বিনোদনভিডিও

সুপার ডান্সারের মঞ্চে সঞ্জয় দত্ত, কয়েক মিনিটেই তাজা হল জীবনভরের স্মৃতি, অজান্তেই এল চোখে জল

হিন্দি টেলিভিশন জগতের অন্যতম জনপ্রিয় ডান্স রিয়ালিটি শো হল ‘সুপার ডান্সার চ্যাপ্টার ৪'(Super Dancer Chapter 4)। এই শোয়ের চলতি সিজনে প্রতি সপ্তাহেই খুদে প্রতিযোগিদের তাক লাগানো পারফরম্যান্স দেখে মুগ্ধ দেশবাসী। এই অনুষ্ঠানে বিচারকের আসনে রয়েছেন কোরিওগ্রাফার গীতা কাপুর, বলিউড পরিচালক অনুরাগ বসু এবং বলিউড ডিভা শিল্পা শেট্টি (Shilpa Shetty)।

এছাড়াও এই মঞ্চে বিভিন্ন সপ্তাহে অতিথি বিচারক হয়ে উপস্থিত হন একাধিক বলিউড সেলিব্রেটি। সম্প্রতি এই শোয়ে উপস্থিত হয়েছিলেন বলিউডের মুন্না ভাই অর্থাৎ সঞ্জয় দত্ত (Sanjay Dutt)। উল্লেখ্য গতবছর মহামারিকালে একের পর এক খারাপ খবরে যখন জর্জরিত ছিল বলিউড ঠিক তখনই জানা যায় স্টেজ ফোর ক্যানসারে ভুগছেন সঞ্জু বাবা। তবে সেই কঠিন সময়টা আজ আর নেই।

অসম্ভব মনের জোর নিয়ে মারণ রোগের সাথে লড়াই করে শেষমেশ জয়ী হয়েছেন তিনি। যমজ সন্তান ইকরা ও শাহরানের ১০ বছরের জন্মদিনে নিজেই সেকথা টুইট করে জানিয়েছিলেন অভিনেতা। লিখেছিলেন ‘শেষ কয়েকটা সপ্তাহ আমার এবং গোটা পরিবারের জন্য খুব কঠিন সময় ছিল। তবে কথাতেই আছে আরও কঠিন সৈনিকে পরিণত করতেই ভগবান আমাদের যুদ্ধে নামান। আজ আমার সন্তানদের জন্মদিনে আমি খুব আনন্দিত যে এই যুদ্ধে আমি জয়লাভ করতে পেরেছি। ‘

ইতিমধ্যেই ষাটের গন্ডি পেরিয়েছেন সঞ্জয় দত্ত। তবে ক্যামেরার সামনে এলেই অভিনেতাকে দেখে সেকথা বোঝার উপায়। বলিউডের তারকা জুটি নারগিস এবং সুনীল দত্তের একমাত্র সন্তান সঞ্জয় দত্ত। বাবা মায়ের দেখানো পথ অনুসরণ করেই পা রেখেছিলেন অভিনয় জগতে। অল্প বয়সে মাদকাসক্ত হওয়া থেকে মাতৃবিয়োগ, মাঝে নেশামুক্তির লড়াই ও আন্ডারওয়ার্ল্ড যোগে জেল- অভিনেতার গোটা জীবনটাই আস্ত সিনেমা। দীর্ঘ অভিনয় জীবনে নানান চরিত্রে অভিনয় করে দর্শকদের মন জয় করেছেন ‘সঞ্জু বাবা’।

এদিন নাচের মঞ্চে তাঁর সেই বর্ণময় অভিনয় জীবনের লম্বা জার্নি একেবারে সিনেমার কায়দায় ফুটিয়ে তুলেছিলেন খুদে প্রতিযোগিরা। সোনি টিভির অফিশিয়াল পেজ থেকে সেই ভিডিও শেয়ার করা হয়েছে। ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে চোখের সামনে যেন একের পর এক পুরনো ঘটনার পুনরাবৃত্তি দেখতে পাচ্ছিলেন অভিনেতা। সবশেষে যখন গোটা ডান্স পরফমেন্স টা শেষ হয়েছে ততক্ষণে চোখ ভিজে উঠেছে অভিনেতার। অনবদ্য সেই ডান্স অ্যক্ট দেখে কমেন্ট বক্সে প্রশংসায় ভরিয়ে দিয়েছেন নেটিজেনরা।

Related Articles

Back to top button