গসিপবিনোদনসিনেমা

সালমানের মতো বন্ধু পাওয়া ভাগ্যের ব্যাপার! বলিউডের ফ্লপ এই অভিনেতাদের হাত ছাড়েননি ভাইজান

এখনও পর্যন্ত বলিউডের মোস্ট এলিজেবল ব্যাচেলর হলেন সালমান খান। ভক্তরা ভালোবেসে তাকে ভাইজান বলে ডাকেন। বরাবরই সেলিব্রেটিদের ব্যক্তিগত জীবন থেকে খুঁটিনাটি যে কোনো বিষয় নিয়েই দর্শকদের কৌতূহলের অন্ত নেই। আর বলিউডের চূলবুল পান্ডেকে নিয়ে তো কথাই নেই। ব্যক্তিগত জীবন থেকে অভিনয় সর্বক্ষণ শিরোনামে থাকেন সাল্লু মিঞা।

ইন্ডাস্ট্রিতে তাঁর রাগচটা স্বভাবের সাথে সবাই যেমন পরিচিত তেমনই তার চরিত্রের উদার দিকটির কথাও অজানা নয় কারও কাছেই। চূড়ান্ত পেশাদার হয়েও ইন্ডাস্ট্রিতে তার আগোনা বন্ধু। তাদের সবার সাথেই নাকি দারুন সম্পর্ক ভাইজানের। বলিউডে তিনি এমন একজন অভিনেতা যিনি সবাইকে নিজের বন্ধু মনে করে কাছে টেনে নেন। বন্ধু হিসাবে একবার কারও হাত ধরলে তা সহজে ছাড়েন না ভাইজান। এমনকি ইন্ডাস্ট্রিতে এমন অনেক অভিনেতা অভিনেত্রী আছেন যারা একসময় নিজেদের কেরিয়ারে চূড়ান্ত ফ্লপ হলেও সালমান তাদের পাশে থেকেছেন সর্বক্ষণ।

১) সোনাক্ষী সিনহা (Sonakhi Sinha)

Sonakshi Sinha
বলিউডের বর্ষীয়ান অভিনেতা শত্রুঘ্ন সিনহার মেয়ে হলেন সোনাক্ষী সিনহা। বরাবরই মেয়েকে নিয়ে দারুন গর্ববোধ করেন অভিনেতা। কেরিয়ারের শুরুতে ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি কস্টিউম ডিজাইনার হিসাবে কাজ করতেন। একটা সময় ছিল যখন কোনো সিনেমায় ব্রেক পাচ্ছিলেন না সোনাক্ষী। সেসময় সালমান খানের ব্লক বাস্টার হিট দাবাং সিনেমায় অভিনয়ের মাধ্যমে বলিউডে পা রেখেছিলেন অভিনেত্রী। খুব অল্প সময়ের মধ্যেই সাফল্য তার নিত্যসঙ্গী হয়ে উঠেছে। বাবার পরিচয়ে নয় সম্পূর্ণ নিজের পরিচয়ে ইন্ডাস্ট্রিতে নিজের জায়গা তৈরি নিয়েছেন অভিনেত্রী। দাবাং সিনেমার পর থেকে একের পর এক হিট সিনেমা উপহার দিয়ে সোনাক্ষী এখন বলিউডের অন্যতম সফল অভিনেত্রী ।

২)ক্যাটরিনা কাইফ (Katrina Kaif)

Katrina Kaif

একটা সময় ভিকি কৌশল ঘরণী অর্থাৎ বলিউড অভিনেত্রী ক্যাটরিনা কাইফের সাথে সম্পর্কে ছিলেন সালমান খান। পরবর্তীতে তাঁদের সম্পর্ক ভেঙে গেলেও এখনও পর্যন্ত তারা একে অপরের ভালো বন্ধু। একসাথে সিনেমায় অভিনয় পর্যন্ত করেন। সম্প্রতি এক থা টাইগারের শুটিং সেরেছেন এই প্রাক্তন জুটি। প্রসঙ্গত একটা সময় এমন ছিল যখন কেরিয়ারের শুরুর দিকে বক্স অফিসে ক্যাটরিনার একের পর এক ছবি মুখ থুবড়ে পড়ে। সেসময় তার হাতটা শক্ত করে ধরে রেখেছিলেন সালমান খান।

৩) জারিন খান (Zarine Khan)

একসময় বলিউড অভিনেত্রী জারিন খানের সাথেও সম্পর্কে ছিলেন সালমান। ২০১০ সালে সালমন অভিনীত ‘বীর’ ছবির হাত ধরে বলিউডে পা রেখেছিলেন সেসময়কার নবাগতা অভিনেত্রী জারিন। ক্যাটরিনা কাইফের সঙ্গে তাঁর চেহারার মিল থাকায় শোরগোল পড়ে গিয়েছিল চারদিকে।তবে বক্স অফিসে তেমন ছাপ ফেলতে পারেননি জারিন। তা সত্ত্বেও আজও সালমনের ঘনিষ্ঠ বন্ধুদের তালিকায় রয়েছে অভিনেত্রীর নাম।

৪) আয়ুষ শর্মা (Ayush Sharma)


অন্তিম রিলিজের পর থেকে আয়ুষ শর্মা এখন ইন্ডাস্ট্রির পরিচিত মুখ হয়ে উঠেছেন। এছাড়া তার আরও একটি পরিচয় রয়েছে। সম্পর্কে তিনি হলেন বলিউডের ভাইজান সালমান খানের শ্যালক। এখনও পর্যন্ত আয়ুষ বলিউড একাধিক ছবিতে কাজ করেছেন। যার বেশীরভাগ সিনেমাই বক্স অফিসে ফ্লপ হয়েছে। কেরিয়ারে একাধিক সিনেমা ফ্লপ করলেও সালমান খান, কিন্তু কখনও তার হাত ছাড়েননি বরং সর্বক্ষণ পাশে থেকে অনুপ্রেরণা জুগিয়ে গিয়েছেন।

৫) জহির ইকবাল (Zaheer Iqbal)


নোটবুক সিনেমার হাত ধরে বলিউডে অভিষেক হয়েছে অভিনেতা জাহির ইকবালের। এই সিনেমাটি সালমান খানের ব্যানারে তৈরি। সিনেমাটি মুখ থুবড়ে পড়ে বক্স অফিসে।তবে সিনেমা ফ্লপ হলেও সালমান একজন বন্ধুর মতোই জহির ইকবালের পাশে থেকেছেন। তাদের দুজনকে একসঙ্গে অনেক জায়গায় দেখা গেছে। জহির ইকবাল সালমানের একজন বিশ্বস্ত বন্ধু।

Related Articles

Back to top button