গসিপবিনোদনসিনেমা

শিল্পা শেট্টির বাড়িতে মদ খেয়ে রাত কাটাতেন ভাইজান! কেঁদেছিলেন ফুঁপিয়ে ফুঁপিয়ে, এই ছিল কারণ

বলিউডের প্রথমসারির অভিনেত্রীদের মধ্যে একজন শিল্পা শেট্টি (Shilpa Shetty)। যেমন অভিনয়ে তেমনি এই বয়সেও দুর্দান্ত ফিগারের জন্য বেশ জনপ্রিয় শিল্পা। বলিউডের একাধিক সুপারস্টারের সাথে কাজ করেছেন অভিনেত্রী। ভাইজান সালমান খানের (Salman Khan) সাথেও একাধিক সিনেমা করেছেন। আর অভিনয়ের সূত্রে বেশ ভালোই বন্ধুত্ব রয়েছেন দুজনের মধ্যে। বন্ধুত্ব এতটাই গভীর যে বাড়িতে যাতায়াতও রয়েছে বেশ ভালোই।

৯০ এর দশকে ‘শাদী করকে ফাঁস গেয়া ইয়ার’, ‘ফির মিলেঙ্গে’ ‘গর্ভ’ ছবিটি সালমান খানের সাথে জুটি বেঁধেছিলেন শিল্পা। দর্শকদের দুজনের জুটি বেশ পছন্দও হয়েছিল। দুজনের মাঝে প্রেমের গুঞ্জন প্ৰজন ছড়িয়ে পড়েছিল। তবে প্রেমের গুঞ্জন উড়িয়ে নিজেদের ভালো বন্ধু হিসাবে পরিচয় দিয়েছিলেন দুজনেই।

আসলে দুজনের প্রেমের সম্পর্কে গুঞ্জন ওঠাটা  খুব একটা অস্বাভাবিক ছিল না! শিল্পার বাড়িতে প্রায় দিনই রাতের বেলা পৌঁছে যেতেন সালমান খান। সেখানেই রাত কাটাতেন। তবে নিজেদের  সম্পর্ককে বন্ধুত্বের নাম দিয়ে শিল্পা জানান, সালমান খারাপ সময় একজন ভালো বন্ধুর মত পাশে থেকেছে সবসময়েই।

এক সাক্ষাৎকারে অভিনেত্রী জানান, ‘আমার বাবা যখন পৃথিবী থেকে চলে গেলেন তখন সালমান আমার বাড়িতে এসেছিল। সালমান আমার বাবার সাথেই একসাথে বসে অনেক সময় মদ খেত। দুজনের মদ খাবার টেবিলে বসেই কেঁদে ফেলেছিলেন সালমান। এই ঘটনার পর থেকেই আরও গভীর হয় গুমের বন্ধুত্ব।

এখানেই শেষ নয়! অভিনেত্রী আরো জানান, ‘একসময় আমি প্রেমে পড়ে ধোকা খেয়েছিলাম। কারণ আমার বন্ধুরা একজনকে আমার সাথে প্রেম করার  জন্য চ্যালেঞ্জ দিয়েছিল। তাই সে আমার সাথে প্রেম করতে এসেছিল, কিন্তু আমি তাকে ভালোবেসে ফেলেছিলাম তাই দুঃখ পেয়েছিলাম। অনেকের হয়তো এটা শুনে সিনেমার গল্প মনে হতে পারে, কিন্তু এটা একেবারেই সত্যি।

Salman Khan cried in Shilpa Shetty's house

সালমান নিজেও শিল্পার সম্পর্কে একটি মজার কাহিনী শেয়ার করেছিলেন। অভিনেতা জানান নাচ জ্বালিয়ে সিজেন ৬  এর সময় পুনেতে থাকাকালীন শিল্পা ও সালমান একসাথে ডিনার করছিলেন। সেই সময় শিল্পা একটি গ্লাস ছুঁড়ে ভেঙে দিয়েছিলেন। সেই সময় সালমান কাঁদতে শুরু করেছিলেন যে, ‘কি করে এটা তুমি! আমার দিদার দেওয়া একমাত্র গ্লাস ছিল এটা। বাবা জানতে পারলে আমায় মেরেই ফেলবে’।

সালমানকে এমন অবস্থায় দেখে শিল্পাও রীতিমত কাঁদতে শুরু করে দেন। সেই সময় সালমান হাসতে শুরু করলে শিল্পা বুঝতে পারেন কোনো দিদার দেওয়া গ্লাস নয় বরং মজা করছিল তাঁর সাথে। এমনই অনেক খুনসুটি মজার অভিজ্ঞতা রয়েছে দুজনের মধ্যে। আর নিজেদের বন্ধুত্ব সম্পর্কে শিল্পা জানিয়েছিলেন, আমাদের বন্ধুত্ব কোনোদিনই ভাঙবে না।

Related Articles

Back to top button