বিনোদনসিনেমা

বিচ্ছেদ ভুলে আধ্যাত্মিক শান্তির খোঁজে সামান্থা! বান্ধবীকে নিয়েই গেলেন চারধাম যাত্রায়

চার বছরের দাম্পত্য জীবনে ইতি টেনে ইতিমধ্যেই বিবাহ বিচ্ছেদের পথ বেছে নিয়েছেন দক্ষিণী ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির জনপ্রিয় তারকা জুটি সামান্থা আক্কিনেনি (Samantha Akkineni) এবং নাগা চৈতন্য (Naga Chaitanya)। জল্পনাকে সত্যি করেই অক্টোবর মাসের শুরুতেই ভক্তদের উদ্দেশ্যে যৌথ বিবৃতি দিয়ে একথা জানিয়েছিলেন এই প্রাক্তন তারকা দম্পতি।

সেদিন ইনস্টাগ্রামে একই বার্তা আলাদা আলাদা করে পোস্ট করেছিলেন চৈতন্য এবং সামান্থা। বিগত চার বছরের দাম্পত্য জীবনে ইতি টেনে, এদিন ফ্যামিলি ম্যান ২ খ্যাত রাজি চরিত্রের অভিনেত্রী সামান্থা লিখেছিলেন ‘অনেক আলোচনা এবং চিন্তাভাবনার পর আমি এবং চে (চৈতন্য) আলাদা হওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। এক দশকেরও বেশি সময় ধরে আমরা বন্ধু। আমি বিশ্বাস করি, সেই বন্ধুত্বই আমাদের মধ্যে এক বিশেষ সম্পর্ককে বাঁচিয়ে রাখবে।’

তবে এখনও পর্যন্ত তাঁরা দুজনেই বিবাহ বিচ্ছেদের কারণ না জানালেও কিছুদিন আগে শোনা যায় সামান্থার বিরুদ্ধে বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক এবং গর্ভপাতের অভিযোগ এনেছিলেন তাঁর স্বামী নাগা চৈতন্য। এছাড়াও গুজব রটে চৈতন্যর সাথে পরিবার বৃদ্ধি করতে চাননা বলেই নাকি সামান্থা গর্ভপাত করিয়েছিলেন। এরপরেই নাকি তাঁদের মধ্যে দূরত্ব বাড়তে শুরু করে।

তবে সমস্ত গুজব উড়িয়ে সম্প্রতি এপ্রসঙ্গে মুখ খুলেছিলেন সামান্থা।তিনি বলেছিলেন ‘আমার ব্যক্তিগত কঠিন সময়ে আপনারা যে সহানুভূতি দেখিয়েছেন, তার জন্য অসংখ্য ধন্যবাদ। আমার প্রতি সহানুভূতিশীল হয়ে উদ্বেগ প্রকাশের জন্য এবং মিথ্যা গুজবের হাত থেকে আমাকে রক্ষা করার জন্য সকলকে ধন্যবাদ। অনেকেই বলছেন, আমার বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিল। আমি নাকি কখনও সন্তান চাইনি। আমি স্বার্থপর। এমনকী এও বলতে ছাড়েনি যে, আমি নাকি গর্ভপাত করিয়েছি। কিন্তু যে কোনও বিচ্ছেদই ভীষণ কষ্টদায়ক। এই কঠিন ক্ষত সারাতে আমাকে নিজের মত ছেড়ে দিন।’

Samantha Akkeneni Shilpa Reddy Chardham Yatra

তাই জীবনের এই কঠিন সময়ে কাজ থেকে সাময়িক বিরতি নিয়ে এবার প্রকৃতি এবং আধ্যাত্মিক শান্তির খোঁজে বেরিয়েছেন সামান্থা। বান্ধবী শিল্পা রেড্ডির সঙ্গে হেলিকপ্টারে চেপে হৃষিকেশ ঘোরার পর এবার চার ধাম যাত্রায় গিয়েছেন সামান্থা। জানা আপাতত যমুনোত্রীর পথেই রয়েছে তাঁরা। ইনস্টাগ্রামে সেই ছবিও শেয়ার করেছেন শিল্পা।ছবিতে দেখা যাচ্ছে রানি কালারের সালোয়ার কামিজ পরে লেন্সবন্দি হয়েছেন সামান্থা।

Related Articles

Back to top button