বিনোদনভিডিওসিরিয়াল

জন্মদিনে সাব্যসাচীর পাশে হাসিমুখে ঐন্দ্রিলা! অভিনেত্রীর প্রোফাইল সক্রিয় হতেই হইচই নেটপাড়ায়

গত বছরের শেষের দিকে ২০ নভেম্বর প্রয়াত হয়েছেন ‘জিয়নকাঠি’ অভিনেত্রী ঐন্দ্রিলা শর্মা (Aindrila Sharma)। দেখতে প্রায় ২ মাস হতে চলল সবাইকে ছেড়ে চলে গিয়েছেন অভিনেত্রী। কিন্তু কথায় আছে মৃত্যুর পরেও মানুষ বেঁচে থাকেন তাঁর কাজের মধ্যে দিয়ে। ঐন্দ্রিলাও তাই, মৃত্যুর পরেও তিনি জীবিত রয়েছেন অসংখ্য ভক্তদের মনের মধ্যে।

কিন্তু মেয়েকে হারিয়ে হাসতেই যেন ভুলে গিয়েছেন ঐন্দ্রিলার মা শিখা শর্মা (Shika Sharma)। হাসিখুশি মিষ্টিকে হারিয়ে প্রতিটা মুহূর্ত কাটছে যন্ত্রণার মধ্যে দিয়ে। এরইমাঝে সবাইকে চমকে দিয়ে আজই হঠাৎ করেই সোশ্যাল মিডিয়ায় সক্রিয় হয়ে উঠল প্রয়াত অভিনেত্রীর ফেসবুক প্রোফাইল (Facebook Profile)। হাসি মুখের ঐন্দ্রিলাকে দেখে এক মুহূর্তের জন্য চমকে ওঠেন সবাই।

Sabyasachi Chowdhury deactivates Instagram after facebook after Aindrila Sharma Passes away

এদিন ঐন্দ্রিলার প্রোফাইল থেকেই সব্যসাচী চৌধুরী (Sabyasachi Chowdhury)-র সাথেই দেখা গেল ঐন্দ্রিলাকে। ক্যাপশনে লেখা ‘শুভ জন্মদিন আমার সব্য’। আসলে এদিন ঐন্দ্রিলার মা শিখা শর্মা সিদ্ধান্ত নিয়েছেন মেয়ের প্রোফাইল আবার চালু করবেন তিনি। আর এদিনের ভিডিওটিও ছিল পুরনো। গত ৩০ অক্টোবর সব্যসাচীর জন্মদিনের। ঐদিন শেষবার হাসিমুখে দেখ এগিয়েছিল অভিনেত্রীকে।

তারপরের দিনই ব্রেন স্ট্রোক হয়েছিল অভিনেত্রীর। এদিনের পোস্ট সম্পর্কে ঐন্দ্রিলার মা এই সময় ডিজিটালকে জানিয়েছেন ‘ওর প্রোফাইলটা অ্যাকটিভ (Active) রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ওটা থাক। অনেক স্মৃতি আছে। এই ভিডিয়োটা তো মিষ্টির (ঐন্দ্রিলা) প্রোফাইলে ছিল না। তাই শেয়ার করলাম’। শিখা দেবী আরও জানান, “ওই ভিডিয়োটা ওরা আমাকে পাঠিয়েছিল। আমি আপলোড করেছিলাম। সেটাই শেয়ার করেছি। ওদের স্মৃতিটা থাক ওই প্রোফাইলে’।

Aindrila Sharma with Mother Sikha Sharma

এছাড়া এদিন মেয়ের মোবাইল নম্বরটিও রিচার্জ করে চালু রাখবেন বলে ঠিক করেছেন অভিনেত্রীর মা। শুধু তাই নয় নিজের নম্বরে ব্যালান্স না থাকায় মেয়ের নম্বর থেকেই তিনি ফোন করেছিলেন সব্যসাচীকে। কিন্তু ফোন ধরেননি সব্যসাচী। কিন্তু শিক্ষা দেবী জানান ‘এরপরেই ও আমার নম্বরে ফোন করেছিল। সব্য আমাকে বলে ওই নম্বর থেকে ওকে ফোন না করতে’।


এছাড়া এদিন আর কি বলেছেন সব্যসাচী? এপ্রসঙ্গে শিখা দেবী বলেন ‘একটা অন্যরকম অনুভূতি হয়েছে হয়ত। ও বলল, কাকিমা তুমি সবসময় নিজের নম্বর থেকে ফোন করবে। এই নম্বর থেকে আমাকে কখনও ফোন করবে না।’ ঐন্দ্রিলার মা জানান তিনিও রাজি হয়েছেন সব্যসাচীর কথায়। এছাড়া নতুন সিরিয়াল ‘রামপ্রসাদ’-এ সব্যসাচী  কামব্যাক করাতেও তিনি  বেশ খুশি হয়েছেন বলেই জানিয়েছেন।

Related Articles

Back to top button