গসিপবিনোদন

অনেক হল এবার অবসর নিন! অমিতাভ বচ্চনকে অভিনয় ছাড়ার পরামর্শ দেন সলমনের বাবা সেলিম খান

সলমান খানের (Salman Khan) বাবা ও বিখ্যাত লেখক সেলিম খান (Salim khan) বলিউডের বেশ উজ্জ্বল নাম। সম্প্রতি বলিউড মেগাস্টার অমিতাভ বচ্চনকে (Amitabh Bachchan) অবসর নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন সেলিম। একটি সাম্প্রতিক সাক্ষাত্কারে সলমনের বাবা বলেছেন যে অমিতাভ তার কেরিয়ারে অনেক কিছু অর্জন করেছেন এবং তিনি নিজেই তার সাথে ১০ টিরও বেশি ছবিতে কাজ করেছেন। তাই সেলিমের বক্তব্য, এবার অমিতাভের নিজের জন্য অবসর নেওয়া উচিৎ। এই ইঁদূর দৌড়, তাড়াহুড়ো থেকে নিজেকে মুক্ত করা উচিৎ।

সম্প্রতি অমিতাভ ৭৯ তম জন্মদিন পালন করেছেন। আর সেই সাথেই সেলিমের এই সাক্ষাৎকার ব্যাপকভাবে সাড়া ফেলে দিয়েছে। দৈনিক ভাস্করের সঙ্গে আলাপকালে সেলিম বলেছেন, ‘অমিতাভ বচ্চনের এখন অবসর নেওয়া উচিত। তিনি জীবনে যা কিছু অর্জন করতে চেয়েছেন, সবই পেয়েছেন। একজন ব্যক্তির জীবনের কিছু বছর নিজের জন্যও রাখা উচিত। অমিতাভ তার ইনিংসটি পেশাদারভাবে খুব ভালো খেলেছেন। তিনি অনেক ভাল কাজ করেছেন এবং এখন তার নিজেকে রেস থেকে মুক্ত করা উচিত এবং সুন্দর অবসর নেওয়া উচিত।’

সেলিম এই সাক্ষাৎকারে আরও বলেছিলেন- ‘অবসরের ব্যবস্থা এমন যে একজন ব্যক্তি তার জীবনের কিছু বছর তার ভালোমতো কাটিয়ে দিতে পারে। শুরুতে লেখাপড়া, লেখাপড়া করেই কেটে যায়, তারপর সংসারের দায়িত্ব এসে পড়ে আপনার ওপর।উদাহরণস্বরূপ, আমার পৃথিবী এখন সীমিত। আমি যাদের সাথে বেড়াতে যাই তারা সবাই নন-ফিল্ম ব্যাকগ্রাউন্ডের। তিনি বলেছিলেন- ‘অমিতাভ বচ্চন ছিলেন সেই নায়ক যিনি অ্যাংরি ইয়াং ম্যান চরিত্রে অভিনয় করতে পারতেন, যিনি আজও একই আছেন। কিন্তু এখন তার মতো অভিনেতার যোগ্য গল্প নেই, ভালো স্ক্রিপ্টও নেই।’

প্রথমবার ১৯৭৩ সালে জঞ্জির ছবিতে একসঙ্গে কাজ করেছিলেন সেলিম খান ও অমিতাভ বচ্চন। ছবিতে অমিতাভের পাশাপাশি মুখ্য ভূমিকায় ছিলেন জয়া বচ্চন ও প্রাণ। তাঁদের আরেকটি উল্লেখযোগ্য ছবি শোলে। ভারতীয় ছবির অন্যতম মাইলস্টোন এই ছবির চিত্রনাট্য লিখেছিলেন সেলিম খান ও জাভেদ আখতার। জয়ের চরিত্রে অমিতাভ ছিলেন অনবদ্য। এছাড়াও দিওয়ার, মজবুর, ডন, ত্রিশূল, কালা পাথ্থর, দোস্তানাসহ সেলিমের লেখা বেশ কয়েকটি সুপারহিট ছবিতে অভিনয় করেছেন অমিতাভ বচ্চন।

 

Related Articles

Back to top button