বিনোদনসিরিয়াল

যাকে দুচোখে দেখতে পারত না সেই মিঠাইকে ডিভোর্স দিতে চাইছে না সিড! তোর্সার জীবনেও এল নতুন মোড়

বাঙালির প্রিয় মিঠাই (Mithai) সিরিয়ালের বর্তমানে ডিভোর্সের পর্ব চলছে। মিঠাই আর সিদ্ধার্থের ডিভোর্সের জন্য উঠে পরে লেগেছে তোর্সার মা। কারণ তোর্সার ইচ্ছা যতদ্রুত সম্ভব সিড অর্থাৎ সিদ্ধার্থ আর মিঠাইকে আলাদা।  রবীন্দ্র জয়ন্তীর দিনেই মাকে নিয়ে মোদক পরিবারে হাজির হয়েছিল তোর্সা। খুশির দিনেই জল ঝরেছিল মিঠাইয়ের চোখ থেকে। এবার সেই ডিভোর্স যত তাড়াতাড়ি সম্ভব করতে চাই তোর্সা। এবার বাড়িতে এসে দাদুর সামনেই মিঠাই-সিদ্ধার্থের ডিভোর্স নিয়ে শুরু হয়েছে কথা বার্তা।

ডিভোর্সের কথা চালু হতেই সিদ্ধার্থ আর মিঠাই দুজনের মনেই বিয়ে থেকে শুরু করে নানান স্মৃতি ঘুরে বেড়াচ্ছে বারবার। সত্যি বলতে যে মিঠাইকে দুচোখে দেখতে পারতো না সিড, সেই মিঠাইয়ের প্রেমেই ধীরে ধীরে ধরা দিচ্ছে সে। মিঠাইকে বরাবর তুফান মেল বলেই অভ্যস্ত সিদ্ধার্থ কিন্তু বর্তমানে তাকে মিঠাই নামেই ডাকছে সে। অন্যদিকে ডিভোর্সের কথা যতবারই উঠেছে ততবারই মিঠাইয়ের ভবিষ্যৎ নিয়ে মিঠাইকে নিয়ে বেশ চিন্তায় পড়তে দেখা যাচ্ছে সিদ্ধার্থকে। অর্থাৎ বোঝাই হচ্ছে অদৃশ্য প্রেমের বাঁধনে বাধা পড়েছে মিঠাই-সিদ্ধার্থ।

এদিকে তোর্সার মা রেবতীর মতে কোর্টে মিউচুয়াল ডিভোর্সের আবেদন দিতে হবে। যেখানে নাকি মিঠাইকে বলতে হবে, ‘এই বিয়েটাকে বিয়ে বলে আমি মানিই না। এই সম্পর্কের কোনো মানেই হয় না, আমি এই সম্পর্কে খুশি নই তাই ডিভোর্স চাইছি’। তোর্সার মায়ের মুখে এই সমস্ত কথা শুনেই বুকের ভেতরটা মোচড় দিয়ে ওঠে মিঠাইয়ের। দুচোখ বেয়ে নেমে আসে জল, যেটা সিদ্ধার্থ মুখে প্রকাশ না করলেও মন থেকে মেনে নিতে পারেনি।

সিদ্ধার্থ সাথে সাথেই প্রতিবাদ করে ওঠে, মিঠাইয়ের তো কোনো অসুবিধা হচ্ছে না এ বাড়িতে। তাছাড়া মিঠাই ভালোই আছে এখানে কাজ আর পরিবারের সকলকে নিয়ে। দাদু থেকে শুরু করে পরিবারের সকলেই মিঠাইকে যথেষ্ট ভালোবাসে আর মিঠাইও পরিবারের সকলকে খুব ভালোবাসে। তাহলে ও কেন এই সমস্ত কথা কোর্টে বলতে যাবে! এখানেই শেষ নয় এর পর ডিভোর্সের কাগজ দেখলে সিদ্ধার্থ বুঝতে পারে, কাগজে মিঠাই-সিদ্ধার্থের বিয়ের বসায় একবছর বাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে।

মিঠাই-সিদ্ধার্থকে নিয়ে যখন এই সব চলছে তখনই সিডের প্রেমিকার জীবনেও কিন্তু নতুন মোড় আসতে দেখা যাচ্ছে। কারণ রাগের মাথায় তোর্সা সিডকে ফোন করে বলে, ‘তোমার জন্য  মিঠাই হল একেবারে উপযুক্ত। আমাকে ঠিক মানাবে না তোমার সাথে’। এদিকে সিডের সাথে দূরত্ব বাড়তে সোমদার সাথে কথা বাড়ছে তোর্সার। তবে কি সোমদার সাথে শুরু হবে তোর্সার প্রেমের ট্রায়াঙ্গল? এবার সেটাই দেখার অপেক্ষা।

Related Articles

Back to top button