বিনোদন

প্রাক্তন স্বামীর হাতে শারীরিক নিগ্রহের শিকার শোয়েতা তিওয়ারি! সিসিটিভি ফুটেজ প্রকাশ করলেন অভিনেত্রী

‘নাচ বালিয়ে’ (Nach Baliye), ‘বিগ বস’ (Bigg Boss)-র মত শোয়ের হাত ধরে উত্থান হয় অভিনেত্রী শোয়েতা তিওয়ারির (Shweta Tiwari)। যদিও ‘কসাউটি জিন্দেগী কে’ (Kasautii Zindagii Kay) মেগা ধারাবাহিকের দৌলতে সকলের নজরে আসেন এই অভিনেত্রী। পরবর্তীতে বেশ কিছু চলচ্চিত্রেও অভিনয় করেন শোয়েতা। বয়স চল্লিশের দোরগোড়ায় পৌঁছালেও এখনও যেরকম তন্বী শোয়েতা, তাতে চমকে যান সকলেই।

সদা হাসিখুশি এই অভিনেত্রী ভাল নেই, তার প্রমাণ সাম্প্রতিক ঘটনাতেই।প্রাক্তন স্বামী অভিনব কোহলির (Abhinav Kohli) বিরুদ্ধে শারীরিক অত্যাচারের ‌(Physical Torture) অভিযোগ তুলেছিলেন টেলি অভিনেত্রী। সেই ঘটনায় নিজের স্বপক্ষে প্রমাণ পেশ করলেন শোয়েতা। সোমবার রাতে সোশ্যাল মঞ্চে (Social Media) আবাসনের সিসিটিভি ফুটেজ (CCTV Footage) পোস্ট করেন শোয়েতা!

ইনস্টাগ্রামে দু’টি ভিডিয়ো পোস্ট করেন শোয়েতা। প্রথম ভিডিয়োয় এক মহিলাকে শারীরিক হেনস্থা করতে দেখা যায় এক পুরুষকে। যদিও তাঁদের মুখ স্পষ্ট দেখা যায়নি ভিডিয়োয়। মহিলার কোলের শিশুকে কেড়ে নিয়ে মহিলাকে মাটিতে ফেলে শিশুকে কোলে করে চলে যান ওই পুরুষ। দ্বিতীয় ভিডিয়োয় দেখা যায় তাঁদের পুত্র সন্তান রেয়াংশকে। বিছানায় কম্বলের তলায় লুকিয়ে থাকতে দেখা যায় তাকে। ২য় ভিডিয়োটি সম্ভবত শোয়েতার কন্যা পলকের (Palak Kohli) করা। ভিডিয়োয় পলককে বলতে দেখা যায়, “ভয় পাওয়ার কিছু নেই সোনা। দিদি আছে তো তোমার সাথে।” অন্যদিকে ঘরের বাইরে দম্পতিকে উত্তেজিত হয়ে কথা বলতে দেখা গেলেও তাঁদের কথা শোনা যায়নি ভিডিয়োয়।

 

ভিডিয়ো পোস্ট করে শোয়েতা লেখেন, “এই নিন প্রমাণ। আবাসনের এই ঘটনার পর থেকে আমার ছেলের মানসিক স্থিতি নষ্ট হয়ে গেছে। টানা এক মাস ঘুমাতে পারেনি ও”। স্বামীর বিরুদ্ধে ছেলেকে নির্যাতনের অভিযোগও করেন অভিনেত্রী।

সূত্রের মতে, ৩-৪ দিন আগে থেকেই প্রকাশ্য-কলহে জড়িয়ে পড়েছে এই প্রাক্তন দম্পতি। সম্প্রতি অভিনব অভিযোগ করেছেন, “অতিমারির মাঝে বছর পাঁচেকের রেয়াংশকে মুম্বইয়ের এক হোটেলে রেখে দিয়ে নিজে এক রিয়েলিটি শো-তে অংশগ্রহণ করতে চলে গিয়েছিল শোয়েতা”। বর্তমানে দক্ষিণ আফ্রিকার (South Africa) কেপ টাউনে (Cape Town) রয়েছেন অভিনেত্রী। স্বামীর অভিযোগ অস্বীকার করে শোয়েতার সাফ কথা, “রেয়াংশকে একা ফেলে যাইনি আমি। আমার মা-বাবা দেখাশোনার দায়িত্বে ছিলেন”।

 

Related Articles

Back to top button