বিনোদনসিনেমা

লিপস্টিক দিয়েই রাঙিয়ে দিয়েছিলেন সিঁথি! শাম্মি কাপুরের সাথে গীতা বালির বিয়ে যেন আস্ত সিনেমা

বলিউডের অন্যতম জনপ্রিয় মেগাস্টার তথা অভিনেতা শাম্মী কাপুর (Shammi Kapoor)। তিনি তাঁর নিজের সযয়কার অন্যতম জনপ্রিয় তারকা ছিলেন। শুধুমাত্র একজন দুর্দান্ত অভিনেতাই নন তিনি ছিলেন, একজন জনপ্রিয় ব্যক্তিত্ব। আজ অর্থাৎ ২১ অক্টোবর হল এই প্রয়াত অভিনেতার ৯০ তম জন্মবার্ষিকী। উল্লেখ্য ১৯৫৩ সালে জীবন জ্যোতি সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউডে তাঁর অভিষেক ঘটেছিল।

এরপর একটা লম্বা সময় ধরে অর্থাৎ ১৯৫০ দশকের শেষ থেকে ১৯৭০-এর দশক পর্যন্ত বলিউডে রাজত্ব করেছিলেন তিনি। তবে শুধু অভিনয় জীবনই নয় জনপ্রিয় অভিনেত্রী গীতা বালির (Geeta Bali) সঙ্গে তাঁর প্রেমের কাহিনী যেন আস্ত সিনেমা। গীতা বালির সাথে তাঁর প্রথম পরিচয় হয় ১৯৫৫ সালে মিস কোকা কোলা সিনেমায়, একসাথে জুটি বেঁধে কাজ করতে গিয়ে।

হরি আহলুওয়ালিয়া প্রযোজিত এবং পরিচালিত এই সিনেমার সেটেই গীতা বালির প্রেমে পড়ে গিয়েছিলেন শাম্মি কাপুর। সেসময় গীতা বালি একজন জনপ্রিয় তারকা। আর তখন শাম্মি কাপুর গীতা বালির জন্য এতটাই পাগল ছিলেন যে বার বার রিজেকশন পেয়েও তাঁকে একাধিকবার প্রপোজ করেছিলেন তিনি। এমনকি তিনি তাঁকে বহুবার বিয়ের প্রস্তাবও দিয়েছিলেন। কিন্তু তিনি তাঁকে প্রত্যাখ্যান করেছিলেন।

জানা যায় এরপর ১৯৫৫ সালের ২৩ আগস্ট শাম্মি আবার বোম্বাইয়ের জুহু হোটেলে গীতাকে প্রপোজ করেছিলেন, আর সেবারই তিনি শাম্মি কাপুরকে বিয়ে করতে রাজি হয়ে যান।এপ্রসঙ্গে একবার এক সাক্ষাৎকারে শাম্মি কাপুর বলেছিলেন ‘আমি গীতাকে আবার প্রস্তাব দিয়েছিলাম, তবে ভেবেছিলাম আবারও ও মাথা নেড়ে হাসবে। কিন্তু আসলে তা করেনি, পরিবর্তে, সে আমাকে অবাক করে দিয়ে বলে ‘ঠিক আছে শাম্মি, চলো বিয়ে করি। কিন্তু এখনই বিয়ে করতে হবে’।

শাম্মি কাপুর মমতাজ Shammi Kapoor Mamtaz

শুধু তাই নয় শাম্মি কাপুর আরও জানিয়ে বলেন যে ‘আমি গীতার সাথে তিনটি ছবি করেছি-কফি হাউস, কোকা কোলা এবং মোহর। আমরা একে অপরকে সত্যিই পছন্দ করতাম এবং প্রেমে পড়ে যাই। সে সময় ও একজন তারকা ছিল কিন্তু আমি তখন জনপ্রিয় ছিলাম না, তবুও ও আমার উপর বিশ্বাস করেছিল। আমি তিন বছর ধরে ওকে প্রপোজ করে গিয়েছি।এরপর ১৯৫৫ সালেই ২৪ আগস্ট আমরা ভোর ৪ টের সময় বিয়ে করেছিলাম। আমরা সাতপাক ঘোরার পর ও ওর ব্যাগ থেকে লিপস্টিক বার করে বলেছিল ওর সিঁথিতে পরিয়ে দিতে।’

Related Articles

Back to top button