খবরভাইরালভিডিও

সোনামণিকে নিয়ে ভুল তথ্য প্রকাশ সংবাদপত্রের! নাম না করে অনলাইনে প্রতিবাদ জানালেন গায়ক শিলাজিৎ

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে আজকাল মুহূর্তের মধ্যেই খবর পৌঁছে যায়। ভাইরাল ভিডিওর মাধ্যমে যে কোনো ঘটনা মুহূর্তের মধ্যেই লক্ষ লক্ষ মানুষের কাছে পৌঁছায়। এমনই বীরভূমের গড়গড়িয়া গ্রামের বাসিন্দা সোনামণি রুজ। সোনামণির স্বপ্ন টলিউডের অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়কে ছুঁয়ে দেখার। সোনামনি  বিখ্যাত গায়ক শিলাজিৎ এর গ্রামতুতো বোন। সম্প্রতি তাকে নিয়ে সংবাদমাধ্যমে খবর ছাপাও হয়েছে। কিন্তু খবরে ভুল তথ্য দেওয়া হয়েছে। এবার সেই কারণেই অনলাইনে নিন্দা করলেন শিলাজিৎ মজুমদার।

আসলে আগেই শিলাজিৎ মজুমদার নিজের গ্রাম বীরভূম থেকে একটি ভিডিও শেয়ার করেন সোশ্যাল মিডিয়াতে। যেখানে তাঁর সাথেই ছিল সোনামণি। ভিডিওটি প্রথমেই শিলাজিৎ বলেন, ‘সোনামণি একবার বুম্বাদাকে দেখতে চায়। আমি তোমায় বলেছিলাম কিন্তু ও বিশ্বাস করে না। গ্রামে এলেই সোনামণি প্রসেনজিৎ এর সাথে দেখা করার কথা বলে’। এরপর সোনামণি নিজেই তার ইচ্ছার কথা সকলকে জানায়।

শিলাজিৎ এর মাধ্যমে সোনামণির এই বার্তা পৌঁছেছে প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে। নিজের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজে একটি ভিডিও বার্তায় অভিনেতা জানিয়েছেন এতো ভালোবাসা পেয়ে তিনি আপ্লুত। সাথে শিলাজিৎকে অনেক ধন্যবাদ সোনামণির বার্তা পৌঁছে দেবার জন্য। করোনা পরিস্থিতি ঠিক হলে তিনি অবশ্যই সোনামণির সাথে দেখা করতে যাবেন। তবে তাঁর আগে ভিডিও কলের মাধ্যমে অবশ্যই কথা বলবেন তিনি।

প্রসেনজিতের এই ভিডিও বার্তাও বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে। ইতিমধ্যেই অনেক সংবাদমাধ্যমেও দেখা গিয়েছে এই খবর। তবে সম্প্রতি এক দৈনিক সংবাদপত্রে এই বিষয়ে খবর ছাপা হলেও ভুল তথ্য দিয়ে ছাপানো হয়েছে। এবার সেই খবরের কাগজ হাতে নিয়েই সাংবাদিকের প্রতি বার্তা দিলেন শিলাজিৎ।

ফেসবুকে একটি ভিডিও শেয়ার করেছেন গায়ক যেখানে তিনি একে একে জানিয়েছেন প্রথমত সোনামণির যে ছবি সংবাদ পত্রে ছাপানো হয়েছে সেটা একেবারেই ভুল তথ্যে ভুরপুর। কারণ ছবিতে কোনো এক ছোট্ট মেয়ের ছবি রয়েছে, সোনামণি নাম হলেই যে ছোট্ট সোনামণি হবে সেটা কিন্তু একেবারেই নয়। যে সোনামণির সাথে তিনি পরিচয় করিয়েছেন সকলের তার বয়স ৩০ বছর। এরপর তিনি আরও জানান ঠিকানাটা পর্যন্ত ভুল, কারণ গড়গড়িয়া পাঁড়ুই থানার অন্তর্গত সিউড়ি থানার অন্তর্ভুক্ত নয়।

সংবাদমাধ্যমের প্রতি মজার ছলেই বেশ খানিকটা কড়া বার্তা দিয়েছেন গায়ক। অন্তত ভগবানকে তো ভয় পান! যেটা লিখছেন সেটা ঠিক করে লিখুন। কারণ এই আপনারা ভুলে যাচ্ছেন আজকের খবর কালকের ইতিহাস। আর এই খবর অনেকে পড়ছে তাদের কাছে ভুল তথ্য পৌঁছাচ্ছে। গায়কের এই ভিডিওটিও শেয়ার হবার পর থেকে বেশ ভাইরাল হয়ে পড়েছে। এবং সংবাদপত্রের এমন ভুল তথ্য দেওয়া নিয়ে অনেকেই নিজেদের মতামত প্রকাশ করেছেন কমেন্ট বক্সে।

Related Articles

Back to top button