গানবিনোদন

AC ছাড়া বদ্ধ জায়গায় পারফর্মেন্স কষ্টকর, KK-র মৃত্যুর পর শিল্পীদের কষ্ট নিয়ে সরব রূপঙ্কর বাগচী

কেকে (KK) কে নিয়ে মন্তব্যের পর থেকেই রূপঙ্কর বাগচীর (Rupankar Bagchi) জীবন দুর্বিসহ হয়ে পড়েছিল। নেট মাধ্যমে নেটিজেনদের ব্যাপক রোষের মুখে পড়েছিলেন তিনি। কটাক্ষ থেকে কুরুচিকর মন্তব্য করা হয়েছিল গায়ক ও তার পরিবারকে। বিষয়টা এতোটাই চরমে ওঠ এজে খুনের হুমকি পর্যন্ত দেওয়া হয় রূপঙ্কর বাগচীকে। এমনকি পরিবারের সদস্য মেয়ে, স্ত্রী ও বৃদ্ধা মাকে নিয়েও করা নোংরা মন্তব্য।

এতকিছু ঘটে গেলেও বিতর্ক শুরু হওয়ার পর থেকে মুখ খোলেননি তিনি। শুধু বিতর্কে ইতি টানতে সংবাদ মাধ্যমের সামনে ক্ষমা চেয়েছিলেন নিঃশর্ত ভাবে। তবে সেদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তর তিনি তেমনি। বরং কিছুদিন পর তিনি জানান, সোশ্যাল মিডিয়া থেকে কিছুদিনের জন্য বিরতি নিতে চান তিনি।

সম্প্রতি সংবাদ মাধ্যমের মধ্যে দিয়ে নিজের কথা তুলে ধরেছেন গায়ক রূপঙ্কর বাগচী। বললেন মঞ্চে বন্ধ জায়গায় শিল্পীদের অনুষ্ঠান করা নিয়ে। দর্শকে ঠাসা বদ্ধ জায়গায় হাজার হাজার লোকের সামনে পারফর্ম করাটা শিল্পীদের স্বপ্ন বটে। তবে সেটা করতে গিয়ে কতটা কষ্ট করতে হয় সেটা শুধু শিল্পীরাই বোঝেন। এই নিয়েই এবার মুখ খুলেলেন রূপঙ্কর।

তাঁর মতে, এক টানা ২-৩ ঘন্টা ধরে পারফর্ম করাটা দর্শকদের কাছে স্বাভাবিক মনে হতেই পারে। কিন্তু বিষয়টা শিল্পীদের জন্য কষ্টকর। কারণ একটানা এতক্ষণ ধরে পারফর্ম করলে শরীরের ওপর দিয়ে যে ধকল যায় সেটা বোঝানো সম্ভব নয়। আসলে সমস্ত শিল্পীদেরকেই তিনি নিজের পরিবারের সদস্যদের মতোই মনে করেন। তাই সকলের জন্য কিছু পরামর্শ দিয়েছেন তিনি।

কি সেই পরামর্শ? সেটা হল এনার্জি বাড়ানোর মত খাবার সাথে রাখা যেমন কলা, ডার্ক চকলেট। আর পর্যাপ্ত জল বা তার থেকেও ভালো গ্লুকোজ হল সাথে রাখা। এতে কিছুটা কষ্ট কমানো যেতে পারে। সাথে বদ্ধ পরিবেশের মঞ্চের AC নিয়েও মুখ খুলেছেন তিনি।

কেকের মৃত্যুর পরেই অভিযোগ উঠেছিল নজরুল মঞ্চের এসি কাজ কোরাবন্ধ করে দিয়েছিল। যার জেরে অতিরিক্ত দর্শকের ভিড়ে আরও দমবন্ধকর পরিস্থিতি হয়ে দাঁড়িয়েছিল। এরপর তিনি বলেন, বদ্ধ জায়গায় পারফর্ম করতে হলে এসি অবশ্যই থাকতে হবে। নাহলে হাজারো দর্শকের সামনে পারফর্ম করা সম্ভব নয়। কিন্তু কেকের একাধিক ভিডিওতে দেখা গেছে ঘামে ভিজে গিয়েছিলেন তিনি। মুখ মুছতে মুছতেই পারফর্ম করছিলেন। একজন সত্যিকারের শিল্পীর মত শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত পারফর্ম করে গেছিলেন কেকে।

Related Articles

Back to top button