বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

মিঠাইয়ের সাইকেল নিয়ে জীবনে প্রথম বাজারে গেল উচ্ছে বাবু! মাছ কিনতে গিয়েও করে বসল মস্ত ভুল

মিঠাই (Mithai) সিরিয়াল থেকে যেন চোখ সরানোই যাচ্ছে না আর! একেরপর এক ধামাকা হচ্ছে মোদক পরিবারে। প্রথমে মিঠাইয়ের সাথে থাকতে একেবারেই নারাজ ছিল সিদ্ধার্থ। সেই কারণেই মিঠাইয়ের সাথে ডিভোর্সর জন্য উঠে পরে লেগেছিল সে। এই সুযোগে মিঠাইকে বাড়ি থেকে বের করতে সমস্ত চেষ্টা করেছে সিডের প্রেমিকা তোর্সা। তবে সব কলকাঠি নাড়াই বিফলে গিয়েছে। কারণ শেষ পর্যন্ত মিঠাইকে ডিভোর্স দেবার থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন সিদ্ধার্থ।

রথযাত্রা স্পেশাল পর্বেই তোর্সার মুখের উপর সিদ্ধার্থ জানিয়ে দিয়েছে যে সে মিঠাইকে ডিভোর্স দিচ্ছে না। এরপর থেকেই বদলে গিয়েছে সিরিয়ালের কাহিনী। বাড়ির সকলের চাপে মিঠাইকে এক মাসের জন্য বৌয়ের মর্যাদা দিতে রাজি হয়েছে সিড। অর্থাৎ এক মাসের জন্য সিদ্ধার্থ আর মিঠাই এখন স্বামী স্ত্রী। এবার একমাস সংসার ধর্ম পালন করবে দাদুর রাগী নাতি।

ডিভোর্সের পর সিদ্ধার্থ মিঠাইয়ের ফুলশয্যা Mithai Serial Flowerbed

ইতিমধ্যেই ফুলশয্যার পর্ব দেখানো হয়ে গিয়েছে। যেখানে মিঠাইকে সাজিয়ে গুছিয়ে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে সিদ্ধার্থের ঘরে। ফুলশয্যার রাত ঝগড়ার মধ্যে দিয়ে শুরু হলেও শেষে মিঠাই সিদ্ধার্থের হালকা রোমান্স দেখতে পাওয়া গিয়েছে। মিঠাইয়ের গয়না খুলতে সাহায্য করেছে সিদ্ধার্থ। টেপ একই বিছানায় দুজনে শুয়েছে।

ফুলশয্যার পরের দিন মিঠাইয়ের হাতের লুচি আলুর দম খাবার জন্য রাজি করানো হয়েছে সিদ্ধার্থকে। আর ছুরি ও কাঁটা চামচ দিয়ে সিদ্ধার্থের লুচি খাবার ভিডিও দেখে রীতিমত চোখ কপালে উঠেছে মিঠাই থেকে শুরু করে বাড়ির সকলের। এমনভাবেও যে লুচি খাওয়া যেতে পারে এটা মিঠাই সিরিয়ালের মোদক পরিবার তো বটেই হয়তো দর্শকেরাও ভাবতে পারেননি। সিদ্ধার্থের এই লুচি খাবার ভিডিও বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছিল সোশ্যাল মিডিয়াতে।

এবার বাড়িতে চিতল মাছের মুইঠা তৈরী পালা। আর মাছ রান্নার জন্য সিদ্ধার্থেকেই বাজারে পাঠানোর চ্যালেঞ্জ হয়েছে। সবাই জোরাজুরি করে রাজিও হয়েছে সিড। আর বাজারে যাবার জন্য গাড়ি বের করতে যেতেই মিঠাই নিজের সাইকেল মুন্নিকে নিয়ে যাবার জন্য বলে। প্রথমে রাজি না হলেও শেষে মিঠাইয়ের মুন্নিকে নিয়েই বাজারে রওনা দেয় দাদুর রাগী নাতি।

এরপর বাজারে গিয়ে চিতল মাছের ছবি দেখে মাছ কিনতে গিয়ে চিতল মাছের বদলে আর মাছ নিয়ে বাড়ি এসেছে  সিদ্ধার্থ। যদিও বাড়ির সকলের সামনে সিদ্ধার্থ মাছ এনে নিজের বড়াই করতে মিঠাই ভুলটাকেই মেনে নিয়েছে। সকলকে লুকিয়ে আর মাছ দিয়েই তৈরী করেছে মুইঠা। এই ভাবেই হয়তো মিঠাইকে ধীরে ধীরে চিনতে পেরে মিঠাইরানীর ভালোবাসার বন্ধনে জড়িয়ে পড়বে সিদ্ধার্থ।

Related Articles

Back to top button