সৌজন্যকে ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে গিয়েছিল গুনগুন ! মনোমালিন্য কাটিয়ে এবার কাছাকাছি ‘সৌগুন’


অন্যান্য সব ধারাবাহিককে টেক্কা দিয়ে এখন টিআরপি (TRP) শীর্ষে রয়েছে জনপ্রিয় সিরিয়াল খড়কুটো (Khorkuto)। ৭.৩০ টা বাজলেই প্রতিটা বাড়িতেই একই সঙ্গে শুরু হয়ে যায় এই সিরিয়াল দেখার ধুম। তার একটাই কারণ, এই ধারাবাহিকে কাহিনির নতুনত্ব, একান্নবর্তী পরিবারে মিলেমিশে থাকার মজা আর, সৌগুনের মিষ্টি প্রেম। কিন্তু সাম্প্রতিক পর্বে দেখা যাচ্ছে ক্রমেই দূরত্ব বাড়ছে গুনগুন সৌজন্যর। তাদের সম্পর্কের মধ্যে  দাঁড়িয়েছে সৌজন্য-র সহকর্মী তিন্নি দিদি। সৌজন্যর সঙে তার মেলামেশা স্বাভাবিক ভাবেই মেনে নিতে পারেনি গুনগুন। আর সেই কারণেই সে মুখার্জি বাড়ি ছেড়ে বাপের বাড়ি চলে  আসে। আর তাই পুরো মুখোপাধ্যায় পরিবারকে কাঠগড়ায় দাঁড় করিয়ে দিয়েছে নেটমাধ্যম।

সৌজন্য এবং গুনগুন দুজন দুজনকে ভালোবাসলেও মুখে বলে উঠতে পারতো না এতদিন ,আর টাইজন্যেই হয়ত তিন্নি দিদির মতো তৃতীয় ব্যক্তিরা তাদের জীবনে অশান্তি বয়ে আনার সুযোগ পেত। কিন্তু গুনগুনকে ছাড়া মুখার্জি পরিবার যেন নুন ছাড়া তরকারি তাই তাকে ফেরাতে পরনে গেরুয়া বসন, মাথায় চন্দনের তিলক, হাতে খঞ্জনি নিয়ে ডাক্তারবাবুর বাড়ির সামনে হত্যে দিয়েছে মুখার্জি পরিবার। তাদের লক্ষ্য ঘরের লক্ষ্মী গুনগুনকে ঘরে ফেরানো। মান  অভিমানে ভরা এই পর্ব গুলি বেশ উপভোগ করছেন দর্শকরা। তবে তাদের একটাই চাহিদা ববিন গুনাগুনের মিল দেখতে চান তারা।

তাই যতই পরিবারের লোক বলুক ববিন না বললে রাগ ভাঙার কথা নয় গুনগুনের। তাই অবশেষে ববিন কাছে আসতেই গোলে গেল বরফ। দুজনের মান অভিমান নিমেষে হয়ে গেল জল। একটি ভাইরাল ভিডিওতে দেখা গেসিগে ,মুখোমুখি বসে রাগ মেটাচ্ছে সৌগুন। স্বভাবচিত ভঙ্গিতে সৌজন্য গুনগুনকে বোঝাতে থাকে ভালোবাসার আসল মানে ,আর সাথে সাথেই কাঁদতে কাঁদতে সৌজন্য কে জড়িয়ে ধরে গুনগুন্। দরজার বাইরে থেকে এহেন মধুর দ্রৃসি দেখে বেজায় খুশি পরিবারের সকলেই।

 


 


Like it? Share with your friends!

661
661 points