বিনোদন

অবশেষে নীরবতা ভাঙলেন, ড্র্যাগ মামলায় মেয়ে সারাকে সাহায্য নিয়ে মুখ খুললেন সাইফ আলী খান

সুশান্ত সিং রাজপুতের মৃত্যুর পর উঠে আসে বলিউডে মাদকযোগের প্রসঙ্গ। সেই ড্রাগ কেলেঙ্কারিতেই জড়িত থাকার অভিযোগে সারা আলি খানকে তলব করে এনসিবি। এরপর মুম্বাই ফিরে আসেন সারা আলি খান । এর পরই গুজব ছড়ায় যে সাইফ আলি খান তার স্ত্রী কারিনা কাপুর খান এবং ছেলে তৈমুরকে নিয়ে দিল্লি চলে যান সারাকে একা ফেলে৷ আগের পক্ষের স্ত্রী অমৃতার মেয়ে সারার এই অবস্থার জন্য সইফ সব দোষ সারার মায়ের কাঁধেই চাপিয়েই নাকি দায় ঝেড়েছেন।

এবার এই গুজবের বিরুদ্ধেই মুখ খুললেন সইফ। একটি সংবাদমাধ্যমকে তিনি সাফ জানালেন, যে তার তিন সন্তানই তার কাছে সমান আদরের। তাদের প্রত্যেকেই ভালোবাসেন নবাব। তিনি জানান যেকোনো পরিস্থিতিতেই তাদের পাশে তিনি সবসময়ের জন্য রয়েছেন। যদিও সইফ এও স্বীকার করেন যে, তৈমুর ছোট তাই তার জন্যই বেশি সময় ব্যয় করতে হয় তাকে কিন্তু তার তার বড় ছেলে ইব্রাহিম এবং কন্যা সারার সাথেও তার নিয়মিত যোগাযোগ রয়েছে বলেই জানান তিনি।

ইব্রাহিম আলি খান এবং সারা আলি খান

আরও বিশদ বিবরণ দিয়ে সাইফ জানান, কোনও কিছুর জন্য সারাকে আঘাত করা হলে তৈমুরও তাতে কষ্ট পায়। সাইফ আরও জানান, যে তাঁর তিন সন্তান ভিন্ন বয়সের, তাই তাদের প্রত্যেকেরই আলাদা আলাদা দাবি বা চাহিদা রয়েছে। সবটা সবার সাথে হয়না।যেমন, সে ফোনে দীর্ঘ সময় সারা বা ইব্রাহিমের সাথে চ্যাট করতে পারে, ডিনারে যেতে পারে কিন্তু তৈমুরের সাথে সেটা সম্ভব নয়। তাই সবটা না জেনে সইফ-সারা কে নিয়ে যে গুজব রটেছে তার বিরুদ্ধেই এবার যুক্তি দিয়ে সন্তানদের সঙ্গে তার সম্পর্কের কথা সাফ জানালেন সইফ।

Related Articles

Back to top button