রবল আগ্রহ। বিনোদন দুনিয়ায় এমন বহু তারকা (Celebrities) রয়েছেন যারা নায়িকাদের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছেন। আবার এমনও অনেকে রয়েছেন যারা ব্যবসায়ী কন্যাদের সঙ্গে সাত পাক ঘুরেছেন। আজকের প্রতিবেদনে এমনই তারকাদের নাম তুলে ধরা হল।

আল্লু অর্জুন এবং স্নেহা রেড্ডি (Allu Arjun and Sneha Reddy)- তালিকার প্রথম নামটিই হল ‘পুষ্পা’ খ্যাত অভিনেতা আল্লু অর্জুনের। ২০১১ সালে স্নেহা রেড্ডির সঙ্গে সাত পাক ঘুরেছিলেন তিনি। স্নেহা কাঞ্চরালা চন্দ্রশেখর রেড্ডি এবং কবিতা রেড্ডির মেয়ে। কাঞ্চরালা চন্দ্রশেখর রেড্ডি ইনস্টিটিউট অফ সায়েন্টিফিক টেকনোলজির সভাপতি এবং একজন সফল ব্যবসায়ী।

Allu Arjun and Sneha Reddy

জুনিয়র এনটিআর এবং লক্ষ্মী প্রণতি (Jr NTR and Lakshmi Pranathi)- দক্ষিণী সুপারস্টার জুনিয়র এনটিআরের নামও তালিকায় রয়েছে। তাঁর এবং প্রণতির বিয়ে ছিল সাউথের সবচেয়ে দামি বিয়েগুলির মধ্যে একটি। ‘আরআরআর’ তারকার শ্বশুর একজন খুব বড় ব্যবসায়ী এবং একটি তেলেগু সংবাদমাধ্যমের মালিক। এছাড়াও তাঁর মা হলেন নামী রাজনীতিবিদ চন্দ্রবাবু নায়ুডুর ভাইঝি।

Jr NTR and Lakshmi Pranathi

থালাপতি বিজয় এবং সঙ্গীতা সোর্নালিঙ্গম (Thalapathy Vijay and Sangeeta Sornalingam)- ২০১৭ সালে থালাপতি বিজয় তাঁর অনুরাগী সঙ্গীতার সঙ্গে সাত পাক ঘোরেন। তাঁদের দু’টি সন্তানও রয়েছে। সঙ্গীতার পিতা শ্রীলঙ্কার নামী ব্যবসায়ী।

Thalapathy Vijay and Sangeeta Sornalingam

রাম চরণ এবং উপাসনা কামিনেনি (Ram Charan and Upasana Kamineni)- ‘আরআরআর’ খ্যাত রাম চরণকে দেখে যে রোজ কত মেয়েক্রাশ খায় তা গুনে শেষ করা যাবে না। তবে অভিনেতা ২০১২ সালে উপাসনার সঙ্গে সাত পাক ঘুরেছেন। উপাসনা হলেন অ্যাপোলো ফাউন্ডেশনের ভাইস চেয়ারপার্সন অনিল কামিনেনির কন্যা এবং উপাসনার দাদা প্রতাপ সি রেড্ডি হলেন অ্যাপোলো হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা।

Ram Charan and Upasana Kamineni

রানা ডাগ্গুবাতি এবং মিহিকা বাজাজ (Rana Daggubati and Miheeka Bajaj)- লকডাউনের মধ্যে ‘বাহুবলী’র ভাল্লালদেব মিহিকা বাজাজের সঙ্গে গাঁটছড়া বেঁধেছিলেন। শোনা গিয়েছে, মিহিকা পেশায় একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার। তাঁর মা কৃশালা জুয়েলার্সের ক্রিয়েটিভ হেড এবং নির্দেশক।

Rana Daggubati and Miheeka Bajaj

দুলকির সলমন এবং আমাল সুফিয়া (Dulquer Salmaan and Amal Sufiya)- সাউথের অন্যতম সুদর্শন এবং প্রতিভাবান অভিনেতাদের মধ্যে একজন হলেন দুলকির সলমন। তাঁর মিষ্টি হাসিতে মন গলেছে বহু মেয়ের।

Dulquer Salmaan and Amal Sufiya

সেই দুলকির সলমন ২০১১ সালের ২২ অক্টোবর আমাল সুফিয়াকে বিয়ে করেন। তিনি পেশায় একজন ইন্টেরিয়র ডিজাইনার এবং তাঁর পিতা হলেন চেন্নাইয়ের একজন নামী ব্যবসায়ী।

Related Articles

Back to top button