ভিন্ন ‘স্বাদে’ নির্বাচনী প্রচারে অভিনেত্রী, দিদার হাতের পুদিনার চাটনি রান্না শিখলেন তৃণমূলের সায়নী


প্রার্থী হিসেবে নাম ঘোষণার পর থেকেই সম্পূর্ণ ভিন্ন মেজাজে টলি-অভিনেত্রী সায়নী ঘোষ (Saayoni Ghosh)। ট্যুইটার (Twitter) হোক বা ‘দুয়ারে দুয়ারে’ নির্বাচনী প্রচার, সকল ক্ষেত্রেই নিজস্বতার ছাপ রেখে চলেছেন সায়নী। বয়স্কদের থেকে আশীর্বাদ নেওয়ার পাশাপাশি খুদেদের সঙ্গেও মিশে যাচ্ছেন দক্ষিণ-আসানসোলের (Asansol) তৃণমূল প্রার্থী (TMC)। পাড়ার রোয়াকে বসে চপ-মুড়ি খাওয়ার পাশাপাশি রান্নার পদ্ধতিও (Receipe) শিখছেন সায়নী।

সম্প্রতি নিজের ট্যুইটার ওয়ালে একটি ভিডিও পোস্ট করেছেন সায়নী। দিদার থেকে পুদিনার চাটনি তৈরি করার রেসিপি কিভাবে শিখলেন অভিনেত্রী, তাই দেখা গেছে এহেন সায়নীর ট্যুইটার হ্যান্ডেলে। ভিডিওয় দেখা গেছে, নির্বাচনী প্রচারে বেরিয়ে এক বৃদ্ধাকে উঠানে বসে পুদিনার চাটনি তৈরি করতে দেখেন সায়নী। স্বাভাবিকভাবেই দিদার পাশে বসে পড়ে আপন নাতনির মত জানতে চান উপকরণের সম্বন্ধে। দিদাও মহানন্দে সবকিছু বলতে থাকেন। তখনই একজন উপকরণ হিসেবে চিনির নাম করতেই ঝাঁঝিয়ে ওঠেন দিদা, জানান যে চিনি দিলে চাটনির স্বাদ খারাপি হয়ে যায়!

ইচ্ছা থাকলেও চাটনি চেখে দেখতে পারেননি সায়নী। তবে নির্বাচনী প্রচারের হাওয়া যে পরতে পরতে পরখ করে নিচ্ছেন তারকা-প্রার্থী, তা স্পষ্ট তাঁর সোশ্যাল-ওয়ালেই। বাংলার আসন্ন বিধানসভা নির্বাচনে যে বেশ ভালো ফল করবেন সায়নী, সে সম্পর্কে বেশ আশাবাদী সায়নীর অনুগামী সহ তৃণমূল সমর্থকরা। পাশাপাশি পদ্ধতি শিখে যেভাবে চাটনি নিজে বানিয়ে খাওয়ার অঙ্গীকার করেছেন সায়নী, তাতে আগামী দিনে তিনি যে ভোটের ময়দানও খতিয়ে দেখে নেবেন খুব মনোযোগ সহকারে, তা বলাই বাহুল্য।

অন্যদিকে রুপোলি পর্দায় যথেষ্ট কাজের অভাবেই শিল্পীদের রাজনৈতিক আঙিনায় দেখা দেওয়ার মত মারাত্মক অভিযোগ তুলেছেন প্রাক্তন তৃণমূল-কর্মী ও অভিনেতা চিরঞ্জিত। সোশ্যাল মাধ্যমে বেশ সক্রিয় থাকলেও এ বিষয়ে কোনোরকম মন্তব্য করেননি সায়নী। তবে ভোট হোক বা অন্যস্বাদের পরিণত চরিত্র, সবেতেই যে নিজের ১০০% দেওয়ার চেষ্টায় থাকেন সায়নী, তা মেনে নিয়েছেন বিরোধী দলের রাজনীতিকরাও।


Like it? Share with your friends!

699
699 points