গসিপবিনোদন

রাতের অন্ধকারে রাস্তায় ভিখারি খুঁজতেন ভাইজান! ফাঁস হল সালমান খানের এমন আচরণের কারণ

সালমান খান (Salman Khan), শুধু নামটাই যথেষ্ট তাকে চেনানোর জন্য। দেশে তো বটেই বিদেশেও ভাইজান বা সালমান খান নামের জনপ্রিয়তা রয়েছে ব্যাপক। বলিউডে একাধিক সুপারহিট ছবি উপহার দিয়েছেন তিনি। যেমন অ্যাকশন তেমনি অভিনয় সব মিলিয়ে নিজেকে একেবারে দর্শকদের মনের মত তৈরী করে ফেলেছেন ভাইজান। হামেশাই নেটপাড়ায় তাঁকে নিয়ে সর্বদাই চর্চা লেগে রয়েছে।

নিজে যেমন বলিউড মাতিয়েছেন তেমনি একাধিক তারকাদের বলিউডে কাজের সুযোগ করে দিয়েছেন তিনি। এমনকি একাধিক অভিনেত্রীর প্রথম ছবির হিরো কিন্তু সালমান খানই। এমনই একজন অভিনেত্রী হলেন, আয়েশা ঝুলকা (Ayesha Jhulka)। ১৯৯১ সালে ‘কুরবান’ ছবি দিয়েই বলিউডে পা রাখেন আয়েশা। এরপর থেকে কেটে গিয়েছে তিন দশকের বেশ সময়। তবে এখনও জীবনের প্রথম হিরোর কথা কিন্তু ঠিকই মনে রেখেছেন অভিনেত্রী।

Salman Khan Ayesha Jhulka film

এক সাক্ষাৎকারে সালমান খানের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়েছেন তিনি। জানান, শুধু অভিনেতা হিসাবেই নয় মানুষ হিসাবেও অসাধারণ তিনি। শুটিং শেষ হয়ে গেলে সবাই খাওয়া দাওয়া করে বাড়ি যাওয়ার জন্য তাড়াহুড়ো করলেও সালমান কিন্তু তা করতেন না। বরং বেঁচে যাওয়া খাবার গুছিয়ে প্যাক করে নিতেন। এরপর রাস্তায় বেরিয়ে পড়তেন সেই খাবার ক্ষুধার্থ মানুষদের কাছে পৌঁছে দেওয়ার জন্য।

Salman Khan

অভিনেত্রী জানান, ‘রাত হলে রাস্তায় ভিখারি খুঁজতে বেরিয়ে পড়তেন সালমান। কখনো হেঁটে বেরিয়ে তো কখনো গাড়ি থামিয়ে অভুক্ত লোকেদের খাবার দিতেন তিনি। তাই অভিনেতা হিসাবে তো বটেই মনের দিক থেকেও অসাধারণ মানুষ তিনি।’ অভিনেত্রীর এই মন্তব্য আবারও চর্চায় তুলে এনেছে ভাইজানকে।

Ayesha Jhulka

প্রসঙ্গত, একসময় একাধিক বলিউডের ছবিতে দেখা গেলেও বর্তমানে সেভাবে আর দেখা যায় না আয়েশাকে। শেষবার অভিনেত্রীকে দেখা গিয়েছিল ২০১৮ সালের ‘জিনিয়াস’ ছবিতে। এরপর কেটে গিয়েছে প্রায় চার বছর। তবে সম্প্রতি আবারও অভিনয়ে ফিরছেন তিনি। জানা যাচ্ছে ওয়েব সিরিজের হাত ধরেই আবারও কাজে ফিরছেন আয়েশা।

Related Articles

Back to top button