চুরির পর কল্পনার চাইতেও বেশি টাকা দেখে হার্ট অ্যাটাক হয়ে প্রাণ যায় যায় অবস্থা চোরের!


মাঝে মধ্যেই নানান জায়গায় চুরির (Robbery)ঘটনার কথা শুনতে পাওয়া যায়। কখনো দিনে দুপরে ডাকাতি তো কখনো আবার রাতের অন্ধকারেই বেমালুম চুরি। মূলত চুরি ক্ষেত্রে লক্ষ লক্ষ টাকার চুরির কথা শোনা যায়। তবে আজ এমন এক চুরির ঘটনা শোনাব যা শুনে হয়তো হেসেই ফেলবেন আপনি। কারণ? কারণটা হল কখনো শুনেছেন যে চুরি করে চুরির টাকা দেখেই হার্ট অ্যাটাক হয়েছে চোরের! শোনেন নি আশা করি, আর শোনার কথাও নয়।

চোর চুরি করে টাকার লোভে এটাই তো স্বাভাবিক। আর যত বেশি টাকা পাবে ততই বেশি খুশি হওয়া উচিত চোরের। কিন্তু সম্প্রতি এমন এক চুরির ঘটনা সামনে এসেছে যেখানে চুরির পর বিপুল টাকার পরিমান দেখেই হার্ট অ্যাটাক (Heart Attack) হয়ে গিয়েছে চোরের। আসলে এতটাকা হয়তো একসাথে কখনো দেখেনি সে, তাই টাকা দেখে খুশির চোটেই এই অবস্থা।

অদ্ভুত এই চুরির ঘটনাটি ঘটেছে বিগত ফেব্রুয়ারি মাসের ১৭ তারিখ। আর ঘটনাটি ঘটেছে উটারপ্রদেশের (Uttarpradesh) বিজনৌর নামক একটি জায়গায়। ওই এলাকার নবাব হায়দার নামের এক ব্যক্তি চুরির পর থানায় ৭ লক্ষ টাকা চুরির অভিযোগ জানা ন। অভিযোগ জানানো হলে পুলিশ তদন্ত শুরু করে। এরপর কিছুদিন পরেই ধরা পরে চুরির জন্য অভিযুক্ত দুই চোর। তারপর শুরু হয় জিজ্ঞাসাবাদ, তাতে যা উত্তর বেরিয়ে এসেছে চোরেদের কাছ থেকে তা শুনে অবাক খোদ পুলিশ কর্তারাও।

জানা যাচ্ছে ধৃত দুই ব্যক্তিরই বয়স ৩০ এর ওপর। নিজেদের চুরির কথা স্বীকার করেছে তারা দুজনেই পুলিশের জেরার মুখে। সাথে আরো জানা যায় চুরি করে এত টাকা পাওয়া যাবে স্বপ্নেও ভাবতে পারেননি দুজনের কেউই। প্রথমে ভেবেছিলেন হয়তো কয়েক হাজার টাকা মত পাওয়া যাবে। কিন্তু চুরির পর দেখেন মোট ৭ লক্ষ টাকা চুরি করেছেন দুজনে। যারপর দুজনে ৩.৫ লক্ষ টাকা করে ভাগাভাগি করে নেন। আর এরপরেই একজনের এতটাকা দেখে খুশিতে হার্ট অ্যাটাক হয়ে গিয়েছে।

পুলিশকে চোর এও জানিয়েছে হার্ট অ্যাটাক হবার পর একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয় সে। যেখানে চুরি করার টাকার অনেকটাই খরচ হয়ে যায়। অন্যদিকে আরেক চোর জুয়া খেলায় টাকা ওড়াতে থাকে। তবে চোরদেরকে ধরে তাদের কাছ থেকে সাড়ে তিন লক্ষ টাকার বেশি টাকা উদ্ধার করা গিয়েছে এমনটাই জানা যাচ্ছে পুলিশের তথ্য মতে।