খবরবিনোদনসিরিয়াল

মেদহীন চেহারা পাওয়ার শখে প্লাস্টিক সার্জারিই কাল হল! অকালে প্রাণ হারালেন সাউথের এই অভিনেত্রী

বিনোদন জগত মানেই ঝাঁচকচকে গ্লামার ওয়ার্ল্ড। যার নাম, যশ খ্যাত এবং বিপুল অর্থের হাতছানি উপেক্ষা করার ক্ষমতা নেই কারও। আর এই ফিল্মি দুনিয়ায় টিকে থাকার লড়াইয়ে সকলের জন্যই বিশেষ করে অভিনেত্রীদের কাছে অন্যতম প্রধান হাতিয়ার হল তাদের এভারগ্রীন রূপ-যৌবন। কিন্তু সৌন্দর্য এমনই একটা জিনিস যার জৌলুস সময়ের সাথে সাথেই ক্রমশ ফিকে হতে শুরু করে। তবে বয়সকে নিজেদের হাতের মুঠোয় রাখতে অভিনেত্রীদের কাছে প্লাস্টিক সার্জারির বিষয়টি আজকাল জলভাতে পরিণত হয়েছে।

তাই রেখাজি, শ্রীদেবী,কিংবা মাধুরী দিক্ষীতের মতো এজলেস বিউটিদের মতো আজীবন নির্মেদ ফিগার আর সৌন্দর্য ধরে রাখতে অনেকেই নানা ধরনের প্লাস্টিক সার্জারি করে থাকেন। এবার এই একই পথে হেঁটে ‘ফ্যাট ফ্রি’ (Fat Free) প্লাস্টিক সার্জারি (Plastic Surgery) করে নিজেকে আরও বেশী সুন্দরী করে তুলতে চেয়েছিলেন কন্নড় অভিনেত্রী চেতনা রাজ (Chethana Raj)। আর সেটাই কাল হয়ে দাঁড়াল তাঁর জীবনে। যার ফলে মাত্র ২১ বছর বয়সেই অকালে প্রাণ হারালেন সাউথের এই জনপ্রিয় অভিনেত্রী। প্রসঙ্গত ‘গীতা’, ‘দোরেসানি’ -র মতো জনপ্রিয় ধারাবাহিকে অভিনয় করেছেন চেতনা।

ছিপছিপে সুন্দর ফিগার পাওয়ার আশায় বাবা-মাকে না জানিয়ে নিজে নিজেই সোমবার ব্যাঙ্গালোরে ডক্টর শেট্টির কসমেটিক সেন্টারে ভর্তি হয়েছিলেন চেতনা। সেদিন ওই হাসপাতালেই চেতনার সার্জারি হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু চিকিৎসা শুরু হতেই অভিনেত্রীদের ফুসফুসে সমস্যা তৈরি হয়। শুরু হয় চেতনার প্রবল শ্বাসকষ্ট। এরপরই তার ফুসফুসে ক্রমশ জল জমতে শুরু করে।

কিন্তু ওই কসমেটিক সেন্টারে কোনো আইসিইউ না থাকায়, সেসময় অভিনেত্রীকে দ্রুত মঞ্জুলা নগরের কাদে হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়। কিন্তু ওই হাসপাতালের চিকিৎসকদের দাবি ততক্ষণে মৃত্যু হয়েছে চেতনার। সেটা ওই কসমেটিক সেন্টারের কর্মীরা জানতেন। তা সত্ত্বেও তাদের হুমকি দেওয়া হয় কেউ যেন এ বিষয়ে মুখ খোলেন। আর তারা ক্রমাগত বলতে থাকেন রোগী হৃদরোগে আক্রান্ত হয়েছেন।

কাদে হাসপাতালের চিকিৎসকরা জানিয়েছেন তখন ঘড়িতে বাজে ৫:৩০। তখন চেতনার কোন সাড়া ছিল না, পালস পাওয়া যাচ্ছিল না। ওই অবস্থায় টানা ৪৫ মিনিট ধরে চিকিৎসকরা চেতনাকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা করে তাঁর বুকে পাম্প করতে শুরু করেন। কিন্তু কোনো লাভ হয়নি। এরপর সোমবার সন্ধ্যা ৭ টায় চেতনাকে মৃত বলে ঘোষণা করা হয়। চেতনার পরিবারের তরফে তাদের মেয়ের জন্য কসমেটিক হাসপাতালের চিকিৎসকদের দায়ী করে চিকিৎসায় গাফিলতির অভিযোগ করা হয়েছে। জানা গেছে অভিনেত্রীর মৃত্যুর কারণ জানতে তাঁর দেহ ময়না তদন্তের জন্য এম আর রামাইয়া হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হবে।

Related Articles

Back to top button