বিনোদনসিরিয়াল

ছেলে দেখার জন্য মণ্ডপে বসে থাকতাম! পুজো প্রেম নিয়ে স্মৃতির ঝাঁপি খুললেন সোনামণি  

পুজো এসে গিয়েছে, এই মুহূর্তে গোটা বাংলা জুড়ে বাজছে আগমনীর সুর। আকাশে ঘন কালো মেঘের মধ্যে থেকেই মাঝেমধ্যে উঁকি দিচ্ছে রোদ্দুরের ঝলকানি। সব মিলিয়ে পূজোর গন্ধে ম ম করছে বাংলার আকাশ বাতাস। প্রচুর কটা দিন সমস্ত মর্ত্যবাসি মেতে ওঠেন উৎসবের আনন্দে। সাধারণ মানুষ হোক কিংবা সেলিব্রিটি এই কটা দিন সমস্ত ব্যস্ততা থেকে একটু হলেও অবসর চাই সকলেরই।
পুজো মানে শুধু উৎসব নয় বাঙালির কাছে দুর্গাপুজোর সাথে জড়িয়ে রয়েছে পুরনো অনেক স্মৃতি, অনেক আবেগ। সেই ছোটবেলায় বাবা মায়ের হাত ধরে পুজো মণ্ডপে গিয়ে ঠাকুর দেখা থেকে শুরু করে বড় হয়ে বন্ধুবান্ধবদের সাথে পাড়ার পুজো মন্ডপে বসে আড্ডা দেওয়া, সবটাই মনে পড়ে যায় এক নিমেষে। ব্যতিক্রম নন সেলিব্রেটিরাও। পুজো নিয়ে সকলেরই কমবেশি নানান স্মৃতি থেকেই থাকে। এবার পুজোর আগে নিজের পুরোনো স্মৃতির ঝাঁপি খুলে বসলেন জনপ্রিয় টেলি অভিনেত্রী সোনামণি সাহা।
বর্তমানে কলকাতায় থাকলেও সকলের প্রিয় ‘মোহর’ আসলে মালদহের বাসিন্দা। ছোট থেকেই জীবনের   অনেকগুলো পুজো কাটিয়েছেন তিনি সেখানেই। স্বাভাবিকভাবে যার অনেক মিষ্টি স্মৃতি রয়েছে অভিনেত্রীর মনের মনিকোঠায়। সম্প্রতি আনন্দবাজার অনলাইনে পুজো স্পেশাল একটি সাক্ষাৎকারে খোলামেলা আড্ডায় বসেছিলেন অভিনেত্রী।
সেখানে অভিনেত্রী জানিয়েছেন ছোট থেকে তার পুজোটা কেটেছে খুবই সাধারণভাবেই। তবে সেই সময় দশমীর দিনটা কাছে এলে তার মনের মধ্যে একটা অদ্ভুত কষ্ট থাকতো। চারপাশটা কেমন খালি খালি লাগত অভিনেত্রীর। মনে হত তার কেউ নেই জীবনে। তবে সময়ের সাথে সাথে  জীবনে ব্যস্ততা বাড়তে থাকায় এখন আর পুজোটাই সেইভাবে উপভোগ করা হয় না অভিনেত্রীর। তাই দশমীর দিনগুলোতে এখন আর সেই শূন্যতা গ্রাস করে না অভিনেত্রীকে।
বাঙালির কাছে পুজো মানেই তার সাথে ওতোপ্রোতোভাবে জড়িয়ে আছে প্রেম। এদিন সোনামণিও কথা বললেন তাঁর পুজো প্রেম নিয়েও। পুজোর দিনগুলোতে অভিনেত্রী নাকি ছেলে দেখার জন্য গিয়ে বসতেন পুজো মণ্ডপে। সেখানেই দূর দূর থেকে অনেক ছেলেরা আসত।  কে কেমন সাজলো, কাকে কেমন লাগছে তা দেখার জন্যই তিনি সেখানে বসে থাকতেন বন্ধুদের সাথে। সেই সময় যখন ছেলেরা তার সামনে দিয়ে যেত তখন ওই চোখে চোখে প্রেম টুকুই হত। আর তা  ছিল পুজোর দিনগুলোতেই সীমাবদ্ধ।
 কিন্তু এখন অভিনেত্রীর পুজো কাটে বাড়িতে বসেই।যদিও সেটা তাঁর কলকাতার বাড়ি। তবে পুজোর জন্য নাকি অভিনেত্রী প্রচুর কেনাকাটা করেন, তবে তিনি বুঝতে পারেন না কোন দিন কোন পোশাক পড়ে কোথায় তিনি যাবেন!এছাড়া অভিনেত্রী জানিয়েছেন পুজোর দিনগুলোতে কলকাতার বিভিন্ন সব স্পেশাল স্ট্রিট ফুড গুলো খেতে তিনি ভালবাসেন। তালিকায় রয়েছে ভেলপুরি,পাপড়ি চাট, ঘুগনি,ফুচকা ইত্যাদি।

Related Articles

Back to top button